• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ‘বেলুড় মঠকে অপবিত্র করেছেন মোদি’, তোপ বিরোধীদের

‘বেলুড় মঠকে অপবিত্র করেছেন মোদি’, তোপ বিরোধীদের

বিরোধীদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী বেলুড় মঠকে রাজনীতির মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করেছেন।

বিরোধীদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী বেলুড় মঠকে রাজনীতির মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করেছেন।

বিরোধীদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী বেলুড় মঠকে রাজনীতির মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করেছেন।

  • Share this:

    #কলকাতা: বেলুড় মঠে যুব দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে CAA। বিরোধীদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী বেলুড় মঠকে রাজনীতির মঞ্চ হিসেবে ব্যবহার করেছেন। রামকৃষ্ণ মঠ প্রতিক্রিয়া দিতে রাজী হয়নি। আক্রমণ তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ৷ মোদিকে কটাক্ষ করে সিপিআইএম নেতা মহম্মদ সেলিমের মন্তব্য,‘বেলুড় মঠ রাজনীতির জায়গা নয় ৷ এতদিন কেন CAA বোঝাতে পারেননি ৷’ কটাক্ষের সুর কংগ্রেস নেতা সোমেন মিত্রের মুখেও ৷

    আচমকাই ঠিক করেন রাজভবনে নয়, শনিবার রাতে থাকবেন বেলুড় মঠে। রবিবার স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন। জাতীয় যুব দিবস। সেই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে CAA প্রসঙ্গ তোলেন প্রধানমন্ত্রী। তাতেই তীব্র প্রতিক্রিয়া বিরোধীদের। একসুর তৃণমূল-বাম-কংগ্রেস। তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘রাজনৈতিক স্বার্থে বেলুড় মঠকে ব্যবহার করলেন মোদি ৷ মানুষের মন বুঝুন মোদি ৷ কেন উত্তেজনা ছড়াচ্ছেন? হিংসা ছাড়া আন্দোলন চাই ৷ ঘোলা জলে অনেকে মাছ ধরছেন ৷ NRC-CAA লাগু হবে না ৷’ মহম্মদ সেলিম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মিথ্যাচার করছেন ৷ মঠকে রাজনীতির মঞ্চ করলেন মোদি ৷ ’ সেলিমের আক্রমণের নিশানা থেকে বাদ যাননি তৃণমূলনেত্রীও ৷ বলেন, ‘মমতা এখন সৌজন্য দেখাচ্ছেন ৷ এদিকে জ্যোতি বসুর দেহে মালা দেননি মমতা ৷’ অধীরের নিশানাতেও মোদি৷‘মোদির বিরুদ্ধে বেলুড় মঠকে অপবিত্র করার অভিযোগ তুললেন সংসদের বিরোধী দলনেতা ৷ স্বামী বিবেকানন্দ প্রতিষ্ঠিত সংগঠনের ঘোষণাপত্রে বলা আছে, ‘রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন দুনিয়াজুড়ে বিস্তৃত একটি রাজনৈতিক, অসাম্প্রদায়িক, আধ্যাত্মিক সংগঠন। শতাধিক বছর ধরে মানবিক, সামাজিক কাজের সঙ্গে যুক্ত।’ কোটি কোটি মানুষের আবেগের সঙ্গে যুক্ত সেই সংগঠনের মঞ্চ থেকে এখনকার সবথেকে বিতর্কিত বিষয়ের উল্লেখ। তাই প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ফায়দা তোলার অভিযোগ। সংগঠনের ঐতিহ্যের প্রকাশ তাঁদের বক্তব্যেও। সফরের শুরু থেকে শেষ।  প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে লাগাতার বিক্ষোভ চলছে।

    Published by:Elina Datta
    First published: