corona virus btn
corona virus btn
Loading

পাহাড়কে পেছনে ফেলে বাজারে দৌড়চ্ছে পঞ্জাবের কমলা

পাহাড়কে পেছনে ফেলে বাজারে দৌড়চ্ছে পঞ্জাবের কমলা

কমলালেবু নয়, পোশাকি নাম কিনো। স্বাদে-গন্ধে বিশ্বসেরা হলেও দামের ভারে নুইয়ে পড়েছে পাহাড়ি কমলালেবু।

  • Share this:

PARTHA PRATIM SARKAR

#কলকাতা: কমলালেবু নয়, পোশাকি নাম কিনো। স্বাদে-গন্ধে বিশ্বসেরা হলেও দামের ভারে নুইয়ে পড়েছে পাহাড়ি কমলালেবু। বিশ্বজোড়া খ্যাতি দার্জিলিংয়ের কমলালেবুর। কিন্তু বছর কয়েক ধরেই ফলন কম। চাহিদা অনুযায়ী বাজারে আসছে না পাহাড়ি লেবু। আগে যেখানে বাংলাদেশে রপ্তানী হত পাহাড়ি লেবু। এখন তা দূর অস্ত। গোটা দেশেই চাহিদা মেটাতে পারছে না পাহাড়ী লেবু।

যা পাহাড় থেকে নেমে আসছে, তা উত্তরের বাজারেই শেষ হয়ে যাচ্ছে। কিছু পরিমাণ কলকাতায় যাচ্ছে। সবমিলিয়ে পাহাড়ি লেবু বেশ সংকটে। শীতের রোদ মাখা দুপুরে মুখে দার্জিলিংয়ের কমলালেবু এখন স্বপ্নই বটে। দামও বেশী। ফলন কম হওয়ায় দাম বেড়েছে। পাইকারী বাজারে প্রতি পিস ৮-১০ টাকা। খোলা বাজারে যা বিক্রি হচ্ছে ১৫-২০ টাকায়। সেখানে পাঞ্জাবের লেবু ৩-৪ টাকায় মিলছে পাইকারী বাজারে। চণ্ডীগড়ের লেবুও বিক্রি হচ্ছে কম দামে। ফলে পাহাড়ী লেবু নিয়ে দুশ্চিন্তায় ফল ব্যবসায়ীরা। ব্যবসায়ীরা চাইছে রাজ্য সরকার পাহাড়ের কমলালেবু চাষীদের পাশে দাঁড়াক। আর্থিক দিক দিয়ে বা চাষের ক্ষেত্রে সহযোগিতায় এগিয়ে আসুক সরকার, দাবী ফল ব্যবসায়ীদের। তাহলে ঘুরে দাঁড়াতে পারবে সিটং, মিরিক সহ পাহাড়ী এলাকার কমলা চাষীরা। লাভের মুখ দেখবে পাহাড়ের অর্থনীতিও। মরসুমি এই ফল চাষের ওপর নির্ভরশীল বহু চাষী। কিন্তু ফলন কমে যাওয়াও তাদের মাথায় হাত।

দুশ্চিন্তায় চাষী ও তাদের পরিবার। নভেম্বরের শেষ দিকে শিলিগুড়ি রেগুলেটেড মার্কেটে নেমে আসে পাহাড়ি লেবু। কিন্তু ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহেও তেমনভাবে ফল নামেনি। চাহিদা বাড়লেও তা মেটাতে পারছে না ব্যবসায়ীরা। আর সেই সুযোগে বাজার ধরছে পাঞ্জাব, চণ্ডীগড়ের কমলালেবু। দার্জিলিং লেবুর মতো স্বাদ বা সুগন্ধ না হলেও সাধারন মানুষেরা বাজার থেকে ভিন রাজ্যের লেবু কিনছে। কিছু লেবু আবার আসে ভুটান থেকেও। পাহাড়ের লেবু বাংলাদেশে রপ্তানী বন্ধ হওয়ায় ভুটানের কমলা যাচ্ছে ওপার বাংলায়।

First published: December 10, 2019, 8:44 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर