corona virus btn
corona virus btn
Loading

একাধিক এটিএমে নেই কোনও নিরাপত্তারক্ষী, ঝুঁকি নিয়ে টাকা তুলতে বাধ্য হচ্ছেন গ্রাহকরা

একাধিক এটিএমে নেই কোনও নিরাপত্তারক্ষী, ঝুঁকি নিয়ে টাকা তুলতে বাধ্য হচ্ছেন গ্রাহকরা
File Image

গত বছর আগস্ট মাসে কলকাতায় এটিএম জালিয়াতির পরে ব্যাঙ্কগুলিকে গ্রাহকদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে বলেছিল লালবাজার। যদিও গ্রাহকদের অভিযোগ সুরক্ষার প্রাথমিক কাজটাই করেনি ব্যাঙ্ক কতৃপক্ষ।

  • Share this:

ABIR GHOSAL

#কলকাতা: সচেতন হন গ্রাহকরা। টাকা চুরি গেলে এই একটা কথাই বলে চলেন ব্যাঙ্ক আধিকারিকরা। কিন্ত এটিএমগুলিতে কেন কোনও নিরাপত্তারক্ষী থাকবে না, এবার এই প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন গ্রাহকরা। যাদবপুরে একাধিক গ্রাহকের আকাউন্ট থেকে উধাও হয়েছে টাকা। গ্রাহকদের এটিএম তথ্য চুরি হয়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। শহরের এটিএমগুলি কতটা সুরক্ষিত তা নিশ্চিত হতে ইতিমধ্যেই বৈঠক করেছেন ব্যাঙ্ক আধিকারিক ও পুলিশের অফিসাররা। কিন্তু যাদবপুর অঞ্চলেই একাধিক এটিএম ঘুরে দেখা গেল সেখানে নেই কোনও নিরাপত্তারক্ষী। রক্ষী বিহীন এটিএম দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে বলে অভিযোগ করছেন গ্রাহকরা। বাধ্য হয়েই এই সমস্ত এটিএম থেকে টাকা তুলতে হয় বলে জানাচ্ছেন তারা।

গত বছর আগস্ট মাসে কলকাতায় এটিএম জালিয়াতির পরে ব্যাঙ্কগুলিকে গ্রাহকদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে বলেছিল লালবাজার। যদিও গ্রাহকদের অভিযোগ সুরক্ষার প্রাথমিক কাজটাই করেনি ব্যাঙ্ক কতৃপক্ষ।

যাদবপুরে রাজা সুবোধ চন্দ্র মল্লিক রোডের পাশে এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্ককের এটিএম। সেখানে গিয়ে দেখা গেল কোনও নিরাপত্তা রক্ষী নেই। "জানি তো এখানে কোনো নিরাপত্তারক্ষী নেই। কিন্তু আমার কোনও উপায় নেই। বাড়ির কাছে এটিএম এটাই আছে তাই আসি এখানে। তবে সোয়াইপের জায়গা টেনে দেখে নিই।" এমনটাই বলছেন প্রদীপ চ্যাটার্জি। তবে সকলের অবশ্য এই সচেতনতা নেই। অনেকে জানেন না এটিএম সুরক্ষা আসলে কি? সুলেখার বাসিন্দা জয়দেব দাস। পেশায় ব্যবসায়ী জয়দেব বাবু টাকা তোলেন তার বাড়ির উল্টো দিকের একটি বেসরকারি ব্যাঙ্ক থেকে। " জানি তো এটিএমে নিরাপত্তারক্ষী নেই। তার জন্যে কোনও অসুবিধা হবে ভাবিনি। তবে এখন যা হল তাতে ভয় পাচ্ছি। কিন্তু কোথায় যাব? সবই তো এক। কোথাও কোনও নিরাপত্তারক্ষী নেই।" অভিযোগ যে মিথ্যা নয় তা দেখা গেল ওই এলাকার একাধিক এটিএম ঘুরেই।

একই ছবি কিছুটা দূরে থাকা ইন্ডাসল্যান্ড ব্যাঙ্কের এটিএমেও। সেখানেও নেই কোনও নিরাপত্তারক্ষী। অভিযোগ কোনও সময়ই এখানে নিরাপত্তারক্ষী থাকেন না। একই অবস্থা সুলেখা মোড়ের কাছে পি এন বি র এটিএমেও। অভিযোগ এই এটিএমে মাঝে মধ্যেই পাগল ঢুকে বসে থাকে। ব্যাঙ্ক ম্যানেজারকে জানালেও মেলেনি নিরাপত্তারক্ষীর আশ্বাস। এমনটাই জানাচ্ছেন সুরজিত ভৌমিক।

গ্রাহকরা চিন্তিত হলেও ব্যাঙ্ক কবে ব্যবস্থা নেবে তা জানেন না গ্রাহকরা। তথ্য বলছে, কলকাতায় সব মিলিয়ে প্রায় ১১৫০ টি এটিএম আছে। তার মধ্যে প্রায় ৬৫০ এটিএমে নেই কোনও নিরাপত্তারক্ষী। রাজ্যের ১১২০০ এটিএমের মধ্যে ৬৬০০ এটিএমে নেই কোনও নিরাপত্তারক্ষী। ফলে গ্রাহকদের প্রাথমিক সুরক্ষা নিয়েই উঠছে প্রশ্ন।

First published: December 3, 2019, 2:52 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर