• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • Contaminated Mustard Oil : ভেজাল সরষের তেলের কারবারিদের চক্র ফাঁস বড়বাজারে

Contaminated Mustard Oil : ভেজাল সরষের তেলের কারবারিদের চক্র ফাঁস বড়বাজারে

Mustard Oil : তেলের নমুনা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে

Mustard Oil : তেলের নমুনা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে

Contaminated Mustard Oil : স্ট্র্যান্ড রোডে তিনটি গোডাউনে হানা দিয়ে মোট ১৫৪ টি সরষের তেলের ভর্তি টিন উদ্ধার করে ই বি৷ তেলের নমুনা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে

  • Share this:

কলকাতা : ১৬০ থেকে ১৬৫ টাকা কেজি খাঁটি সরষের তেল (Mustard Oil) পাইকারি দরে বিক্রি হচ্ছে পোস্তা বাজারে। কোনও ভাবে হিসাব মেলাতে পারছিলেন না এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের (Enforcement Branch) গোয়েন্দারা।তাঁরা খোঁজ নিয়ে দেখেছিলেন এক কেজি ছোট সরষের পাইকারি দর ৭৫-৮০টাকা।খুব ভাল সরষে হলে ১ কেজি সরষের থেকে ৩০০-৩৪০ গ্রাম পর্যন্ত সরষের তেল বের হয়।মোটের উপর ধরা যেতে পারে,৩কেজি সরষে থেকে ১কেজি মত তেল বের হয়। এখানেই কপালে ভাঁজ গোয়েন্দাদের।

আরও পড়ুন : রাস্তাঘাটে এমন পাকা পেঁপে খাচ্ছেন? ভিতরে লুকিয়ে মারাত্মক বিপদ

গোয়েন্দারা খোঁজ করে দেখেন,৩ কেজি সর্ষের দাম মোটের উপর ২৪০ টাকা।৩কেজি সরষে থেকে ১কেজি সরষের তেল বেরোলে,বাকি দু কেজি খোল বেরোচ্ছে।দুকেজি খোলের দাম ষাট টাকা।তাহলে ২৪০-৬০= ১৮০ টাকা দাম পড়ছে এক কেজি সরষে তেলের।তার পর বিদ্যুতের বিল,শ্রমিক,বহনের খরচ মেলালে, ২০০ থেকে ২২০ টাকার নীচে ১ কেজি পাইকারি বিক্রি করতে পারে না।  সেই অনুযায়ী,গতকাল পোস্তা এলাকার বেশ কয়েকটি সরষে তেলের মার্চেন্টের গোডাউনে হানা দেয় কলকাতা এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের আধিকারিকরা।ওই দলের প্রধান, ইন্সপেক্টর যুগল কিশোর দাঁ বলছিলেন, ‘‘এই বছর ৮ জুন থেকে FSSI সরষের তেলের সঙ্গে অন্য কোন তেল মেশাতে নিষেধ করে দিয়েছে।সরষে তেলের সঙ্গে নিম্নমানের বেশ কিছু তেল মিশিয়ে,সরষে তেলের দাম কমাচ্ছে ব্যবসায়ীরা।আসলে ভেজাল সরষের তেল মানুষকে খাওয়াচ্ছে,ওই চক্র।’’  পি-৪৮ স্ট্র্যান্ড রোডে তিনটি গোডাউনে হানা দিয়ে মোট ১৫৪ টি সরষের তেলের ভর্তি টিন উদ্ধার করে ই বি৷ তেলের নমুনা পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন : দারুন সুখবর! কলকাতা-সহ ৫ শহরে ক্যাবের ন্যায় অ্যাপ অ্যাম্বুল্যান্সের সূচনা, রক্তও মিলবে অ্যাপেই 

নমুনার রিপোর্ট এলে ওই তিন তেলের মার্চেন্টের বিরুদ্ধে মামলা শুরু করবে পুলিশ।  অভিযোগ, রাইস ব্র্যান তেলের সঙ্গে সেন্ট ও কেমিক্যাল মিশিয়ে তেলের ঝাঁঝ তৈরি করছে কিছু ব্যবসায়ী। রীতিমতো মানুষের স্বাস্থ্য এবং খাদ্য নিয়ে কালোবাজারি করছে বড় বাজার পোস্তা এলাকার বিভিন্ন ব্যবসায়ী। যুগলকিশোর দাঁ-র দাবি,খুব তাড়াতাড়ি এই সমস্ত চক্রর বিরুদ্ধে তিনি কড়া পদক্ষেপ করবেন।   যদি ভয়ঙ্কর কিছু পাওয়া যায়,তাহলে লাইসেন্স বাতিল থেকে আরম্ভ করে,জেলও হতে পারে অপরাধীদের।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: