New Town Shootout: সাপুরজি শ্যুটআউট-কাণ্ডে চাঞ্চল্যকর মোড়! ফোন করতে SIM BOX ব্যবহার? তদন্তে STF

খুন-ধর্ষণ থেকে মাদকপাচার, অস্ত্র লুট থেকে ডাকাতি...পঞ্জাবে অপরাধ জগতের একের পর এক ঘটনার নেপথ্যে ভুল্লার গ্যাঙ।

খুন-ধর্ষণ থেকে মাদকপাচার, অস্ত্র লুট থেকে ডাকাতি...পঞ্জাবে অপরাধ জগতের একের পর এক ঘটনার নেপথ্যে ভুল্লার গ্যাঙ।

  • Share this:

    #কলকাতাঃ নিউটাউনের অভিজাত সাপুরজির সুখবৃষ্টি আবাসন কাণ্ডে নতুন তথ্য হাতে পেল রাজ্য এসটিএফ।  খুন-ধর্ষণ থেকে মাদকপাচার, অস্ত্র লুট থেকে ডাকাতি...পঞ্জাবে অপরাধ জগতের একের পর এক ঘটনার নেপথ্যে ভুল্লার গ্যাঙ।  অপরাধ জগতের জাল যেভাবে বিস্তার করেছে, প্রযুক্তিগত দিক থেকেও নিজেদের সেভাবেই উন্নত করেছিল পাঞ্জাবের এই গ্যাঙস্টার।  এমনই তথ্য হাতে এসেছে রাজ্য এসটিএফের।  গোয়েন্দা সূত্রে খবর , শুধু মোবাইল ফোন নয়, এই গ্যাঙ তাদের অপরাধমূলক কাজ কর্মে সাহায্য নিয়েছে ‘SIM BOX’-র।

    আন্তর্জাতিক  মাদক পাচারচক্রে পঞ্জাবের ভুল্লার গ্যাঙের সদস্যদের নাম দীর্ঘদিন ধরেই পুলিশের মোস্ট ওয়ান্টেডের তালিকাভুক্ত।  মাদক চক্রীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে SIM BOX ব্যবহার করত জয়পাল সিং ভুল্লার ও জসপ্রিত সিংরা। এই তথ্য সামনে আসতেই পশ্চিমবঙ্গ এসটিএফের কর্তারা মনে করছেন, সাপুরজি কাণ্ডের নেপথ্যেও ব্যবহার হয়েছে SIM BOX। গোয়েন্দাদের দাবি, দুই পুলিশ কর্মী খুনের পর কলকাতায় লুকোনোর পরিকল্পনা করে জয়পাল ও জসপ্রিত।  কলকাতায় গা-ঢাকা দিতে দরকার ছিল এক আশ্রয়স্থলের। বেছে নিয়েছিল নিউটাউনের অভিজাত আবাসন সুখবৃষ্টি। সেখানে ফ্ল্যাট পেতে মধ্যস্থতাকারীদের যেভাবে ফোন করা হয়েছে তাতে ব্যবহার করা হয়ে থাকতে পারে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি।

    বিশেষজ্ঞদের মতে, অপরাধ জগতের সঙ্গে যারা যুক্ত তারা নিজেদের আড়াল রাখতে ফোন কলের ক্ষেত্রে সাহায্য নেয় SIM BOX-র। কারণ হিসেবে বিশেষজ্ঞমহলের ব্যাখ্যা, এই প্রযুক্তিতে একসাথে একাধিক প্রোভাইডারের সিম ব্যবহার করা যায়। কল করার ক্ষেত্রে শুধু মাত্র VOIP gateway অর্থাৎ ইন্টারনেট প্রযুক্তিতে ফোনকল হয়ে থাকে। কোনও ভাবেই GSM gateway কার্যকর হয় না। অর্থাৎ সাধারণ মোবাইল ফোন কল হয় না।SIM BOX ব্যবহারের আরও একটি দিক হল, কোনও আন্তর্জাতিক কলও লোকাল কল হিসেবে দেখাবে। এমনকি দেশের মধ্যে কেউ এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে ফোন করলেও আসল নম্বরের সন্ধান পেতে অসুবিধার মুখে পড়তে হয় তদন্তকারী সংস্থাকে। পঞ্জাবের কোনও একটি সিম, SIM BOX ব্যবহার করে কলকাতায় কাউকে ফোন করা হলে, কলকাতার প্রাপকের কাছে লোকাল অর্থাৎ কলকাতা সার্কেলের নম্বর দেখাবে। এই বিষয়টি ভাবাচ্ছে এসটিএফ কর্তাদের। তাঁরা মনে করছেন, এই প্রযুক্তি ব্যবহার হয়ে থাকতে পারে সাপুরজিকাণ্ডে। কারণ, ফ্ল্যাট পেতে মধ্যস্থতাকারী বা ব্রোকারকে ফোন করা হয়েছিল। সেই কলগুলিতে সাহায্য নেওয়া হতে পারে VOIP gateway -র।

    ইতিমধ্যে পঞ্জাব পুলিশ সূত্রে রাজ্য এসটিএফ কর্তারা জানতে পেরেছে এই ভুল্লার গ্যাঙ অতীতে মাদক পাচার কাণ্ডে ফোন করতে এই প্রযুক্তির সাহায্য নিয়েছে। শুধু তাই নয় অপহরণকাণ্ডেও মুক্তিপণ আদায়ের জন্য SIM BOX ব্যবহারের তথ্য রয়েছে পুলিশের কাছে। তাই এই তথ্য সামনে আসার পর পুরো বিষয় খতিয়ে দেখছেন এসটিএফ কর্তারা।

    AMIT SARKAR

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: