Home /News /kolkata /
Recruitment || কলেজে কলেজে অধ্যক্ষ হতে বাড়ছে আগ্রহ, রেকর্ড সংখ্যক আবেদনপত্র জমা

Recruitment || কলেজে কলেজে অধ্যক্ষ হতে বাড়ছে আগ্রহ, রেকর্ড সংখ্যক আবেদনপত্র জমা

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Recruitment || রাজ্য প্রায় ৯০ টি কলেজের অধ্যক্ষ পদ ফাঁকা রয়েছে। তার জন্য ইতিমধ্যেই বিজ্ঞপ্তি জারি করে কলেজ সার্ভিস কমিশন।

  • Share this:

একটা সময় কলেজে কলেজে অধ্যক্ষ হওয়ার অনীহা তৈরি হচ্ছিল অধ্যাপকদের মধ্যেই। এবার সেই চিত্রই বদলাতে শুরু করল। এবারে অধ্যক্ষ হওয়ার জন্য রেকর্ড সংখ্যক আবেদনপত্র জমা পড়ল কলেজ সার্ভিস কমিশনে। এমনটাই খবর কমিশন সূত্রে। রাজ্যের প্রায় ৯০টি কলেজের অধ্যক্ষের পদ ফাঁকা রয়েছে। সেই পদগুলি পূরণের জন্য সম্প্রতি বিজ্ঞপ্তি জারি করে কলেজ সার্ভিস কমিশন। কলেজ সার্ভিস কমিশন সূত্রে খবর রেকর্ড সংখ্যক আবেদনপত্র জমা পড়েছে। প্রায় ৯০ টি শূন্য পদের জন্য আবেদন জমা পড়েছে ৩০০ টির ও বেশি। শুধু তাই নয় গত কয়েক বছরে অধ্যক্ষ হওয়ার জন্য এত সংখ্যক আবেদনপত্র জমা পড়েনি বলেই কমিশন সূত্রে খবর।

আরও পড়ুন: নবান্ন যাওয়ার পথে হঠাৎ এসএসকেএম-এ মুখ্যমন্ত্রী! কেন? গুঞ্জন শুরু নানা মহলে

শেষ তিনটি বিজ্ঞাপন অনুযায়ী  অধ্যক্ষ হওয়ার জন্য গড়ে ১০০ টি করে আবেদনপত্র জমা পড়েছিল। অধ্যক্ষ হওয়ার আবেদনপত্র এতসংখ্যক জমা পড়ায় ইতিবাচক হিসেবই দেখছে কলেজ সার্ভিস কমিশন। অধ্যক্ষ হওয়ার জন্য মূলত স্নাতকোত্তর স্তরে ৫৫ শতাংশ নম্বর, ১৫ বছরের পড়ানোর অভিজ্ঞতা, মোট দশটি গবেষণাপত্র, পিএইচডি এবং অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর হওয়া বাধ্যতামূলক। বাড়ির পাশাপাশি আবেদনকারী প্রার্থীদের গবেষণার জন্য বরাদ্দ হয়েছে ১১০ নম্বর। কমিশনার আধিকারিকদের মতে গবেষণার জন্য এত নম্বর বরাদ্দ হওয়ায় আবেদনকারী প্রার্থীদের গবেষণার উপর ভাল দখল থাকতে হবে। বয়স হতে হবে ৪০ থেকে ৫৫ বছরের মধ্য। অর্থাৎ এতগুলি ক্রাইটেরিয়া পূরণ হলেই একজন প্রার্থী অধ্যক্ষ হওয়ার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

আরও পড়ুন: উত্তপ্ত ত্রিপুরা! পুলিশ কর্মীর পেটে চালানো হল ছুরি, নেপথ্যে কারা?

সে ক্ষেত্রে গত কয়েক বছরের তুলনায় এত সংখ্যক আবেদনপত্র জমা পড়ায় রাজ্যের উচ্চশিক্ষার মানোন্নয়ন হয়েছে বলে দাবি করছেন কমিশনের আধিকারিকদের একাংশ। প্রসঙ্গত গত ১০ বছরে কলেজ সার্ভিস কমিশন ৩২৫টি কলেজে অধ্যক্ষ পদে নিয়োগ করেছে। ২০১১ সালের পর থেকেই রাজ্য সরকার বারবারই দাবি করেছিল কোন কলেজ ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দিয়ে পরিচালিত হবে না।

কলেজে কলেজে অধ্যক্ষ নিয়োগ করায় যে অন্যতম উদ্দেশ্য তাও রাজ্যের উচ্চশিক্ষা দফতর স্পষ্ট করেছিল। কমিশনার আধিকারিকদের আসা এত সংখ্যক আবেদনপত্র জমা পড়ায় এবারে অধ্যক্ষের জন্য সব শূন্যপদ পূরণ হয়ে যাবে। উচ্চ শিক্ষা দফতরের আধিকারিকদের মতে অধ্যক্ষ পদে আবেদনের জন্য এত সংখ্যক আবেদনপত্র জমা পড়া, অধ্যক্ষ হওয়ার আগ্রহ বাড়ার ইঙ্গিত করছে। কলেজ সার্ভিস কমিশন সূত্রে খবর, চলতি সপ্তাহেই আবেদনপত্র জমা করার সময়সীমা শেষ হওয়ার পর স্ক্রুটিনির কাজ শুরু হবে। সে ক্ষেত্রে অগস্ট এর মাঝামাঝি ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শুরু করলে পুজোর আগেই গোটা প্রক্রিয়া শেষ করা সম্ভব হবে বলে আশা করছেন কমিশনের আধিকারিকেরা।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Rachana Majumder
First published:

Tags: Recruitment 2022

পরবর্তী খবর