• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • ছবিতে ‘শৃঙ্গ জয়’ বিতর্কে নেপাল সরকারের হস্তক্ষেপ

ছবিতে ‘শৃঙ্গ জয়’ বিতর্কে নেপাল সরকারের হস্তক্ষেপ

এভারেস্ট সামিট ছবি বিতর্কে অবশেষে হস্তক্ষেপ করল নেপাল সরকারের পর্যটন দফতর ৷ এভারেস্টজয়ী বাঙালি সত্যরূপ সিদ্ধান্তের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করল নেপাল সরকারের পর্যটন দফতর ৷

এভারেস্ট সামিট ছবি বিতর্কে অবশেষে হস্তক্ষেপ করল নেপাল সরকারের পর্যটন দফতর ৷ এভারেস্টজয়ী বাঙালি সত্যরূপ সিদ্ধান্তের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করল নেপাল সরকারের পর্যটন দফতর ৷

এভারেস্ট সামিট ছবি বিতর্কে অবশেষে হস্তক্ষেপ করল নেপাল সরকারের পর্যটন দফতর ৷ এভারেস্টজয়ী বাঙালি সত্যরূপ সিদ্ধান্তের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করল নেপাল সরকারের পর্যটন দফতর ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: এভারেস্ট সামিট ছবি বিতর্কে অবশেষে হস্তক্ষেপ করল নেপাল সরকারের পর্যটন দফতর ৷ এভারেস্টজয়ী বাঙালি সত্যরূপ সিদ্ধান্তের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করল নেপাল সরকারের পর্যটন দফতর ৷ শুধু নেপাল সরকারই নয় লালবাজার সাইবার সেলও শুরু করেছে তদন্ত ৷

    পর্বতারোহী বাঙালি সত্যরূপ সিদ্ধান্ত অভিযোগ করেন, তাঁর ছবি ব্যবহার করে নিজেদের এভারেস্ট জয়ী বলে দাবি করেছিলেন মহারাষ্ট্রের এক দম্পতি ৷ ফটোশপ ব্যবহার করে সত্যরূপ সিদ্ধান্তের ছবিকে নিজের ছবি বলে দাবি তুলে ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন ওই দম্পতি ৷

    গত ২৯ জুন সত্যরূপ সিদ্ধান্ত অভিযোগ করেন, দীনেশ ও তারকেশ্বরী রাঠৌর নামে মহারাষ্ট্রের এক দম্পতি তাঁর ছবি ব্যবহার করে নিজেদের এভারেস্ট শৃঙ্গজয়ী দাবি করে ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন ৷ লালবাজারের সাইবার ক্রাইমে অভিযোগ দায়ের করা ছাড়াও নেপাল সরকারের পর্যটন দফতরকেও বিষয়টি জানান এই বাঙালি পর্বতারোহী ৷

    নেপাল সরকারের পর্যটন দফতর পর্বতারোহনে যুক্ত সংস্থার থেকে এই বিষয়ে রিপোর্ট তলব করেছেন ৷ একই সঙ্গে নেপাল ট্যুরিজম বোর্ড পর্বতারোহী সত্যরূপ সিদ্ধান্তকে তাঁর পর্বতারোহণের ছবি ইমেলের মাধ্যমে তাদের পাঠাতে বলেন ৷ একইসঙ্গে ফেসবুকে মহারাষ্ট্রের ওই দম্পতির ব্যবহার করা ছবিও মেল করতে বলা হয়েছে ৷ পর্বতারোহী সত্যরূপ সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন, নির্দেশমতো তিনি সমস্ত ছবি নেপাল সরকারের পর্যটন দফতরকে পাঠিয়ে দিয়েছেন ৷ এর আগেই পর্বতারোহী দম্পতির ছবি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে নেপাল পর্যটন দফতর ৷

    IMG-20160629-WA0001

    কোনওরকম অভিযান ছাড়াই ফটোশপের কেরামতিতে এভারেস্ট শৃঙ্গজয়ের ‘নজির’ গড়েছেন পুণের বাসিন্দা দীনেশ ও তারকেশ্বরী রাঠৌর ৷ এমনটাই অভিযোগ করেছিলেন বাঙালি এভারেস্ট জয়ী সত্যরূপ সিদ্ধান্ত। বাঙালি অভিযাত্রী সত্যরূপের অভিযোগ, তাঁর এভারেষ্ট জয়ের ছবিকে ফটোশপের কারিগরীতে নিজেদের ছবি দেখিয়ে ফেসবুকে নিজেদের এভারেস্ট জয়ী হিসেবে দাবি করেছেন পুণের বাসিন্দা দীনেশ ও তারকেশ্বরী রাঠৌর ৷

    দীনেশ ও তারকেশ্বরী রাঠৌরের দাবি, ২৩ মে তাঁরা মাকালু অ্যাডভেঞ্চার এজেন্সির মাধ্যমে সামিট শেষ করেন। তার ভিত্তিতে নেপাল সরকার তাঁদের সার্টিফিকেট দেয় বলেও জানিয়েছেন তাঁরা। অন্যদিকে, চলতি বছরের ২১ মে এভারেস্ট সামিট করেছিলেন সত্যরূপ সিদ্ধান্ত ৷

    এই অভিযোগের সত্যতা জানতে পেশায় মহারাষ্ট্র পুলিশের কনস্টেবল দীনেশ ও তারকেশ্বরী রাঠৌরের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে তাঁরা কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে চাননি।

    ফেল টাকা, চড়ো এভারেস্ট’ ৷ এভারেস্ট অভিযানের বাড়বাড়ন্ত দেখে অভিমানী পর্বতারোহী বিশেষজ্ঞরা এরকমই মত প্রকাশ করেছিলেন ৷ কারণ মাত্র আট লক্ষ টাকা খরচ করলেই মিলছিল এভারেস্ট অভিযানের ছাড়পত্র ৷ তাতে কৌলিন্যের সেই শৃঙ্গ জয় এখন অনেকটাই সহজ হয়ে গিয়েছে বলে মত বিশেষজ্ঞদের। এর ফলে সঠিক ট্রেনিং ছাড়াই বহু শখের অভিযাত্রী এভারেস্ট অভিযান করতে গিয়ে বিপদে পড়ছিলেন ৷ এবার ফটোশপে শৃঙ্গ জয়ের অভিযোগ সত্যি হলে বলতে হবে শৃঙ্গজয়ের নতুন রাস্তা পাওয়া গেল ৷ যা রীতিমতো ‘সস্তায় পুষ্টিকর ৷’

    মাউন্টেন লাভারদের আশঙ্কা, এবার কোনও শারীরিক ও মানসিক পরিশ্রম ছাড়াই ফটোশপের কারিকুরিতে তৈরি এভারেস্ট জয়ের রুটম্যাপ হাতে পেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় এভারেস্ট জয়ে ঝাঁপিয়ে পড়বে লাখ লাখ ‘পর্বতারোহী’ ৷

    First published: