কোন্নগর কলেজের নিগৃহীত প্রফেসর নিজেই পিটিয়েছিলেন শিক্ষক! উঠে এল ২২ বছরের পুরনো অভিযোগ

২২ বছর আগে নাকি নিজেই একজন শিক্ষককে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক জুতোপেটা করেছিলেন কোন্নগর হীরালাল পাল কলেজের অধ্যাপক সুব্রত চট্টোপাধ্যায়

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 27, 2019 05:29 PM IST
কোন্নগর কলেজের নিগৃহীত প্রফেসর নিজেই পিটিয়েছিলেন শিক্ষক! উঠে এল ২২ বছরের পুরনো অভিযোগ
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 27, 2019 05:29 PM IST

#কলকাতা: একেই বোধহয় বলে ধর্মের কল বাতাসে নড়ে ৷ কোন্নগরের আক্রান্ত অধ্যাপকের বিরুদ্ধে উঠল শিক্ষক নিগ্রহের পাল্টা অভিযোগ ৷ ২২ বছর আগে নাকি নিজেই একজন শিক্ষককে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক জুতোপেটা করেছিলেন কোন্নগর হীরালাল পাল কলেজের অধ্যাপক সুব্রত চট্টোপাধ্যায় ৷ সেই ঘটনায় দায়ের হয় মামলাও ৷ সেসময় আক্রান্ত প্রাথমিক স্কুল শিক্ষক মনসারাম ঘোষ নিজেই এই ঘটনার কথা সামনে এনেছেন ৷

যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অধ্যাপক সুব্রত চট্টোপাধ্যায় ৷ তাঁর সাফাই, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফোন করে দুঃখপ্রকাশ করায় প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে তৃণমূলই এমন কাজ করাচ্ছে ৷ যদিও সুব্রত চট্টোপাধ্যায়ের প্রতিবেশী ও স্থানীয় মানুষেরা শিক্ষক নিগ্রহের অভিযোগকে সম্পূর্ণ সমর্থন করেছেন ৷

ঘটনাটি ১৯৯৭ সালের ৷ অভিযোগ, সেসময় একটি রাজনৈতিক লড়াইকে কেন্দ্র করে এক প্রথমিক শিক্ষকের গায়ে হাত তুলেছিলেন অধ্যাপক সুব্রত চট্টোপাধ্যায় ৷ রীতিমতো রাস্তায় গাড়ি থামিয়ে বেধড়ক মারধর করেন তৎকালীন রামনগর নূটবিহারী পাল চৌধুরী হাইস্কুলের শিক্ষক মনসারাম ঘোষকে ৷ লাথি থেকে জুতো কিছুই বাদ ছিল না ৷ হুগলির বাহিরখণ্ডের নারায়ণপুরে বাসিন্দা সুব্রত চট্টোপাধ্যায় ৷ সেখানেই ঘটেছিল এই কাণ্ড ৷ হরিপাল থানায় অভিযোগ দায়েরও হয় ৷ ১৫ বছর ধরে সেই মামলা চলার পর সুব্রতবাবুর অনুরোধেই মামলা প্রত্যাহার করেন আক্রান্ত শিক্ষক ৷

বুধবারের ঘটনা সংবাদমাধ্যমে উঠে আসার পর ২২ বছর পুরনো সেই ঘটনাকে সামনে এনে সু্ব্রতবাবুর আক্রান্ত হওয়ার ঘটনাটিকে উচিত শাস্তি বলেই ব্যাখা করেছেন নেটিজেনরা ৷ বাইশ বছর পর আজও অসম্মানের সেই স্মৃতি বয়ে বেড়াচ্ছেন সেদিনের আক্রান্ত শিক্ষক মনসারাম ঘোষ। তাও, অধ্যাপকের উপর হামলার নিন্দা করলেন তিনি।  ২২ বছর আগে আক্রান্ত শিক্ষকের অভিযোগকে সমর্থন করছেন বাহিরখণ্ডের নারায়ণপুরের বাসিন্দা, সুব্রত চট্টোপাধ্যায়ের প্রতিবেশীরাও এই অভিযোগকে সত্য বলেই জানাচ্ছেন ৷

কোন্নগর কলেজে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের হাতে নিগৃহীত হন অধ্যাপক সুব্রত চট্টোপাধ্যায় ৷ নিগ্রহের অভিযোগে গ্রেফতার হন ২ জন এবং স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিল তন্ময় দেব প্রামাণিককে শোকজও করা হয়েছে। এই ঘটনার পর সোশ্যাল মিডিয়া থেকে অধ্যাপক মহল, সর্বত্রই ওঠে উষ্মা ও সহানুভূতির ঢেউ ৷ পাশে এসে দাঁড়ান বহু বিশিষ্টজনও ৷ কিন্তু সত্তরোর্ধ্ব বৃদ্ধ শিক্ষক মনসারাম ঘোষের অভিযোগে এখন নতুন করে ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য ৷বিড়ম্বনায় অধ্যাপক সুব্রত চট্টোপাধ্যায়। সবই কর্মফল বলছে সোশ্যাল মিডিয়া৷

First published: 04:45:16 PM Jul 27, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर