ভোটের দিনের হিংসায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২১

ভোটের দিনের হিংসায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২১
File Photo: News18

ভোটের দিনের হিংসায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২১

  • Share this:

     #কলকাতা: ভোট পেরোলেও হিংসা অব্যাহত। শুধুমাত্র ভোটের দিনের সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে একুশ। গতকাল সংঘর্ষে জখম দুই ব্যক্তির আজ হাসপাতালে মৃত্যু হয়। ভোট পরবর্তী হিংসায় নিহত হয়েছেন তিন জন।

    মাত্র এক দফায় পঞ্চায়েত ভোট। তাতেও রক্তপাত, মৃত্যুমিছিল। রক্তাক্ত ভোটে কোথাও খুন হলেন শাসক দলের কর্মী, কোথাও বিরোধীরা। পঞ্চায়েত ভোটের দিনই সংঘর্ষে আঠারো জনের মৃত্যু হয়। তারিখ বদলাতেই বাড়ল সেই সংখ্যা।

    সোমবার, হাবরার যশুরে তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি কর্মীদের সংঘর্ষে জখম হন সুশীল দাস নামে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী। মঙ্গলবার বারাসত হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়।


    সোমবার আরএসপি কর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষে জখম হন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা জিল্লুর রহমান। মঙ্গলবার মালদহের নার্সিংহোমে তাঁর মৃত্যু হয়।

    তপনের কসবা এলাকায় বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস সংঘর্ষে জখম হন সঞ্জয় সরকার। কলকাতা আনার পথে তাঁর মৃত্যু হয়। ভোট পরবর্তী হিংসায় নিহত আরও কয়েকজন।

    Big Breaking: কাল ৫০০ বুথে আবার ভোট

    অভিযোগ, ভোট লুঠে বাধা দেওয়ায় বিজেপি কর্মীরা প্রণবকে পিটিয়ে খুন করে। এছাড়া পূর্ব মেদিনীপুরে বোমা বাঁধার সময় তা ফেটে গিয়ে নিহত হয় দুই তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী। পশ্চিম মেদিনীপুরে অভিযোগ ওঠে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী স্বপন মহাপাত্রকে পাথর দিয়ে থেঁতলে খুন করেছে বিজেপি কর্মীরা।

    ভোট পরবর্তী অশান্তিতে উত্তপ্ত বাঁকুড়ার বারিকুল থানার শ্যামসুন্দরপুর। সংঘর্ষে জখম দু'দলের পাঁচ জন। ভোটের লাইনে বচসার জেরে বাম-কংগ্রেস সমর্থকদের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

    কাঁকসা এক কেন্দ্রের বিজেপি জেলা পরিষদ প্রার্থী বিকাশ বিশ্বাসের উপর হামলার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বালুরঘাটের ভাটপাড়ায় বিজেপি প্রার্থীর বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। রায়গঞ্জের বোগ্রাম এলাকায় এক ব্যক্তির দেহ উদ্ধার হয়েছে। পরিবারের অভিযোগ, ভোট দিয়ে ফেরার সময় তাঁকে খুন করা হয়েছে।

    First published: