পর্বতারোহী রাজীব ভট্টাচার্যের মৃত্যু নিয়ে রহস্য বাড়ল

পর্বতারোহী রাজীব ভট্টাচার্যের মৃত্যু নিয়ে রহস্য বাড়ল

পর্বতারোহী রাজীব ভট্টাচার্যের মৃত্যু নিয়ে দানা বাঁধছে রহস্য। বৃহস্পতিবার নেপালের ধৌলিগিরি অভিযান সেরে বেসক্যাম্পে ফেরার পথে মৃত্যু হয় রাজীবের। অভিযান সেরে ফেরার পথে কীভাবে তাঁর মৃত্যু হল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। উঠে আসছে একাধিক তথ্যও। এদিকে, খারাপ আবহাওয়ার জন্য এখনও রাজীবের দেহ উদ্ধার সম্ভব হয়নি।

  • Share this:

#কলকাতা: পর্বতারোহী রাজীব ভট্টাচার্যের মৃত্যু নিয়ে দানা বাঁধছে রহস্য। বৃহস্পতিবার নেপালের ধৌলিগিরি অভিযান সেরে বেসক্যাম্পে ফেরার পথে মৃত্যু হয় রাজীবের। অভিযান সেরে ফেরার পথে কীভাবে তাঁর মৃত্যু হল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। উঠে আসছে একাধিক তথ্যও। এদিকে, খারাপ আবহাওয়ার জন্য এখনও রাজীবের দেহ উদ্ধার সম্ভব হয়নি।

১১ই এপ্রিল পুণের পর্বতারোহী দলের সঙ্গে নেপালের ধৌলাগিরি অভিযান শুরু করেন রাজীব ভট্টাচার্য। জানা যায়, ১৯ মে অভিযান সেরে বেসক্যাম্পে ফেরার সময় মৃত্যু হয় তাঁর। যদিও পরে পুনের অভিযাত্রী দল জানান, সামিটে যাননি রাজীব। যাওয়ার পথেই তাঁর মৃত্যু হয়। বেসক্যাম্পে ফেরার পথে তাঁরা রাজীবকে দেখতে পান। বেসক্যাম্পে ফিরে তাঁরা মৃত্যু সংবাদ দেন। রাজীবের মৃত্যু ঘিরে রহস্য বেড়ে ওঠে।

সহযাত্রীদের দাবি, ১৯ মে সামিট সেরে বেসক্যাম্পে ফিরছিলেন রাজীব ৷ রাজীবের শরীর খারাপ থাকায় অভিযানে বেরোনোর আগে ইঞ্জেকশন নেন ৷ ফেরার পথে তাঁর অক্সিজেন ফুরিয়ে যায়৷ অক্সিজেনের অভাবেই মৃত্যু হয় রাজীবের ৷

অন্যদিকে,  পুণে অভিযাত্রী দলের দাবি, ১৯ মে নেপালের ধৌলাগিরি অভিযানে রওনা হন পুনের অভিযাত্রী দল ৷ তখনও রাজীব অভিযানে রওনা হননি৷ অভিযান সেরে ফেরার পথে তাঁরা রাজীবকে দেখতে পান ৷ তখনও তাঁর দেহে প্রাণ ছিল ৷ সাড়ে ৭ হাজার মিটার উচ্চতায় সহযাত্রীরা তাঁকে নিয়ে বেসক্যাম্পে ফিরতে পারেননি৷ ক্যাম্প টু ও ক্যাম্প থ্রি-এর মাঝামাঝি জাযগায় তাঁকে বেঁধে রেখে আসেন ৷

বিশেষজ্ঞদের মতে, শরীর সুস্থ রাখতে যে ধরেণের ইঞ্জেকশন পর্বতারোহীরা নেন তাতে দেহে অক্সিজেনের চাহিদা বেড়ে যায়। ফলে সিলিন্ডারের অক্সিজেন ফুরিয়ে মৃত্যু হতে পারে।

যদিও, এভারেস্টজয়ী রাজীবের মৃত্যু নিয়ে আরেকটি তথ্যও উঠে আসছে সহযাত্রীদের মধ্যে থেকে।

রাজীবের শেরপার দাবি  করেছেন, অভিযান থেকে ফেরার পথে তুষারঝড়ে আটকে পড়েন রাজীব । ঝড়ের দাপটে তাঁর চশমা খুলে যায়। স্নো ব্লাইন্ড হয়ে যাওয়ায় তিনি আর পথ চলতে পারেননি ৷ তাঁর সঙ্গী তাসি শেরপা পাথরে বেঁধে চলে আসেন ৷

এই পরিস্থিতিতে রাজীবের বাড়ি বরানগরের এখন শোকের ছায়া। রাজ্য সরকারের তরফ রাজীব ভট্টাচার্যের দেহ উদ্ধারে সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। আবহাওয়া খারাপ থাকায় শুক্রবার উদ্ধারকাজ চালানো যায়নি। ২১মে রাজ্য থেকে রওনা হচ্ছে উদ্ধারকারী দল। উদ্ধারকারী দলে থাকছেন রাজীবের পরিবারের এক সদস্যসহ মোট তিনজন।

First published: 07:34:24 PM May 20, 2016
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर