• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • জলাধারগুলি থেকে জল ছাড়লে, জনপদে তার কি প্রভাব, এবার আগাম জানা যাবে  

জলাধারগুলি থেকে জল ছাড়লে, জনপদে তার কি প্রভাব, এবার আগাম জানা যাবে  

Photo- Representative

Photo- Representative

  • Share this:

#কলকাতা: রাজ্যে বিশেষ করে দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হলে দায়ী করা হয় দামোদর ভ্যালি করপোরেশনকে। প্রায় প্রতি বছর বর্ষায় ডিভিসি-র জল ছাড়ার জন্যে  বর্ধমান, হাওড়া ও হুগলির বিস্তীর্ণ অংশে বন্যা হয় বলে অভিযোগ করে চলে রাজ্য। এবার সেই পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার আগেই আগাম আঁচ পেতে জল অনুসন্ধানের ওপর জোর দিতে চাইছে ডিভিসি।

সেই কারণেই এবার তারা চালু করতে চলেছে জল অনুসন্ধান প্রকল্প। রাজ্যের অভিযোগ থাকে, বেশি জল ছেড়ে ডোবায় ডিভিসি। ডিভিসি'র বক্তব্য থাকে, মাইথন-পাঞ্চেত বাঁধে জল নিয়ন্ত্রণ সন্তোষজনক থাকে। বিশেষ করে অতিবৃষ্টি হলে এই পরিস্থিতি তৈরি হয়। রাজ্যের অভিযোগ থাকে, তাদের না জানিয়ে জল ছাড়া হয়। ডিভিসি'র বক্তব্য থাকে, কবে কোন বাঁধ থেকে কতটা পরিমাণ জল ছাড়া হবে তার জন্যে একটি কমিটি আছে। সেই কমিটিতে রাজ্যের প্রতিনিধিও থাকেন। রাজ্যের দাবি থাকে, জলাধারগুলির ক্ষমতা বাড়াতে ড্রেজিং করানো হোক। ডিভিসি পাল্টা জানায়, জলধারণ ক্ষমতা বাড়াতে খাল,বিল,নদী ড্রেজিং করা হোক আগে। ফলে প্রতি বছর,  রাজ্যের সাথে ডিভিসি'র তরজা চলতে থাকে।

এই অবস্থায় আগামী দিনে ডিভিসি'র ছাড়া জলের কারণে যাতে সমস্যা না তৈরি হয় তার জন্যে জল অনুসন্ধান প্রকল্প চালু করছে তারা। এর ফলে উপগ্রহ চিত্র সহ অন্যান্য প্রযুক্তির মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করবে সংস্থা। এই বর্ষার সময়ে মাইথন ও পাঞ্চেত  থেকে জল ছাড়া, দামোদর নদীতে জলের অবস্থা বোঝা। জল ছাড়লে জেলাগুলিতে তার প্রভাব কি পড়বে সবটাই এই উপগ্রহ চিত্র মারফত বিশেষ প্রযুক্তিতে ধরা পড়বে৷ আধিকারিকরা সেই সব তথ্য বিশ্লেষণ করে রাজ্যকে জানাতে পারবেন। ফলে রাজ্য আগাম সর্তকতা মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবে। এই আধুনিক ব্যবস্থায় আবহাওয়ার পূর্বাভাসের সাথে সংযোগ থাকবে। ফলে জল অনুসন্ধানের বিষয়ে যথাযথ তথ্য পাওয়া যাবে। ডিভিসি'র এই কাজের জন্যে মঞ্জুর করা হয়েছে প্রায় ৫০ কোটি টাকা। কেন্দ্রের জল সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক এই কাজ দেখবে। উপগ্রহ চিত্র পেতে সাহায্য করবে ইসরো। আগামী চার বছরের মধ্যে এই কাজ শেষ হবে। এর ফলে আশা করা হচ্ছে, বন্যার কারণ নিয়ে তরজা হবে বন্ধ।

ABIR GHOSHAL

Published by:Debalina Datta
First published: