• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • PATHOLOGICAL TEST CHARGES FIXED BY WEST BENGAL CLINICAL COMMISSION DMG

Pathological Test Rates: কোন প্যাথোলজিক্যাল টেস্টে কত খরচ, 'রেট' বেঁধে দিল রাজ্য, জারি নির্দেশিকা

প্রতীকী ছবি৷

নির্দেশিকায় মোট পাঁচ ধরনের রেডিওলজিক্যাল টেস্ট (Radiological Test) এবং অন্তত ১৫ ধরনের প্যাথোলজিক্যাল পরীক্ষার (Pathological Test) ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে৷

  • Share this:

#কলকাতা: করোনার চিকিৎসায় বহু বেসরকারি হাসপাতাল, নার্সিং হোমের বিরুদ্ধেই লাগামছাড়া খরচের অভিযোগ উঠেছিল৷ বেশ কিছু প্যাথোলজিক্যাল সেন্টারের বিরুদ্ধেও একই অভিযোগ তুলেছিল রোগী এবং তাঁদের পরিজনরা৷ এবার করোনার পরীক্ষার মতোই বেশ কিছু রেডিওলজিক্যাল এবং প্যাথোলজিক্যাল পরীক্ষার খরচের ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দিল রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশন৷ মূলত করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে যে পরীক্ষা নিরীক্ষাগুলির বেশি প্রয়োজন হয়, তার উপরেই জোর দেওয়া হয়েছে৷ তবে করোনা আক্রান্ত ছাড়াও অন্যান্য রোগীদের ক্ষেত্রেও এই বেঁধে দেওয়া হার মেনে চলতে হবে বেসরকারি হাসপাতাল বা প্যাথোলজিক্যাল সেন্টারগুলিকে৷

রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশনের তরফেই এ দিন এই সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে৷ ২০১৭ সালে পাশ হওয়া ক্লিনিক্যাল এস্ট্যাবলিশমেন্ট অ্যাক্ট অনুযায়ী পরীক্ষা নিরীক্ষার এই খরচের হার বেঁধে দেওয়া হয়েছে৷ কোন পরীক্ষার সর্বোচ্চ খরচ কত হওয়া উচিত, তা ঠিক করতে দু'টি বিশেষজ্ঞ কমিটিও গড়া হয়েছিল৷ তাদের থেকে পাওয়া রিপোর্টের ভিত্তিতেই এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে৷

নির্দেশিকায় মোট পাঁচ ধরনের রেডিওলজিক্যাল টেস্ট এবং অন্তত ১৫ ধরনের প্যাথোলজিক্যাল পরীক্ষার ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে৷ নির্দেশিকা অনুযায়ী, চেস্ট এক্স রে (পি এ ভিউ)-এর সর্বোচ্চ খরচ ধার্য করা হয়েছে ৪০০ টাকা৷ আবার সিটি পালমোনারি অ্যাঞ্জিওগ্রাফি পরীক্ষার সর্বোচ্চ রেট রাখা হয়েছে যথাক্রমে ১০ হাজার (৬৪ স্লাইস সিটি স্ক্যান) এবং ১১ হাজার (১২৮ স্লাইস সিটি স্ক্যান) টাকা৷ একই ভাবে সোডিয়াম পরীক্ষার খরচ ৪৫০ টাকা, পটাসিয়াম পরীক্ষার খরচ ৪৫০ টাকা, ব্লাড গ্যাস পরীক্ষার খরচ ১৮০০ টাকা, ডি ডিমার পরীক্ষার সর্বোচ্চ খরচ ২৩০০ টাকায় বেঁধে দিয়েছে স্বাস্থ্য কমিশন৷

নির্দেশিকায় স্পষ্ট বলা হয়েছে, কোনও বেসরকারি হাসপাতাল বা প্যাথোলজিক্যাল পরীক্ষা কেন্দ্রে বর্তমানে যদি এই পরীক্ষাগুলির খরচ এখন নির্ধারিত খরচের থেকে কম হয়, তাহলে এখনই আর সেই খরচগুলি বাড়ানো যাবে না৷ গত বছরও বেশ কিছু শারীরিক পরীক্ষা নিরীক্ষার খরচ একই ভাবে বেঁধে দিয়েছিল স্বাস্থ্য কমিশন৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: