এবছর প্রেসিডেন্সিতে হবে না প্রবেশিকা পরীক্ষা, মেধা যাচাইয়ে দেখা হবে মাধ্যমিকের নম্বরও

এবছর প্রেসিডেন্সিতে হবে না প্রবেশিকা পরীক্ষা, মেধা যাচাইয়ে দেখা হবে মাধ্যমিকের নম্বরও
Photo- File

প্রেসিডেন্সিতে স্নাতক স্তরের ছাত্র ভর্তি নিয়ে কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে তা নিয়ে সকলের নজর ছিল।

  • Share this:

#কলকাতা: অবশেষে সব জল্পনার অবসান। এবছর ছাত্র ভর্তিতে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় কোনও রকম প্রবেশিকা পরীক্ষা নিচ্ছে না। শুধু তাই নয় ছাত্র-ছাত্রীদের আবার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ ও ফর্ম জমা দেওয়ার জন্য উইন্ডো ওপেন করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাডমিশন কমিটি এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এবছর প্রবেশিকা পরীক্ষা না নেওয়ার সিদ্ধান্ত কর্তৃপক্ষের। গত কয়েক বছর ধরেই প্রেসিডেন্সি প্রবেশিকা পরীক্ষা সহ ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় দায়িত্ব জয়েন্ট এন্ট্রান্স বোর্ড পরিচালনা করছে। বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাডমিশন কমিটির বৈঠকে ঠিক হয়েছে জয়েন্ট এন্ট্রান্স বোর্ড প্রেসিডেন্সিতে ভর্তির জন্য যে আগে বিজ্ঞাপন দিয়েছে সেই বিজ্ঞাপনকে বাতিল করে পুনরায় আবার বিজ্ঞপ্তি জারি করবে ভর্তির নির্দেশিকা দিয়ে। সেই বিজ্ঞপ্তিতে বিস্তারিত উল্লেখ করা থাকবে। অন্যদিকে উচ্চমাধ্যমিকের একাধিক বিষয়ের পরীক্ষা না হওয়াতে ভর্তি সংক্রান্ত নিয়মেও বেশকিছু বদল আনছে প্রেসিডেন্সি কর্তৃপক্ষ। বেশিরভাগ বিষয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে উচ্চ মাধ্যমিকের নম্বরের পাশাপাশি মাধ্যমিকের নম্বরকেও গুরুত্ব দেওয়া হবে। মূলত যে যে বিষয়ে পরীক্ষা হয়নি সেই সেই বিষয়ে অনার্স নেওয়ার ক্ষেত্রে সেই বিষয়ের নম্বরের বদলে একাধিক মাপকাঠি বিচার করেই ছাত্র-ছাত্রীদের ভর্তি নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

প্রেসিডেন্সিতে স্নাতক স্তরের ছাত্র ভর্তি নিয়ে কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে তা নিয়ে সকলের নজর ছিল। সম্প্রতি প্রবেশিকা পরীক্ষার দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের ক্ষমতায় থাকা এসএফআই আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল গেটের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ করে প্রবেশিকা পরীক্ষার দাবিতে সরব হয়েছিল ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠন। কিন্তু শেষমেশ বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের   অ্যাডমিশন কমিটির বৈঠক ডেকে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেওয়া হল, এবছর বিশ্ববিদ্যালয় কোনও ভাবেই প্রবেশিকা পরীক্ষা নিচ্ছে না। তবে মেধার নিরিখেই ছাত্রছাত্রীদের যাতে প্রেসিডেন্সিতে ভর্তি করা হয়, তার জন্য একাধিক মাপকাঠি তৈরি করা হয়েছে।


ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, বাংলা, ইংরেজি,  অর্থনীতি, ভূগোলের মতো একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলিতে ভর্তির মাপকাঠি হিসেবে উচ্চমাধ্যমিকের মোট প্রাপ্ত নম্বর এবং তার সঙ্গে মাধ্যমিকের অঙ্কের নম্বর সহ মাধ্যমিকে প্রাপ্ত নম্বরকেও মাপকাঠি হিসেবে রাখা হয়েছে। এক্ষেত্রে এক একটি বিষয়ের ক্ষেত্রে একেক রকম মাপকাঠি করা হয়েছে। উচ্চমাধ্যমিকে এবছর ভুরি ভুরি নম্বর উঠেছে। বিশেষত যে বিষয়গুলির লিখিত পরীক্ষা হয়নি সেই বিষয়গুলিতে আগে হয়ে যাওয়া লিখিত পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বরকে দেওয়ার জন্য প্রচুর নম্বর পেয়েছে ছাত্রছাত্রীরা, এমনই দাবি বিশেষজ্ঞদের। আর তার জন্যই প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এক ধাপ এগিয়ে যে যে বিষয়গুলির পরীক্ষা হয়নি বা যে যে বিষয়গুলির পরীক্ষা হয়েছে প্রত্যেকটি ক্ষেত্রেই মাধ্যমিকের নম্বরকেই গুরুত্ব দিয়েছে। উচ্চমাধ্যমিক বোর্ডের  পাশাপাশি আইসিএসই, সিবিএসই বোর্ডের ক্ষেত্রেও একই ভাবে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে দশম শ্রেণির প্রাপ্ত নম্বরকে। তবে কবে থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু করবে সেই বিষয়ে অবশ্য জয়েন্ট বোর্ড বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানাবে। যদিও এই বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

 Somraj Bandopadhyay

Published by:Debamoy Ghosh
First published: