Home /News /kolkata /
Arpita Mukherjees New Flat: বেলঘরিয়ার আবাসনের প্রতিবেশীরা হতবাক! টাকা যেন উড়ছে অর্পিতার ফ্ল্যাটে

Arpita Mukherjees New Flat: বেলঘরিয়ার আবাসনের প্রতিবেশীরা হতবাক! টাকা যেন উড়ছে অর্পিতার ফ্ল্যাটে

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

Arpita Mukherjees New Flat: স্থানীয় প্রতিবেশীদের সূত্রে খবর, বেলঘরিয়ার এই ফ্ল্যাটে নিয়মিত যাতায়াত ছিল অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের। সাত দিন আগেও তিনি এসেছিলেন।

  • Share this:

#কলকাতা: থরে থরে সাজানো নোটের বাণ্ডিল। স্পষ্ট করে এখনও জানা যায়নি অর্পিতার বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাট থেকে কত টাকা উদ্ধার হয়েছে, তবে বোঝা গিয়েছে এখানেও টাকা অঙ্ক কিছু কম নয়। কারণ, স্থানীয় স্টেট ব্যাঙ্ক থেকে ইতিমধ্যে এসেছে পাঁচটি টাকা গোনার মেশিন। ফলে অনেক নগদ যে উদ্ধার হতে পারে, সে কথা বলাই বাহুল্য। আর এই সব কাণ্ড দেখেই অবাক প্রতিবেশীরা।

স্থানীয় প্রতিবেশীদের সূত্রে খবর, বেলঘরিয়ার এই ফ্ল্যাটে নিয়মিত যাতায়াত ছিল অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের। সাত দিন আগেও তিনি এসেছিলেন। জানা গিয়েছে, এই আবাসনে মোট দুটি আলাদা ফ্ল্যাট রয়েছে অর্পিতার। একটি ব্লক ৫-এ, একটি ব্লক-২-এ। ব্লক ৫-এর (৮-এ) ফ্ল্যাটে আপাতত তল্লাশি চালাচ্ছে ইডি। এই ফ্ল্যাটের আয়তন প্রায় ১৫০০ বর্গফুট। অন্য ফ্ল্যাটটি আয়তনে ছোট, ১৩৮০ বর্গফুট। এখানে গড়ে ফ্ল্যাটের দাম প্রায় ৮০ লক্ষ টাকা। সব মিলিয়ে দুটি ফ্ল্যাটের আইননানুগ মালিকানা পেতে হয়ত ২ কোটির কাছাকাছি খরচ করতে হয়েছিল অর্পিতাকে। কিন্তু শোনা যায়, সেই অর্পিতাই দিতেন না আবাসনের রক্ষণাবেক্ষণের টাকা।

আরও পড়ুন: '৩৮ তৃণমূল বিধায়ক যোগাযোগ রাখছে, ২১ জন সরাসরি আমার সঙ্গে', পার্থ পর্বেই বিস্ফোরণ মিঠুনের

অন্য আবাসিকরা জানিয়েছএন, ব্লক ৫-এ ফ্ল্যাটে নিয়মিত আসতেন অর্পিতা। আর অন্য ব্লকের ফ্ল্যাটটিকে গেস্ট হাউজ করার পরিকল্পনা ছিল তাঁর। কিন্তু আবাসনের মধ্যে গেস্ট হাউজ তৈরির বিষয়টিতে অনুমতি ছিল না বাকি আবাসিকদের। সেই পরিকল্পনা তাই বাস্তবায়িত হয়নি। প্রতিবেশী নিবেদিতা আচার্য জানিয়েছেন, এ ভাবে এখানে টাকার পাহাড় তৈরি হয়েছে, সে কথা আন্দাজও করতে পারেননি তাঁরা।

আরও পড়ুন: এবার নাম জড়াল ব্রাত্যর! 'দাদা আমাদের প্রাইমারি চাকরি দিয়েছে', TMC নেতার ভিডিও ভাইরাল

নিতান্ত ছিমছাম এলাকায় অপরাধও তেমন নেই, তার মধ্যেই অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে এই বিপুল পরিমাণ টাকা উদ্ধার সবার নজরে এনে ফেলেছে এই আবাসনকে। তাই এক কথায় হতবাক হয়ে রয়েছেন এঁরা। সকাল থেকেই পুলিশ, কেন্দ্রীয় বাহিনী ও ইডি অফিসারদের আনাগোনা। শেষ কয়েকদিন ধরে সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরার আলো দেখতে দেখতে কেমন যেন অচেনা হয়ে দাঁড়িয়েছে এই বিলাসবহুল ফ্ল্যাটের পরিবেশ। আর এখন সেই নাটকের শেষ অঙ্কের পালা যেন চলছে। উদ্ধার হওয়া টাকার অঙ্ক কী ছাড়িয়ে যাবে টালিগঞ্জে পাওয়া অর্থকেও, সেদিকেই এখন নজর।

অভিজিৎ চন্দ

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Arpita Mukherjee

পরবর্তী খবর