• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • POLICE BREAKS DOORS BJP LEADER SAJAL GHOSH TO ARREST HIM DMG

BJP Leader Sajal Ghosh Arrested: লাথি মেরে বাড়ির দরজা ভাঙল পুলিশ, গ্রেফতার বিজেপি নেতা সজল ঘোষ! মুচিপাড়ায় ধুন্ধুমার

সজল ঘোষের বাড়ির দরজা ভাঙছে পুলিশ৷

এক তৃণমূল যুবনেতার স্ত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে মুচিপাড়া এলাকা৷ সজল ঘোষের অনুগামীরাই এই কাণ্ড ঘটায় বলে অভিযোগ (BJP Leader Sajal Ghosh Arrested)৷

  • Share this:

    #কলকাতা: তৃণমূল- বিজেপি-র বচসা ঘিরে মুচিপাড়ায় ধুন্ধুমার৷ দরজা ভেঙে বাড়িতে ঢুকে বিজেপি নেতা সজল ঘোষকে গ্রেফতার করল পুলিশ৷ বৃহস্পতিবার রাত থেকেই স্থানীয় এক তৃণমূল যুবনেতার স্ত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে মুচিপাড়া এলাকা৷ সজল ঘোষের অনুগামীরাই এই কাণ্ড ঘটায় বলে অভিযোগ৷ এর পর রাতে পাল্টা তৃণমূলের বিরুদ্ধে মুচিপাড়ার একটি ক্লাব ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে৷ ওই ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত বিজেপি নেতা সজল ঘোষ৷ তিনি কলকাতা পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলর প্রদীপ ঘোষের ছেলে এবং সন্তোষ মিত্র স্কয়ারের দুর্গাপুজোর অন্যতম প্রধান কর্তা৷ যদিও সজল ঘোষের অভিযোগ, তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ মিথ্যে৷ সজল ঘোষকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ থানার বাইরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস৷

    ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার রাত থেকেই৷ অভিযোগ, কলকাতা পুরসভার ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডের যুব তৃণমূল সভাপতির স্ত্রী ওষুধ কিনে ফেরার সময় মদ্যপ অবস্থায় দুই বিজেপি কর্মী তাঁর শ্লীলতাহানি করে৷ তাঁরা বিজেপি নেতা সজল ঘোষের অনুগামী বলেও অভিযোগ৷ তৃণমূল কর্মীদের দাবি, থানায় এই ঘটনায় অভিযোগ দায়ের করতে গেলে অভিযুক্তদের বাঁচাতে বিজেপি নেতা সজল ঘোষ সেখানে হাজির হন৷

    সজল ঘোষের আবার পাল্টা অভিযোগ, রাতে তৃণমূল কর্মীরা এলাকার একটি ক্লাবে ভাঙচুর চালায়৷ এক বিজেপি সমর্থকের বাড়িতেও ভাঙচুর করা হয়৷ এই অভিযোগ পাল্টা অভিযোগেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা৷ এর পর এ দিন সকাল থেকে উত্তেজনা আরও বাড়ে৷

    বেলা গড়াতেই সজল ঘোষের বাড়ি ঘিরে ফেলে মুচিপাড়া থানার পুলিশ৷ তাঁকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসতে অনুরোধ করা হয়৷ কিন্তু সজল ঘোষ না বেরনোয় লাথি মেরে তাঁর বাড়ির দরজা ভেঙে ভিতরে ঢুকে তাঁকে গ্রেফতার করে কার্যত জোর করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ৷ যেহেতু সজল ঘোষের বাড়ি থেকে থানার দূরত্ব খুব সামান্যই, তাই হাঁটিয়েই থানায় নিয়ে আসা হয় বিজেপি নেতাকে৷

    পুলিশের দাবি, তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে দু'টি এফআইআর করা হয়েছে৷ তাতে সজল ঘোষের নাম থাকায় তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ সজল ঘোষের পাল্টা দাবি, ক্লাব ভাঙচুরের ঘটনায় তিনি অভিযোগ জানাতে মুচিপাড়া থানায় গেলেও অভিযোগ নেয়নি পুলিশ৷ উল্টে তাঁকে গ্রেফতারের তোড়জোড় করা হয়৷ তাই তিনি বাড়ি ফিরে আসেন৷

    সজল ঘোষের বাবা প্রদীপ ঘোষ দীর্ঘদিন কলকাতা পুরসভার কংগ্রেস কাউন্সিলর ছিলেন৷ পরে তৃণমূলে যোগ দিলেও শেষ পর্যন্ত বিজেপি-তে নাম লেখান তিনি৷ যদিও এখন আর সেভাবে রাজনীতিতে সক্রিয় নন প্রদীপ বাবু৷ সজল ঘোষও তৃণমূল ছেড়ে অনেক দিন আগেই বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন৷

    Sukanta Mukherjee
    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: