Home /News /kolkata /
Partha Chatterjee:' আমি ষড়যন্ত্রের শিকার', হুইলচেয়ারে হাসপাতালে ঢোকার সময় বিস্ফোরক পার্থ, মন্ত্রিত্ব হারানোর পর এই প্রথম মুখ খুললেন মন্ত্রী

Partha Chatterjee:' আমি ষড়যন্ত্রের শিকার', হুইলচেয়ারে হাসপাতালে ঢোকার সময় বিস্ফোরক পার্থ, মন্ত্রিত্ব হারানোর পর এই প্রথম মুখ খুললেন মন্ত্রী

মন্ত্রীত্ব হারিয়ে বিস্ফোরক পার্থ

  • Share this:

    #কলকাতা: জোকা ইএসআই হাসপাতালে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় পাথ-অর্পিতাকে! হুইলচেয়ারে করে হাসপাতালে ঢোকানোর সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিস্ফোরক মন্ত্রী, মুখের মাস্ক নামিয়ে বললেন, 'আমি ষড়যন্ত্রের শিকার'! মন্ত্রিত্ব থেকে সাসপেন্ড ও দলীয় সমস্ত পদ হারানোর পর এটাই তাঁর প্রথম প্রতিক্রিয়া।

    শুক্রবার সকালে সিজিও কমপ্লেক্স থেকে দুটি আলাদা গাড়িতে জোকার পথে রওনা করা হয় অর্পিতা-পার্থকে। বিশেষ আদালতের নির্দেশ, ৪৮ ঘণ্টা অন্তর পার্থ-অর্পিতার স্বাস্থ্যপরীক্ষা করাতে হবে। সেই নির্দেশ মেনেই তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। মা উড়ালপুলে কিছু ক্ষণের জন্য দাঁড়ায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে যাওয়া গাড়ি। সেখানে সাংবাদিকরা তাঁকে দল থেকে অপসারণ করা নিয়ে নানা প্রশ্ন করেন, কিন্তু মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী! মুখে মাস্ক এঁটে গাড়ির ভিতরে চুপ করে বসে থাকতে দেখা যায় পার্থকে। কিন্তু অবশেষে মৌনতা ভাঙলেন পার্থ, ইএসআই হাসপাতালে ঢোকার সময় বললেন, তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার! বর্তমানে হাসপাতালে পার্থ-অর্পিতার শারীরিক পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

    আরও পড়ুন: জোকা ইএসআইয়ের সামনে কান্নায় ভেঙে পড়লেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়, পড়ে গেলেন নীচে

    অন্যদিকে, জোকা ইএসআই হাসপাতালে পৌঁছনোর পরই নাটকীয় পরিস্থিতি সৃষ্টি করেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। কিছুতেই গাড়ি থেকে নামতে চাইছিলেন না! তাঁকে টেনে হিঁচড়ে নামানো হয় গাড়ি থেকে। এরপরই, জোকার রাস্তায় বসে রীতিমতো হাউহাউ করে কাঁদতে শুরু করেন অর্পিতা। তাঁকে এক প্রকার জোর করেই হাসপাতালে ঢোকানো হয়।

    আরও পড়ুন: তাঁর নামেই ১২-১৫ ফ্ল্যাট, পার্থর সঙ্গে রয়েছে অস্থাবর সম্পত্তি! ইডি জেরায় দাবি অর্পিতার

    প্রসঙ্গত, দুর্নীতি মামলায় গ্রেফতার দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে বৃহস্পতিবার মন্ত্রিসভা থেকে অপসারণ করা হয়। বৃহস্পতিবার তৃণমূলের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির বৈঠকের পর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ''বিপুল পরিমাণ টাকা যা উদ্ধার হয়েছে তার উৎস কী? মোদি বলেছিলেন কালো টাকা উদ্ধার হয়েছে সব। আমি কাউকে ডিফেন্ড করছি না। যদি কেউ অন্যায় করে থাকে৷ অবিচার হয়ে থাকে। তাহলে তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থন করবে না। মমতা বন্দোপাধ্যায় যা বলেছিলেন আজ তা তিনি করে দেখিয়েছেন। অর্থ রোজগারের মেকানিজম হলে দল সমর্থন করবে না।''

    শিল্প, তথ্য প্রযুক্তি, পরিষদীয় দফতর, এই তিন দফতর থেকেই অপসারণ করা হয়েছে ইডি হেফাজতে থাকা পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে৷ মুখ্যমন্ত্রী তথা দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দেন যে পার্থবাবুর কাছে যে দফতরগুলি ছিল, তার দায়িত্বে আপাতত থাকছেন তিনিই৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায়, ''পার্থদার কাছে যে যে দফতরগুলি ছিল, সেগুলি আপাতত আমার কাছে আসছে। হয়ত কিছুই করব না, কিন্তু যেহেতু যতক্ষণ নতুন করে মন্ত্রিসভা গঠন না করছি... তাই পার্থদাকে রেহাই দিয়েছি। এই দফতরগুলো আমার কাছে এসেছে।'' এর পরই নবান্নে যে ঘরে বসতেন পার্থবাবু সেখান থেকে তাঁর নেম প্লেট খুলে ফেলা হয়৷

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published:

    Tags: Partha Chatterjee

    পরবর্তী খবর