corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাস্তায় আরও কমল বেসরকারি বাস, অফিস টাইমে অসহায় মানুষ হয়রান

রাস্তায় আরও কমল বেসরকারি বাস, অফিস টাইমে অসহায় মানুষ হয়রান

মে মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে বাসের সংখ্যা যেখানে ৬০০ ছুঁয়ে ফেলেছিল সেই সংখ্যা এখন কমে এসে দাঁড়িয়েছে ১৫০তে

  • Share this:

 #কলকাতা: রাস্তায় আরও কমল বেসরকারি বাসের সংখ্যা। একাধিক রুটের বাসের সংখ্যা ক্রমশ কমতে শুরু করে দিয়েছে। বেসরকারি বাস সংগঠনের হিসেব বলছে মে মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে বাসের সংখ্যা যেখানে ৬০০ ছুঁয়ে ফেলেছিল সেই সংখ্যা এখন কমে এসে দাঁড়িয়েছে ১৫০তে। এমনটাই জানাচ্ছে বেঙ্গল বাস সিন্ডিকেট।

জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেট আগেই জানিয়েছিল, তারা বাস চালাবে না, ভাড়া না বাড়লে। বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতির দাবি, তাদেরও বাসের সংখ্যা কমেছে। মালিকরা অনেকেই প্রতিদিন বাস নামাতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন না। এই অবস্থায় সরকারি বাস ভরসা কলকাতায়।সোমবার রাতেই কলকাতায় এসেছে এন বি এস টি সি'র ৯৫ বাস। সব মিলিয়ে শুধু কলকাতা শহরেই ১২০ বাস চালাচ্ছে সরকারি এই পরিবহণ নিগম। দফতর সূত্রে খবর, জেলায় খুব একটা যাত্রী চাপ নেই। তাই এই নিগমের বাস দিয়ে সমস্যা মেটানো যাচ্ছে। দক্ষিণের বিভিন্ন জেলাতেও বাস চালিয়েও কলকাতা শহরে প্রায় ৩০০ বাস চালাচ্ছে এই সরকারি নিগম। এছাড়া সরকারি টিকিটে চলছে বেসরকারি ভলভো বাস। কিন্তু অফিস টাইমে মানুষের অসুবিধা বন্ধ হয়নি। জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেটের সাধারণ সম্পাদক তপন বন্দোপাধ্যায়ের দাবি, সমস্যা সমাধানের এক মাত্র পথ হল ভাড়াটা বাড়িয়ে দেওয়া। সরকার তো বুঝতে পারছে রাস্তায় বেসরকারি বাস কম। মালিকরা আর টানতে পারছেন না। তাও ভাড়া বাড়াচ্ছে না।" তাদের অভিযোগ বাস না চালানোয় প্রশাসন গতকাল রাতে তাদের কিছু বাসকে জোর করে ক্রেন দিয়ে টেনে নিয়ে চলে গেছে।

অন্যদিকে বেঙ্গল বাস সিন্ডিকেট সূত্রে খবর রাস্তায় তাদের বাসের সংখ্যাও কমল। লকডাউন অধ্যায়ে  বাস চলত এই সংগঠনের ৬০০ থেকে ৭০০ খানা। এখন সেই সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে মাত্র ১০০ থেকে ১৫০তে। এই সংগঠন মোট ১৮ রুটে বাস চালায়। তার মধ্যে ৪৫ ও ৩৭ নম্বর রুটের বাসের তেল খরচ না ওঠায় সেগুলো চালানো বন্ধ হয়ে গেছে। বাকি রুটের বাস সংখ্যা কমে গিয়েছে। সংগঠনের সভাপতি স্বর্ণকমল সাহা জানাচ্ছেন, "ভাড়া বাড়ানো ছাড়া অন্য কোনও উপায় নেই। তবে সরকার এখন মানুষের ঘাড়ে বোঝা বাড়াতে চাইছে না। তবে সাধারণ মানুষ নিজে থেকেই বাসের ভাড়া ১০ টাকা করে দিচ্ছেন। তাই বাসের ভাড়া বাড়ানোর বিষয়ে বিবেচনা করা উচিত।" তবে সংগঠনগুলির মধ্যে যে ভাবে বিভিন্ন ইস্যুতে মতবিরোধ তৈরি হচ্ছে তাতে সমস্যা মিটতে সময় লাগবে বলে মনে করা হচ্ছে।

Abir Ghosal

Published by: Debalina Datta
First published: June 30, 2020, 4:00 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर