• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • NEWTOWN SHOOTOUT TWO ABSCONDING CRIMINALS FROM PUNJAB ALSO USE WEST BENGAL FOR ARMS DEAL SB

Newtown Shootout: মাদকের সঙ্গে অস্ত্র পাচারেও বাংলাকে করিডর ভুল্লারদের? গ্রেফতার পঞ্জাবের এক পুলিশ

চাঞ্চল্যকর তথ্য

Newtown Shootout: জয়পালদের পরিচয়পত্র দিয়ে সাহায্য করত সুমিত কুমার। পাকিস্তানের একাধিক গ্যাংয়ের সঙ্গে মাদক-অস্ত্রের ডিল হয়েছিল তাঁদের।

  • Share this:

    #কলকাতা: নিউটাউনকাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য। মাদক ছাড়া অস্ত্রপাচারেও যোগ গ্যাংস্টার জয়পাল সিং ভুল্লারের দলের। সূত্রের খবর, অস্ত্রপাচারের করিডর হিসেবে পশ্চিমবঙ্গকে ব্যবহার করা হত। অস্ত্রপাচারে সড়কপথ ব্যবহার করা হত। তদন্তকারী অফিসাররা জানতে পেরেছেন, আগেও ছদ্মবেশে জয়পাল,যশপ্রীত,ভরত এরাজ্যে এসছিল। অস্ত্র-মাদক পাচারের ডিল করতে বিভিন্ন রাজ্যে যেত তাঁরা। পশ্চিমবঙ্গকে ব্যবহার করে নেপাল, বাংলাদেশ, ভুটানে অস্ত্র পাচার হত। জয়পালদের পরিচয়পত্র দিয়ে সাহায্য করত সুমিত কুমার। পাকিস্তানের একাধিক গ্যাংয়ের সঙ্গে মাদক-অস্ত্রের ডিল হয়েছিল তাঁদের।

    এরই মধ্যে নিউটাউন শ্যুটআউটকাণ্ডে গ্যাংস্টারদের সঙ্গে পুলিশ-যোগের তত্ত্ব উঠে এসেছে। সেই সূত্রেই আটক করা হয়েছে পঞ্জাব পুলিশ কনস্টেবল অমরজিৎ সিংকে। ধৃত সুমিত কুমার ও ভরত কুমারের সঙ্গে বন্ধুত্ব ছিল অমরজিতের। ভরত কুমারের কাছ থেকেই মিলেছে অমরজিতের আইডি কার্ড। পুলিশের এই পরিচয়পত্র ব্যবহার করেই একের পর এক টোলপ্লাজায় ছাড় পেয়েছিল গ্যাংস্টাররা। গাড়িতে তল্লাশি এড়াতেই আইডি কার্ডের ছক, দাবি পুলিশের।

    অপরদিকে, ২ গ্যাংস্টারের দেহে একাধিক গুলি মিলেছে। জয়পাল সিং ভুল্লারের দেহে ৬টি গুলি লাগেএবং জসপ্রীত সিং-এর দেহে ৪টি গুলি পাওয়া গেছে। গুলিগুলি দেহের মধ্যে আটকে ছিল। ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে এই তথ্য মিলেছে।

    অন্যদিকে সিআইডি-র তদন্তে উঠে এসেছে, নিউটাউনের ওই ফ্ল্যাটের ভিতরে ভুল্লার ও যশপ্রীত ছাড়াও আরও একজনের আঙুলের ছাপ পাওয়া গিয়েছে৷ অর্থাৎ সেখানে ওই দুই গ্যাংস্টার ছাড়াও তৃতীয় কোনও ব্যক্তির যাতায়াত ছিল৷ এই তৃতীয় ব্যক্তি ভরত কুমার ছিল কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ সেই সূত্রেই ভরত কুমারের আঙুলের ছাপের সঙ্গে ফ্ল্যাট থেকে পাওয়া তৃতীয় ব্যক্তির আঙুলের ছাপ মিলিয়ে দেখা হচ্ছে৷

    ইতিমধ্যেই নিউ টাউন কাণ্ডে আসল সুমিত কুমারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ পঞ্জাব পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, হরিয়ানা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ প্রসঙ্গত এই সুমিত কুমারের নাম ভাঁড়িয়েই নিউ টাউনের সুখবৃষ্টি আবাসনে ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে দুই গ্যাংস্টার জয়পাল এবং জশপ্রীতকে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছিল ভরত কুমার৷ নিউ টাউনে এনকাউন্টারের পরে ভরত কুমারকেও পঞ্জাব থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ৷

    Published by:Suman Biswas
    First published: