নুসরতকে ফতোয়া কট্টরপন্থী সংগঠনের, জবাব দিলেন নুসরত

নুসরতকে ফতোয়া কট্টরপন্থী সংগঠনের, জবাব দিলেন নুসরত
  • Share this:

#কলকাতা: পাত্রী সংখ্যালঘু। নুসরত জাহান। কিন্তু, বিয়ে করেছেন জৈন পাত্র, ব্যবসায়ী নিখিল জৈনকে। বিয়ের পরে আবার বোরখা না পরেই প্রকাশ্যে এসেছেন। এমনকি সিঁদুর পরে সংসদে শপথও নিয়েছেন। এতেই ফোস্কা পরেছে উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুর জেলার দেওবন্দের কট্টরপন্থী সংখ্যালঘু সংগঠন দার-উল-উলুম-এর। তারা বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ তথা টলিউড তারকা নুসরতের বিরুদ্ধে রীতিমতো ফতোয়া জারি করেছে। যদিও, এই ফতোয়ার মুখেও নিজের অবস্থানে অনড় থেকেছেন নুসরত।

টুইটারে লিখেছেন,সকলকে নিয়ে যে ভারত, আমি তার প্রতিনিধি। যে ভারত জাতপাত, ধর্মের সমস্ত বাধার উপরে। আমি সব ধর্মকেই সম্মান করি। আমি এখনও এক জন মুসলিম। আমি কী পরব, তা নিয়ে কারও মন্তব্য করা উচিত নয়। বিশ্বাসের স্থান সাজ-পোশাকের উপরে। বিশ্বাসের অর্থ সব ধর্মের অমূল্য শিক্ষাকে বিশ্বাস করা ও তা পালন করা।

তুরস্কে বিয়ে সারার পরেই সংসদে শপথ নেন নুসরত জাহান রুহি জৈন।বোরখার বদলে এ ভাবে সিঁদুর পরে নুসরত প্রকাশ্যে আসতেই রে রে করে ওঠে কট্টরপন্থী সংখ্যালঘু সংগঠন দার-উল-উলুম। তাদের দাবি, ইসলাম বলে একজন মুসলিম শুধুমাত্র একজন মুসলিমকেই বিয়ে করতে পারে। নুসরত ফিল্মের অভিনেতা। সিনেমার লোকেরা ধর্মীয় অনুশাসনের পরোয়া করেন না। যা ইচ্ছে তাই করেন।

এই হুঁশিয়ারির সামনে নিজের অবস্থানে অনড় নুসরত। পাশে পেয়েছেন, অভিনেতা-সাংসদ এবং বন্ধু মিমিকে। নুসরতের পাশে দাঁড়িয়েছেন বিজেপি নেতা-সাংসদরাও. নুসরতের বক্তব্য, কোনও ধর্মের কট্টরপন্থীদের মন্তব্যকে গুরুত্ব দিলে বা প্রতিক্রিয়া জানালে ঘৃণা এবং হিংসাই ছড়ায়। ইতিহাস তার সাক্ষী।

First published: 05:33:58 PM Jul 01, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर