Home /News /kolkata /
পকেটে নতুন নোট না থাকলেও চলবে, এই জায়গাগুলিতে এখনও নিচ্ছে পুরনো ৫০০ ও ১০০০ নোট

পকেটে নতুন নোট না থাকলেও চলবে, এই জায়গাগুলিতে এখনও নিচ্ছে পুরনো ৫০০ ও ১০০০ নোট

নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর কেটে গিয়েছে এক সপ্তাহ ৷ কিন্তু পরিস্থিতির কোনও উন্নতি হয়নি ৷ ভোগান্তি কমাতে নোটের মেয়াদ বাড়িয়েছে অর্থমন্ত্রক ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর কেটে গিয়েছে এক সপ্তাহ ৷ কিন্তু পরিস্থিতির কোনও উন্নতি হয়নি ৷ ভোগান্তি কমাতে নোটের মেয়াদ বাড়িয়েছে অর্থমন্ত্রক ৷ বিশেষ কিছু ক্ষেত্রে বাতিল হওয়া পুরনো ৫০০ ও হাজার টাকার নোটেই মেটানো যাবে খরচ ৷ ২৪ নভেম্বর মধ্যরাত পর্যন্ত সরকারি হাসপাতাল, পেট্রোল পাম্পে গ্রাহক পুরনো নোটেই দিতে পারবেন দাম ৷ এছাড়া জাতীয় সড়কে টোল ট্যাক্সের সময় সীমাও বাড়িয়ে ২৪ নভেম্বর অবধি কর হয়েছে ৷ রবিবার গভীর রাতে জরুরি বৈঠক শেষে কেন্দ্রীয় অর্থসচিব শক্তিকান্ত দাস একথা ঘোষণা করেন ৷

    শুরুর দিন থেকেই ব্যাঙ্ক আর এটিএমগুলোর বাইরে দীর্ঘ লাইন। আর টাকার জন্য হাহাকার। টাকা বদল করতে গিয়েও সমস্যা। সর্বোচ্চ ৪ হাজার টাকাও বদল করতে পারছিলেন না সাধারণ মানুষ। এটিএমগুলোর অবস্থা আরও খারাপ। বেশির ভাগ জায়গায় নো ক্যাশ। যেখানে টাকা আছে, সেখানে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়ানোর অপেক্ষা। তারপরেও টাকা পাওয়ার নিশ্চয়তা নেই দেশ জুড়ে বেড়েছে ক্ষোভ। সাধারণ মানুষের ভোগান্তি কম করতে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র সরকার ও রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া ৷

    একনজরে দেখে নিন ২৪ নভেম্বর অবধি কোথায় কোথায় চলবে পুরোনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ? - সরকারি হাসপাতাল, ন্যায্য মূল্যের ওষুধ দোকান, পেট্রোল পাম্প -রেলের টিকিট বুকিং কাউন্টার, সরকারি বাস, এয়ারলাইন্স টিকিট কাউন্টারে টিকিট কেনার জন্য পুরোনো নোট ব্যবহার করা যেতে পারে -রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার অধিকৃত কো-অপারেটিভ স্টোর, সরকারি মিল্ক বুথেও পুরোনো টাকা নেওয়া হবে ৷ -LPG গ্যাসের পেমেন্টও মেটানো যাবে পুরনো নোটে

    ৮ নভেম্বর সন্ধেয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিল সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন ৷ একইসঙ্গে তিনি সাধারণ মানুষের ভোগান্তি এড়াতে জরুরি কিছু পরিষেবার ক্ষেত্রে পুরনো নোটকেই চালু রাখার কথা বলেন ৷ প্রথমে জানানো হয়, ১১ নভেম্বর পর্যন্ত হাসপাতাল, বিমানবন্দর, পেট্রোল পাম্প ও রেলের ক্ষেত্রে ১১ নভেম্বর পর্যন্ত পুরনো নোটে ছাড় দেওয়া হবে। এমনকী ন্যায্য মূল্যের ওষুধের দোকানেও পুরনো নোট দিয়েই ওষুধ নিতে পারেন বলে জানানো হয় ৷ পরে সেই সময়সীমা ১৪ নভেম্বর অবধি বর্ধিত করা হয় ৷ কিন্তু দেশে পর্যাপ্ত পরিমাণ নতুন নোট বন্টিত না হওয়ায় এবং নগদের আকালকে মাথায় রেখে সরকারের তরফে পুরনো নোটের সময়সীমা আরও একবার বাড়িয়ে ২৪ নভেম্বর মধ্যরাত পর্যন্ত করা হল ৷ প্রধানমন্ত্রীর নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন পুরসভা ১৪ নভেম্বর অবধি পুরনো টাকাতে কর গ্রহণ করার কথা ঘোষণা করেন ৷

    প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অর্থাৎ সরকারি নির্দেশ সত্ত্বেও গত কয়েকদিনে বিভিন্ন হাসপাতাল, ন্যায্য মূল্যের ওষুধ দোকান পুরনো নোট নিতে অস্বীকার করেছে ৷ মুম্বইয়ের শিবাজিনগর জীবন জ্যোতি হাসপাতাল সরকারি নির্দেশ সত্ত্বেও ৫০০ ও ১০০০-এর পুরনো নোট নিতে অস্বীকার করায় চিকিৎসার অভাবে মৃত্যু হয়েছে জগদীশ শর্মা ও কিরণের সদ্যজাত সন্তান ৷ পুরনো অচল নোট অস্বীকারের এমন উদাহরণ ভুরি ভুরি ৷ তাই পুরনো নোটের সময়সীমা বৃদ্ধি পেলেও তাতে সাধারণ মানুষ কতটা উপকৃত হবেন তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে ৷

    First published:

    Tags: Currency Crunch, Demonitisation, Old Currency, Validity of Old Currency

    পরবর্তী খবর