• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • কেরলে গিয়ে মৃত্যু বেহালার বাসিন্দা কাজরী বসুর, ব্রেন ডেথের পরেই অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত স্বামীর

কেরলে গিয়ে মৃত্যু বেহালার বাসিন্দা কাজরী বসুর, ব্রেন ডেথের পরেই অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত স্বামীর

স্ত্রীর ব্রেন ডেথের পরেই অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নিতে বিন্দুমাত্র সময় নেননি বেহালার প্রর্ণশ্রীর দেবীপ্রসাদ বসু।

স্ত্রীর ব্রেন ডেথের পরেই অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নিতে বিন্দুমাত্র সময় নেননি বেহালার প্রর্ণশ্রীর দেবীপ্রসাদ বসু।

স্ত্রীর ব্রেন ডেথের পরেই অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নিতে বিন্দুমাত্র সময় নেননি বেহালার প্রর্ণশ্রীর দেবীপ্রসাদ বসু।

  • Share this:

    #কলকাতা: স্ত্রীর ব্রেন ডেথের পরেই অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নিতে বিন্দুমাত্র সময় নেননি বেহালার প্রর্ণশ্রীর দেবীপ্রসাদ বসু। কবর বা সৎকারের মধ্যে দিয়ে নয়, অঙ্গদান করে দুজনের মধ্যে দিয়েই স্ত্রীকে বাঁচিয়ে রাখতে চেয়েছিলেন কাজরীদেবীকে। বসিরহাটের স্বর্ণেন্দু বা গড়িয়ার শোভনা সরকারের দেখানো পথেই এবার অন্য রাজ্যে অঙ্গদান করে নজির গড়লেন এই শহরের দেবীপ্রসাদ বসু।

    বেহালার পর্ণশ্রীর বাসিন্দা কাজরী বসু ও তার স্বামী দেবীপ্রসাদ বসু বেড়াতে গিয়েছিলেন কেরলে। সেখানে গিয়ে আচমকাই অসুস্থ পঞ্চাশ বছরের মহিলা কাজরীদেবী। সব লড়াইয় শেষে গত বৃহস্পতিবার ব্রেন ডেথ হয় কাজরীদেবীর। সময় নষ্ট না করে দেবীপ্রসাদ বসু সিদ্ধান্ত নেন অঙ্গ দানের।

    কথা হয় হাসপাতাল ও কেরল স্বাস্থ্য দফতরের সঙ্গে। কেরালা নেটওয়ার্ক ফর অরগ্যান শেয়ারিং মৃতসঞ্জীবনি সংস্থার মাধ্যমে ঠিক হয় দুটি কিডনি প্রতিস্থাপন করা হবে।কাজরীদেবীর দুটি কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয় ওই হাসপাতালেই ভর্তি থাকা আরও দুই রোগীকে। ভিন রাজ্যের দুই বাসিন্দার শরীরে মাকে বাঁচিয়ে রাখতে পেরে খুশি বসু পরিবার।

    ৫৫ বছর বয়সী ফিলিপ পি এ এবং ৬১ বথর বয়সী মাস্টার টি এমের শরীরে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে কাজরীদেবীর কিডনি। তারা দুজনেই সুস্থ আছে বলে জানান চিকিৎসকেরা।

    First published: