১৭ মে পঞ্চায়েতের ফল ঘোষণা, জানিয়ে দিল কমিশন

১৭ মে পঞ্চায়েতের ফল ঘোষণা, জানিয়ে দিল কমিশন
File Photo

পঞ্চায়েত ভোটে কাটল জোট ৷ অবশেষ পঞ্চায়েত ভোট কবে হবে এই জল্পনার ইতি টানল কলকাতা হাইকোর্টে ৷

  • Share this:

#কলকাতা: পঞ্চায়েত ভোটে কাটল জোট ৷ অবশেষ পঞ্চায়েত ভোট কবে হবে এই জল্পনার ইতি টানল কলকাতা হাইকোর্টে ৷ ভোটের দিন বদলাল না হাইকোর্ট৷ ১৪ মে-ই হতে চলেছে পঞ্চায়েত ভোট ৷ সঙ্গে নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দিল ফল ঘোষণার দিনক্ষণও ৷ কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী, ১৭ মে সকাল ৮টায় শুরু হবে পঞ্চায়েত ভোটের গণনা ৷ সাধারনত প্রতি ব্লকে ১ টি করে হিসাবে ৩৩০ টি গননা কেন্দ্র থাকবে ৷

আরও পড়ুন 

কাটল জট, সোমবারই হচ্ছে পঞ্চায়েত ভোট

অবশেষে সব জল্পনার অবসান ৷ ১৪ মে-তেই হচ্ছে পঞ্চায়েত ভোট ৷ পঞ্চায়েত সংক্রান্ত সমস্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার দায়িত্ব কলকাতা হাইকোর্টের উপরই ছাড়ল কলকাতা হাইকোর্ট ৷ তাই নির্বাচন কমিশনের পূর্ব নির্ধারিত দিন অনুযায়ীই ১৪ মে পঞ্চায়েত ভোটের সম্ভাবনা আরও জোরাল হল ৷

pdf

Loading...

অপরদিকে, ই-মনোনয়ন নিয়ে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের নির্দেশে স্থগিতাদেশ সুপ্রিম কোর্টের। অর্থাৎ ই-মেলে পাঠানো মনোনয়ন বৈধ বলে স্বীকৃতি পাচ্ছে না ৷ ই-মনোনয়নের পাশাপাশি ১৪ মে-তেই পঞ্চায়েত ভোটের নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট ৷

তবে, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী প্রার্থীদের নাম আপাতত বিজ্ঞপ্তিতে রাখা যাবে না ৷ অর্থাৎ নির্বাচন কমিশনের গেজেট নোটিফিকেশনে তাদের নাম দেওয়া যাবে না ৷ এমনটাই নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত ৷ অর্থাৎ মনোনয়ন জমা দেওয়ার পরই রাজ্যের বেশ কয়েকটি জায়গায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছে শাসক দল ৷ , অনুব্রত মণ্ডলের জেলা বীরভূমে তৃণমূলের নিরঙ্কুশ দখল কায়েম হয়ে গিয়েছে। জেলা পরিষদের ৪২টি আসনের মধ্যে ৪১টি-ই তৃণমূলের দখলে যাওয়া নিশ্চিত ছিল ৷ পরে মনোনয়ন প্রত্যাহার করার সময়ে একমাত্র একটি বিজেপি প্রার্থী মনোনয়ন তুলে নেওয়ার আবেদন জানান ৷ এই একই ছবির দেখা মিলেছে দক্ষিণ চব্বিশ পরগণাতেও৷ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী ক্ষেত্র ডায়মন্ডহারবারে পঞ্চায়েতের তিনটি স্তর মিলিয়ে ৯৩ শতাংশেরও বেশি আসন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দখল করা নিশ্চিত করে ফেলে তৃণমূল।

মোট কত আসনে ভোট ?

জেলা পরিষদ-৬২২টি

পঞ্চায়েত সমিতি-৬১৫৮টি

গ্রাম পঞ্চায়েত- ৩১,৮৩৬টি

এছাড়াও নিরাপত্তা নিয়েও যাতে কোনও সমস্যা না হয় ৷ সেই বিষয়টি নিয়েও চলছিল মামলা ৷ কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ বলেছে,২০১৩-র থেকে সন্ত্রাস বেশি হলে যাঁরা নিরাপত্তা রিপোর্ট দিয়েছেন, তাঁরা দায়ী থাকবেন। আর্থিক সাহায্য দিতে হবে আধিকারিকদের।সাহায্য দিতে হবে সরকারি আধিকারিকদের বেতন থেকে।বেতন যথেষ্ট না হলে, সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত হতে পারে।আধিকারিকদের সম্পত্তি-বেতন যথেষ্ট না হলে, অর্থ দেবে রাজ্য।

পঞ্চায়েত ভোটে রাজ্যে ৭১ হাজার ৫০০ সশস্ত্র বাহিনী দেবে রাজ্য সরকার ৷ গত মঙ্গলবার ডিভিশন বেঞ্চকে অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত আদালতে বলেন, রাজ্যে ৭১ হাজার ৫০০ সশস্ত্র বাহিনী আছে ৷ তার মধ্যে ৫০০ ইনস্পেক্টর ৷ এসআই ও এএসআই মিলিয়ে ১০ হাজার ৷ ভিনরাজ্যের ২ হাজার সশস্ত্র পুলিশ থাকবে ৷ ৮০ হাজার সিভিক ভলান্টিয়ার থাকবে ৷ প্রত্যেক বুথে ১ জন করে সশস্ত্র এবং ১ জন করে লাঠিধারী পুলিশ থাকবে ৷

১৪ মে সকাল ৭টা থেকে থেকে বিকেল ৫টি অবধি ভোট হবে ৷

First published: 06:05:39 PM May 10, 2018
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com