• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • সরকারী কর্মীদের জন্য সুখবর, জানুয়ারি থেকেই মিলবে বাড়তি বেতন, জারি অর্থদফতরের বিজ্ঞপ্তি

সরকারী কর্মীদের জন্য সুখবর, জানুয়ারি থেকেই মিলবে বাড়তি বেতন, জারি অর্থদফতরের বিজ্ঞপ্তি

এর ফলে মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার হার ১২৫ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১৩৩ শতাংশ হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

এর ফলে মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার হার ১২৫ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১৩৩ শতাংশ হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

এর ফলে মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার হার ১২৫ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১৩৩ শতাংশ হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

  • Share this:

#কলকাতা: অবশেষে বহু প্রতীক্ষিত মহার্ঘ ভাতা পেতে চলেছেন সরকারি কর্মচারীরা ৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণা মতোই এদিন নবান্নের বিজ্ঞপ্তিতে নিশ্চিত জানুয়ারি থেকেই সরকারি কর্মীদের পকেটে আসছে বাড়তি টাকা ৷ সোমবার অর্থদফতরের তরফ থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে ২০২১ সালের জানুয়ারি মাস থেকে ৩ শতাংশ হারে মহার্ঘভাতা দেওয়ার কথা জানানো হয় ৷ এর ফলে উপকৃত হবেন রাজ্যের সমস্ত সরকারি কর্মচারী ও পেনশনভোগীরা ৷ ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ মেনে রাজ্য সরকার আগামী মাস থেকে সব স্তরের সরকারি কর্মচারী ও পেনশনভোগীদের আরও এক কিস্তি মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এদিন নবান্নে অর্থ দফতর থেকে এই সংক্রান্ত বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করা বলা হয়, যেসব কর্মীর মূল বেতন ২ লাখ এক হাজার টাকার মধ্যে তারা সবাই আগামী পয়লা জানুয়ারি থেকে আরও তিন শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা পাবেন। এর ফলে মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার হার ১২৫ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ১৩৩ শতাংশ হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়াও আগামী মাস থেকে ন্যূনতম মজুরি আইনে বিভিন্ন সরকারি সংস্থায় কর্মরত শ্রমিকদের দৈনিক মজুরি সতেরো টাকা করে বৃদ্ধি করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

৩ ডিসেম্বর নবান্নে কর্মী সংগঠনের বৈঠকে  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেন,  জানুয়ারি মাসেই ডিএ পাবেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। ডিএ দেওয়া হবে ৩ শতাংশ হারে। এর জন্য সরকারের অতিরিক্ত ২২০০ কোটি টাকা খরচ হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী ৷ ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ কার্যকর হওয়ার পরেও ডিএ-এর বৈষম্য কাটেনি ৷ প্রায় এই মুহূর্তে রাজ্যের ২১ শতাংশ ডিএ বকেয়া রয়েছে বলে মত সরকারি কর্মীদের ৷ ফলে এই ঘোষণা সরকারী কর্মীদের মতে নাকের বদলে নরুনের মতো ৷

Abir Ghosal

Published by:Elina Datta
First published: