ব্যবসার লোভ দেখিয়ে বকখালিতে নিয়ে গিয়ে প্রৌঢ়াকে ধর্ষণ

ব্যবসার লোভ দেখিয়ে বকখালিতে নিয়ে গিয়ে প্রৌঢ়াকে ধর্ষণ
representative image

পাশবিক, নক্কারজনক

  • Share this:

#কলকাতা: ব্যবসার নাম করে ধর্ষণ প্রৌঢ়াকে! বকখলিতে দামী পাথরের ব্যবসার নাম করে নিয়ে যাওয়া হয় প্রৌঢ়াকে, সেখানেই ৫৮ বছর বয়সের ওই প্রৌঢ়াকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে ধর্ষণের অভিযোগে তপসিয়া থানার পুলিশ গ্রেফতার করেছে অভিযুক্ত ব্যবসায়ীকে। ৪৪ বছর বয়সের ওই ব্যবসায়ী ও তার এক সঙ্গীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে । ধৃত ব্যবসায়ীর সঙ্গী এখনও পলাতক। মঙ্গলবার অভিযুক্তকে শিয়ালদহ আদালতে তোলা হলে তার জামিনের বিরোধিতা করেন সরকারি আইনজীবী। অভিযুক্তকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক।

সূত্রের খবর, প্রৌঢ়া মূল্যবান পাথরের ব্যবসা করেন। সেই সূত্রেই তাঁর সঙ্গে অভিযুক্ত পাথর ব্যবসায়ীর পরিচয় হয়। তারা মিলিতভাবে ব্যবসাও শুরু করেন। বকখালিতে পাথরের ব্যবসার সম্ভাবনা রয়েছে, এই অজুহাতে মহিলাকে বকখখালিতে ডেকে পাঠায় অভিযুক্ত। প্রৌঢ়ার অভিযোগ, হঠাৎই হোটেলের ঘরের ভিতর তাঁর চেয়ে বয়সে ১৪ বছরের ছোট ওই ব্যবসায়ী তাঁকে কুপ্রস্তাব দেয়, ধর্ষণের চেষ্টা করে। প্রতিবাদ করলে অভিযুক্ত ওই ব্যবসায়ী তার এক সঙ্গীকে দিয়ে তার সামনেই প্রৌঢ়ার উপর যৌন নির্যাতন চালায়। ধর্ষণের কথা তিনি যাতে কাউকে না বলেন, সেই জন্য তাঁকে হুমকিও দেওয়া হয়।

প্রৌঢ়ার মেডিক্যাল পরীক্ষা করানো হয়। তিনি আদালতে গোপন জবানবন্দিও দেন। অভিযুক্ত পলাতক সঙ্গীর খোঁজে চলচে পুলিশি তল্লাশি।

First published: March 19, 2020, 1:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर