High Court On Narada Scam : নাটকীয় পালাবদল! ফিরহাদ-মদন-সুব্রত-শোভনদের জামিন খারিজ হাইকোর্টে!

আজ মুক্তি নয় ফিরহাদদের

নারদ মামলায় (Narada Scam) কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই এর হাতে চার নেতা মন্ত্রীর গ্রেফতারি নিয়ে তুঙ্গে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। এদিন সন্ধ্যায় সোমবার সকালে সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হাওয়া চার নেতারই জামিন মঞ্জুর করে সিবিআই-এর বিশেষ আদালত। কিন্তু এরপরেই এই মামলার শুনানি ভিনরাজ্যে নিয়ে যাওয়ার আর্জি জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় সিবিআই।

  • Share this:

    #কলকাতা : দিনভরের নাটকের যবনিকা পতন হাইকোর্টের (Kolkata Highcourt) রায়ে। নিম্ন আদালতের জামিনের সিদ্ধান্তে স্থগিতাদেশ দিল হাইকোর্ট। চার নেতা মন্ত্রীরই জেল হেফাজতের  নির্দেশ দিল আদালত। এই মামলায় আগামী শুনানি বুধবার। তবে তার আগে জামিনের আবেদন নিয়ে চার হেভিওয়েট নেতা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন কিনা সেদিকে নজর থাকবে রাজনৈতিক মহলের।

    নারদ মামলায় (Narada Scam) কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই এর হাতে চার নেতা মন্ত্রীর গ্রেফতারি নিয়ে শোরগোল পরে যায় রাজ্য রাজনীতিতে। এদিন সন্ধ্যায় সোমবার সকালে সিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার হওয়া চার নেতারই জামিন মঞ্জুর করে সিবিআই-এর বিশেষ আদালত। কিন্তু এরপরেই এই মামলার শুনানি ভিনরাজ্যে নিয়ে যাওয়ার আর্জি জানিয়ে ও নিম্ন আদালতের রায়ের বিরোধিতা করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় সিবিআই। প্রধান বিচারপতির এজলাসে ভার্চুয়াল শুনানি হয় মামলার। অন্যদিকে জামিনের অর্ডার মিললেও ছাড়া হয়নি ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়দের। এই নিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে তৃণমূল। বেআইনিভাবে আটক রাখা হয়েছে বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দেন ফিরহাদ কন্যা সাব্বা হাকিম।

    এদিন রাত ৮ টা ১৫ থেকে ৯টা পর্যন্ত হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির এজলাসে চলে শুনানি। মামলায় সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা সওয়াল করেন সিবিআইয়ের তরফে। অন্যদিকে তৃণমূলের হয়ে সওয়াল করেন আইনজীবী অনিন্দ্য কিশোর রাউত। একদিকে সিবিআই এর তরফে এদিনের নিজাম প্যালেসে তৃণমূলের বিক্ষোভের উদাহরণ দেখিয়ে এই মামলাটি ভিন রাজ্যে শুনানির জন্য নিয়ে যাওয়ার দাবি তোলা হয়। অন্যদিকে তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয় হাইকোর্টে আর্জি জানানোর সঙ্গে চার নেতা-মন্ত্রীকে আটকে রাখার কোনও যৌক্তিকতা নেই বলে।

    ফিরহাদদের আইনজীবী অনিন্দ্য রাউত অভিযোগ করেন, বিশেষ সিবিআই আদালত ৫০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন মঞ্জুর করা সত্ত্বেও ফিরহাদদের মুক্তি না দিয়ে আদালত অবমাননা করেছে সিবিআই। ফিরহাদের মেয়ে প্রিয়দর্শিনী নেটমাধ্যমে অভিযোগ করেন, তাঁর বাবাকে এখনও ছাড়া হয়নি। তাঁদের দাবি সিবিআই বেআইনিভাবে ফিরহাদ-সুব্রত-মদন-শোভনদের আটকে রেখেছে।অন্যদিকে, সিবিআই জানায় হাইকোর্টে শুনানি পর্ব শেষে প্রধান বিচারপতির নির্দেশ না মেলা পর্যন্ত ধৃতদের মুক্তি দেওয়া হবে না।

    প্রসঙ্গত, এদিন টানটান উত্তেজনার পর ব্যাঙ্কশাল আদালতের রায়ে জামিন পান ফিরহাদ-সুব্রত-শোভন-মদন। তাঁদের জামিনের আর্জি মঞ্জুর করে নগর দায়রা আদালতের বিশেষ আদালত। এদিন বিকেলে শেষ হয় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা (সিবিআই) হাতে গ্রেফতার হওয়া নেতা-মন্ত্রীদের ভার্চুয়াল শুনানি। বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ শুনানি শেষ হয়। এরপর রায়দান কিছুক্ষণের জন্য স্থগিত রাখে আদালত। এরপরেই আদালতের রায়ে জানানো হয়, চার নেতা-মন্ত্রী প্রত্যেকের জামিনের আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে। তবে সিবিআই সূত্রে জানানো হয় নিম্ন আদালতে এই চার নেতা মন্ত্রীদের জামিনের রায়ের বিরুদ্ধে অবিলম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হবে তারা। সেইমতো হাইকোর্টের শুনানি শুরু হয় রাত ৮ টা ১৫ মিনিটে। সেই রায়েই সম্পূর্ণ বদলে যায় প্রেক্ষাপট। জামিন খারিজ করে চার নেতাকেই জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেয় আদালত।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: