corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা আতঙ্ক! শহরের বেশিরভাগ অফিসই এবার ঝুঁকছে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’-এর উপর

করোনা আতঙ্ক! শহরের বেশিরভাগ অফিসই এবার ঝুঁকছে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’-এর উপর

সরকারি নির্দেশ নামা মেনে অফিসে ঢোকার সময় কর্মীদের শরীরের তাপমাত্রা মাপা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অনেক অফিস তাঁদের কর্মীদের মাস্ক দিয়েছে।

  • Share this:

SOUJAN MONDAL

#কলকাতা: 'ওয়াক ফ্রম হোম'.... করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে তথ্যপ্রযুক্তি তালুকে এখন এটাই স্লোগান।

করোনাভাইরাসের প্রভাব এখন সর্বত্র। বিদেশ থেকে আসা বিমান যাত্রীদের দিয়ে শুরু হয়েছিল করোনা মোকাবিলার প্রথম পদক্ষেপ। আসতে আসতে করোনার আতঙ্ক গ্রাস করে ফেলেছে সমাজের সব অংশেই। কেন্দ্র সরকারের বলে দেওয়া নির্দেশিকা পালন করতে এগিয়ে এসেছে সরকারি বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠান। ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সমস্ত স্কুল , কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়। পাশাপাশি যেখানে একসঙ্গে অনেক লোকের সমাগম হয় সেরকম জায়গাও বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। করোনাভাইরাস এর জেরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল পুরভোট আপাতত স্থগিত রাখার আবেদন করেছে।

করোনাভাইরাস নিয়ে সতর্কতাই পিছিয়ে নেই কলকাতার তথ্যপ্রযুক্তি শিল্প তালুক। সরকারের করোনা ভাইরাস নিয়ে সব রকম নির্দেশিকা মেনে চলছে তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা গুলো। বহু সংস্থা তাঁদের কর্মীদের  আগে থেকে  ঠিক হয়ে থাকা আন্তর্জাতিক ভ্রমন সূচী বাতিল করেছে। এমনকি দেশের মধ্যেও কর্মীদের ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে অনেক সংস্থা। একই সঙ্গে জোর দেওয়া হচ্ছে 'ওয়ার্ক ফর্ম হোম'এর ওপর। কিন্তু তারপরও এরকম অনেক দফতর রয়েছে যাঁদের অফিসে না এসে ওয়ার্ক ফর্ম হোম সম্ভব নয়। তাঁদের ক্ষেত্রে বিশেষ ব্যবস্থা করেছে তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা গুলো। সরকারি নির্দেশ নামা মেনে অফিসে ঢোকার সময় কর্মীদের শরীরের তাপমাত্রা মাপা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অনেক অফিস তাঁদের কর্মীদের মাস্ক দিয়েছে। পাশাপাশি হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারকে বিশেষ ভাবে জোর দেওয়া হচ্ছে।

দেশের  একটি বড় তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার কলকাতা অফিসের এক বড় কর্তা জানান, তাঁদের সংস্থা ওয়ার্ক ফর্ম হোম পদ্ধতিকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। কিন্তু তার জন্য যে পরিকাঠামো প্রয়োজন তা দিয়ে ওঠা সম্ভব হচ্ছে না। তাই যাঁদের কাছে ল্যাপটপ আছে তাঁদেরকে ওয়ার্ক ফর্ম হোম করতে বলা হয়েছে। কিন্তু যাঁদের এই সুবিধা নেই, তাঁরা অফিসে আসছেন। অফিসে এলেও তাঁদের সরকারি নির্দেশ নামা অনুযায়ী নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে কাজে বসানো হচ্ছে। একই সঙ্গে অনেক সংস্থা তাঁদের ভেন্ডারদের অফিসে ঢোকার ওপর আপাতত নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। অনেক অফিসে ক্যান্টিনে প্যাকেট খাবার চালু করা হয়েছে।

সব মিলিয়ে বলা চলে কলকাতার তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা গুলোর করোনাভাইরাস মোকাবিলায় যথেষ্ট তৎপর।

First published: March 16, 2020, 2:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर