corona virus btn
corona virus btn
Loading

আচার্যের ক্ষমতা কমাতে বিধি রাজ্যের ! ৭২ ঘণ্টার মধ্যেই উপাচার্যদের বৈঠকে ডাকলেন শিক্ষা মন্ত্রী

আচার্যের ক্ষমতা কমাতে বিধি রাজ্যের ! ৭২ ঘণ্টার মধ্যেই উপাচার্যদের বৈঠকে ডাকলেন শিক্ষা মন্ত্রী

শুক্রবার সব বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের বৈঠক ডাকলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়

  • Share this:

SOMRAJ BANERJEE

#কলকাতা: শুক্রবার সব বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের বৈঠকে ডাকলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই চলতি সপ্তাহে আচার্য ক্ষমতা কমাতে নয় বিধি জারি করেছে রাজ্য সরকার। ৭২ ঘণ্টা যেতে না যেতেই উচ্চ শিক্ষা সংসদের ডাকা এই বৈঠক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন উপাচার্যরা। বিধি জারি হওয়ার পরপরই বিশ্ববিদ্যালয়গুলির সমাবর্তন হওয়া নিয়ে শুরু হয়েছে সংশয়। ইতিমধ্যেই মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন স্থগিত হয়ে গিয়েছে । যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় ও কলকাতার সমাবর্তন নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে । উচ্চশিক্ষা দফতর সূত্রে খবর, আচার্যের সম্পর্কে নয়া বিধি নিয়ে এই শুক্রবারের বৈঠকে আলোচনা হবে। এছাড়াও, পরীক্ষা ব্যবস্থা সহ বিশ্ববিদ্যালয়গুলির সামগ্রিক সমস্যা নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা বৈঠকে।

মঙ্গলবারই রাজ্য বিধানসভায় উচ্চ শিক্ষা দফতরের তরফে আচার্যের ক্ষমতা কমাতে নয়া বিধি জারি করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ আইনে বিধি প্রণয়ন করা হয়েছে। এই আইনে আচার্যের ক্ষমতা বিস্তারিত করা ছিল না। নয়া বিধিতে বলা হয়েছে:

১) বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে সরাসরি নির্দেশ দিতে পারবেন না আচার্য, উচ্চ শিক্ষাদফতরকে জানিয়ে করতে হবে। ২)রাজ্যপাল চাইলেই উপাচার্যের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন না, সরকারকে জানিয়েই তা করতে হবে। ৩)কোন কমিটিতে আচার্যের মনোনীত সদস্য কে হবেন, তার জন্য শিক্ষা মন্ত্রী তিনজনের নাম দেবেন তার মধ্য থেকে একজনকেই বেছে নিতে হবে আচার্যকে। ৪)কোনও বিশ্ববিদ্যালয়ের এক্সিকিউটিভ কাউন্সিল সিনেট বা সিন্ডিকেটের বৈঠক হলে শিক্ষামন্ত্রী বা উচ্চ শিক্ষা দফতরের অনুমতি নিতে হবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে, আচার্য কে শুধু জানিয়ে দিলেই হবে।

মঙ্গলবারই উচ্চ শিক্ষা দফতর আচার্যের ক্ষমতা নিয়ে নয়া বিধি জারির পরপরই বৃহস্পতিবারের প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন স্থগিত হয়ে গিয়েছে। আগামী ২৪ ডিসেম্বর যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন এবং আগামী ২৪ জানুয়ারি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন হওয়ার কথা। শুক্রবারের বৈঠকে এই দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন এর ভবিষ্যৎ ঠিক হতে পারে বলে উচ্চশিক্ষা দফতর সূত্রে খবর।

নয়া বিধি জারির পর পর আগামী দিনে বিশ্ববিদ্যালয়গুলি কিভাবে তাদের কাজ পরিচালনা করবেন তা নিয়েই শুক্রবার শিক্ষামন্ত্রী উপাচার্যদের বেশ কিছু পরামর্শ দিতে পারেন। সম্প্রতি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় আচার্যের কোর্ট বৈঠকে যোগদান করা, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে শ্রেণীর বৈঠক বাতিল করে দিলেও ওইদিনই আচার্যের কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় গিয়ে হাজির হওয়া, উপাচার্যের ঘর তালা বন্ধ দেখে খুব্ধ হয়ে আচার্যের বেরিয়ে যাওয়া, যাবতীয় বিষয় শুক্রবারের বৈঠকে উঠবে বলেই উচ্চশিক্ষা দফতর সূত্রে খবর। আচার্যের ক্ষমতা কমানো নিয়ে ইতিমধ্যেই বিরোধীরা একাধিক প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন। তারই মধ্যে শুক্রবারের উপাচার্য নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর বৈঠক যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এ বিষয়ে এখনই উপাচার্যরা কোনও কথা বলতে নারাজ।

Published by: Rukmini Mazumder
First published: December 12, 2019, 2:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर