• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • চার বছর পর ঘোষিত পার্কস্ট্রিট ধর্ষণ কাণ্ডের রায়

চার বছর পর ঘোষিত পার্কস্ট্রিট ধর্ষণ কাণ্ডের রায়

প্রায় তিন বছর ধরে বিচার প্রক্রিয়া চলার পর অবশেষে রায়দান হল পার্কস্ট্রিট গণধর্ষণ কাণ্ডের ৷ বৃহস্পতিবার নগর দায়রা আদালত পার্কস্ট্রিট গণধর্ষণ কাণ্ডে ধৃত তিনজনকে দোষী সাব্যস্ত করল ৷ শুক্রবার দুপুর দুটোয় সাজা ঘোষণা করবে আদালত ৷

প্রায় তিন বছর ধরে বিচার প্রক্রিয়া চলার পর অবশেষে রায়দান হল পার্কস্ট্রিট গণধর্ষণ কাণ্ডের ৷ বৃহস্পতিবার নগর দায়রা আদালত পার্কস্ট্রিট গণধর্ষণ কাণ্ডে ধৃত তিনজনকে দোষী সাব্যস্ত করল ৷ শুক্রবার দুপুর দুটোয় সাজা ঘোষণা করবে আদালত ৷

প্রায় তিন বছর ধরে বিচার প্রক্রিয়া চলার পর অবশেষে রায়দান হল পার্কস্ট্রিট গণধর্ষণ কাণ্ডের ৷ বৃহস্পতিবার নগর দায়রা আদালত পার্কস্ট্রিট গণধর্ষণ কাণ্ডে ধৃত তিনজনকে দোষী সাব্যস্ত করল ৷ শুক্রবার দুপুর দুটোয় সাজা ঘোষণা করবে আদালত ৷

  • News18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: প্রায় তিন বছর ধরে বিচার প্রক্রিয়া চলার পর অবশেষে রায়দান হল পার্কস্ট্রিট গণধর্ষণ কাণ্ডের ৷ বৃহস্পতিবার নগর দায়রা আদালত পার্কস্ট্রিট গণধর্ষণ কাণ্ডে ধৃত তিনজনকে দোষী সাব্যস্ত করল ৷ শুক্রবার দুপুর দুটোয় সাজা ঘোষণা করবে আদালত ৷

    পার্কস্ট্রিট ধর্ষণকাণ্ডে অভিযুক্ত পাঁচজনের মধ্যে ধৃত তিনজন ৷ ধৃত রুমান খান, নাসির খান এবং সুমিত বাজাজকে দোষী সাব্যস্ত করল কোর্ট ৷ যদিও পলাতক মূল দুই অভিযুক্ত কাদের খান এবং মহম্মদ আলি খানের বিচার এখনও বাকি ৷ চার্জশিটে ধৃতদের বিরুদ্ধে ৩৭৭ (২জি) ধারায় গণধর্ষণের চার্জ আনা হয়েছে ৷ সুমিত বাজাজ ছাড়া বাকি দু’জন অপরাধী রুমান খান ও নাসির খানের বিরুদ্ধে গণধর্ষণ ছাড়াও ৩২৩, ৫০৬, ১২০বি ধারায় জোর করে আটকে রাখা, মহিলাকে কটূক্তি-মারধর-হুমকি এবং ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়েছে ৷ সংশ্লিষ্ট আইনজীবীর মতে, এই ধারা অনুযায়ী দোষীদের কমপক্ষে ১০ বছর, সর্বোচ্চ ১৪ বছরের জেল হতে পারে ৷

    এদিন বিচারক আদালত কক্ষে আসার পর দুই পক্ষের আইনজীবী এবং অপরাধীরা ছাড়া বাকি সবাইকে বাইরে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেন ৷ এরপর রুদ্ধদ্বার কক্ষে শুরু হয় শুনানি ৷ শুনানি শেষে আইনজীবীরা বিচার কক্ষের বাইরে এসে রায়ের কথা জানান ৷ কলকাতা পুলিশের পেশ করা চার্জশিট, নির্যাতিতার বয়ান, নাইটক্লাবের সিসিটিভি ফুটেজ, ফরেনসিক রিপোর্ট এবং মেডিক্যাল রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করেই রায় দান করেছে আদালত ৷

    21zzrapebig1-630x420

    ৫ ফেব্রুয়ারি ২০১২, পার্কস্ট্রিটের একটি ক্লাব থেকে বেরিয়ে রাতে বাড়ি যাওয়ার সময় একটি বিলাসবহুল গাড়িতে জোর করে তুলে ধর্ষণ করা হয় বেহালার বাসিন্দা সুজেট জর্ডনকে ৷ ভীত সন্ত্রস্ত নির্যাতিতা ঘটনার কয়েকদিন পর সাহস যুগিয়ে পার্কস্ট্রিট থানায় অভিযোগ করেন ৷ কিন্তু পুলিশ প্রথমে তাঁর অভিযোগ নিতে চায়নি ৷ পরে অভিযোগ নথিভুক্ত হলেও তদন্তে আগ্রহ দেখায়নি পুলিশ ৷ তৎকালীন পুলিশ কমিশনার দময়ন্তী সেনের হস্তক্ষেপে এবং নেতৃত্বে তদন্ত সঠিক পথে এগোয় ৷

    ধর্ষণের পর বেশ কিছুদিন কেটে যাওয়ায় মেডিক্যাল পরীক্ষায় ধর্ষণের প্রমাণ খুঁজে বের করা কঠিন ছিল ৷ পুলিশি তদন্ত এগোয় প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান, সিসিটিভি ফুটেজ এবং নির্যাতিতার বয়ানের ভিত্তিতে ৷ অভিযুক্তদের শনাক্ত করার পর গাড়িটিকেও চিহ্নিত করা হয় যাতে নির্যাতিতাকে ধর্ষণ করা হয়েছিল ৷ সেই গাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে মেলে সুজেটের দুল এবং কয়েক গাছা চুল ৷ গাড়িতে ধস্তাধস্তির প্রমাণও মেলে ৷ ধর্ষিতার বক্তব্যের সত্যতা সেদিনই প্রমাণ হয়েছিল ৷

    বিচার প্রক্রিয়া চলাকালীনই এবছরের মার্চ মাসে মারা যান নির্যাতিতা সুজেট জর্ডন৷ বৃহস্পতিবার রায় প্রকাশের সময় তিনি না থাকলেও ছিলেন তাঁর বাবা ও আত্মীয়রা৷ রায় প্রকাশের পর স্বভাবতই খুশি তাঁরা ৷ সুজেটের বাবা পিটার জর্ডন সংবাদ মাধ্যমকে জানান, এবার শান্তি পাবে তাঁর মেয়ের আত্মা ৷ এখন শুধু দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তির প্রার্থনা করছেন বলে জানালেন সুজেটের পরিজনেরা ৷ সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র দেখা গেল দোষী সাব্যস্ত হওয়া রুমান খান, সুমিত বাজাজ ও নাসিরের পরিবারের মধ্যে ৷ সুমিত বাজাজের আইনজীবী কোর্টে প্রশ্ন তোলেন, সুমিত তো ঘটনার সময় গাড়ি চালাচ্ছিল, তাহলে কিভাবে সে ৩৭৭ (২জি) গণধর্ষণের ধারায় অপরাধী হতে পারে? বিচারক উত্তর দেন, ঘটনার সময় উপস্থিত একজনও প্রতিবাদ জানাননি বরং অপরাধ সংঘটনে সাহায্য করেছে, তাই সবাই একই দোষে দোষী ৷ বৃহস্পতিবার রায়দান সম্পূর্ণ হওয়ার পর এখন শুধু অপেক্ষা পার্কস্ট্রীট গণধর্ষণ কাণ্ডে সাজা ঘোষণার ৷

    First published: