• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • MUKUL ROY SKIPS HEARING AT ASSEMBLY SUVENDU ADHIKARI TO FILE CASE IN CALCUTTA HIGH COURT DMG

Mukul Roy| Suvendu Adhikari: অসুস্থ, বিধানসভার শুনানিতে এলেন না মুকুল! হাইকোর্টে যাচ্ছেন শুভেন্দু

মুরুলের বিধায়ক পদ খারিজে মরিয়া শুভেন্দু৷

শুভেন্দু অধিকারী আইনজীবীদের নিয়ে হাজির হলেও সেখানে আসেননি মুকুল রায়৷ চিঠি দিয়ে তিনি স্পিকারকে জানান, শারীরিক অসুস্থতার জন্য হাজিরা দিতে পারছেন না ()৷

  • Share this:

    #কলকাতা: শরীর অসুস্থ, তাই বিধানসভায় স্পিকারের ঘরে শুনানিতে হাজিরা দিলেন না কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক মুকুল রায়৷ মুকুলের বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করে বিধায়ক পদ খারিজের দাবি নিয়ে বিধানসভার অধ্যক্ষের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী৷

    এই অভিযোগের ভিত্তিতেই এ দিন বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় দু' পক্ষকেই দ্বিতীয় শুনানিতে হাজিরা দিতে বলেছিলেন৷ কিন্তু শুভেন্দু অধিকারী আইনজীবীদের নিয়ে হাজির হলেও সেখানে আসেননি মুকুল রায়৷ চিঠি দিয়ে তিনি স্পিকারকে জানান, শারীরিক অসুস্থতার জন্য হাজিরা দিতে পারছেন না৷ অধ্যক্ষের কাছে এক মাস সময় চেয়েছেন মুকুল রায়৷ কৃষ্ণনগর উত্তর কেন্দ্রের বিধায়কের সেই আবেদন মঞ্জুরও করা হয়েছে৷

    যদিও এ দিন বিধানসভায় শুনানি স্থগিত হয়ে যাওয়ার পরই মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করার দাবিতে হাইকোর্টে মামলা করার কথা জানিয়ে দিয়েছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী৷ তাঁর অভিযোগ, বর্তমান স্পিকারের আমলে গত দশ বছরে রাজ্যের কোনও বিধায়কের ক্ষেত্রে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করা হয়নি৷ মুকুল রায়ের ক্ষেত্রেও তা করা হবে না, এই আশঙ্কা থেকেই এবার হাইকোর্টের দ্বারস্থ হচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী৷ আগামী সপ্তাহেই তিনি আদালতের দ্বারস্থ হবেন বলে জানিয়েছেন বিরোধী দলনেতা৷

    শুভেন্দু অধিকারী এ দিন আরও অভিযোগ করেছেন, শরীর খারাপ বলে সময় চেয়ে মুকুল রায় যে আবেদন পত্র পাঠিয়েছেন, তা ত্রুটিপূর্ণ৷ কারণ সেই আবেদনপত্রে মুকুল রায়ের বয়স এবং তারিখের উল্লেখ নেই৷

    শুভেন্দু অধিকারী বিধানসভা থেকে বেরিয়ে বলেন, 'মুকুল রায়ের এই ত্রুটিপূর্ণ আবেদনপত্র দেখিয়েই অধ্যক্ষ পরবর্তী শুনানির দিন ১৫ সেপ্টেম্বর ধার্য করেছেন৷ আমাদের সংবিধানের দশম তফশিলেই বলা আছে যে দলত্যাগ বিরোধী আইন দ্রুত কার্যকর করতে হবে৷ আমরা আগামী সপ্তাহে বিষয়টি নিয়ে হাইকোর্টে যাচ্ছি৷ বর্তমান অধ্যক্ষের আমলে গত দশ বছরে রাজ্য বিধানসভায় দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করা হয়নি৷ গাজোলের বিধায়ককে ২৩ বার শুনানিতে ডাকার পরেও কোনও নিষ্পত্তি হয়নি৷ এই সমস্ত যে যে তথ্য আমাদের কাছে আছে, আমরা সেগুলিই আদালতকে জানাবো৷'

    শুভেন্দু অধিকারী জানিয়েছেন, দ্রুত দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করা এবং শুনানি শেষ করার আবেদন নিয়েই মূলত আদালতের দ্বারস্থ হবেন তাঁরা৷ মুকুল রায়কে পিএসি চেয়ারম্যানের পদে বসানোয় ইতিমধ্যেই হাইকোর্টে মামলা করেছেন কল্যাণীর বিজেপি বিধায়ক অম্বিকা রায়৷ এ বার মুকুলের উপরে চাপ আরও বাড়াতে তাঁর বিধায়ক পদ খারিজের দাবি শুভেন্দু অধিকারীও আদালতের যাচ্ছেন৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: