Football World Cup 2018

রাজ্যের কাজে নাক গলাচ্ছে রাজভবন, ক্যাডারের মত আচরণ করছেন রাজ্যপাল : পার্থ চট্টোপাধ্যায়

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jul 05, 2017 10:32 AM IST
রাজ্যের কাজে নাক গলাচ্ছে রাজভবন, ক্যাডারের মত আচরণ করছেন রাজ্যপাল : পার্থ চট্টোপাধ্যায়
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jul 05, 2017 10:32 AM IST

#কলকাতা: রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে নজিরবিহীন সংঘাতে জড়ালেন রাজ্যের দুই সাংবিধানিক প্রধান। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী। মঙ্গলবার দুপুরে মুখ্যমন্ত্রীকে টেলিফোন করেন রাজ্যপাল। উত্তর চব্বিশ পরগনার অশান্তির খবর নিয়ে জানতে চান। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, টেলিফোনে রাজ্যপাল যে ভাষায় কথা বলেছেন তা কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর সাংবিধানিক এক্তিয়ারের মধ্যে পড়ে না। রাজ্যপাল হুমকির স্বরে কথা বলেছেন। এঘটনায় এতটাই আহত ও চূড়ান্ত অপমানিত বোধ করেন মুখ্যমন্ত্রী যে, একবার পদ ছেড়ে দেওয়ার কথাও ভেবেছিলেন।

ফোন এসেছিল রাজভবন থেকে রাজ্যের প্রশাসনিক কেন্দ্র নবান্নে। আর রাজ্যের দুই সাংবিধানিক প্রধানের টেলিফোনিক কথোপকথনেই তৈরি হয়েছে বেনজির বিতর্ক। চরম সংঘাত। রাজ্যপালের বিরুদ্ধে টেলিফোনে হুমকি দেওয়ার মতো গুরুতর অভিযোগ এনেছেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেছেন চরম অপমানিত ও আহত হয়েছেন তিনি।

এই বিষয়ে বুধবার সকালে সাংবাধিক বৈঠক করেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় ৷ তিনি জানান, ‘রাজ্যপালের আচরণ অনভিপ্রেত ৷ মুখ্যমন্ত্রীকে অপমান করেছেন রাজ্যপাল ৷ রাজভবন বিজেপি-র আস্তানা নয় ৷ রাজ্যপাল ক্যাডারের মত আচরণ করছেন ৷’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা রাষ্ট্রপতিকে চিঠি দিয়েছি ৷ রাজনাথ সিংকেও প্রতিলিপি পাঠিয়েছি ৷ মুখ্যমন্ত্রীকে হুমকির প্রতিবাদ করছি ৷ মমতাকে আক্রমণ করলে তৃণমূল চুপ থাকবে না ৷ উসকানি দিচ্ছেন রাজ্যপাল ৷ রাজ্যে অশান্তি তৈরির চেষ্টা চলছে ৷ সত্য ঘটনা চাপা দেওয়া হচ্ছে ৷ রাজ্যপাল কি বিজেপি-র মুখপাত্র? রাজ্যপালের সীমাবদ্ধতা উনি জানেন না ৷ রাজ্যের কাজে নাক গলাচ্ছে রাজভবন ৷ রাজ্যপালের আচরণে বেদনাহত মুখ্যমন্ত্রী ৷’

সোশ্যাল সাইটের বিতর্কিত পোস্ট থেকে রাজ্যে অশান্তির আগুন। অভিযুক্তকে গ্রেফতারের পরও উত্তর চব্বিশ পরগনার একাধিক জায়গায় চলছে উস্কানিমূলক কাজকর্ম। মোকাবিলায় মোতায়েন হয়েছে পুলিশ এবং আধাসামরিক বাহিনী। অভিযোগ কেন্দ্রের শাসক দল রাজ্যের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে নেমেছে। টাকা ছড়িয়ে ফেসবুকে মিথ্যে পোস্ট করা হচ্ছে। হিংসায় ইন্ধন দেওয়া হচ্ছে। দু'পক্ষের কাছেই শান্তি ও সহাবস্থানের আবেদন রেখেছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় ৷

‘আমরা কোনও গোষ্ঠীর সমর্থক নই ৷ আমরা চাই এরাজ্যে শান্তি থাকুক ৷ শান্তি বজায় রাখতে সবাই এগিয়ে আসুন’, সাংবাদিক বৈঠকে বার্তা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ৷

First published: 10:32:24 AM Jul 05, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर