আজকের কাগজের সেরা খবর

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷

প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    প্রতিদিনের ব্যস্ততায় খবর কাগজ খুঁটিয়ে পড়া সম্ভব হয় না ৷ অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ খবর চোখ এড়িয়ে যায় ৷ তাছাড়া একাধিক কাগজও পড়ার মতো সময় কারোর হাতেই নেই ৷ তাই আসুন এক নজরে, একজায়গায় দেখে নিন কলকাতার বিভিন্ন কাগজের সেরা খবর গুলি ৷ রবিবারের  গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি হল-

    anandabazar11

    বৈজ্ঞানিক রিগিং রুখবে কমিশন, জানালেন জৈদী

    বৈজ্ঞানিক রিগিং রুখতে এ বার বৈজ্ঞানিক দাওয়াই দেবে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন সদনে আনন্দবাজার পত্রিকাকে এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার নসীম জৈদী স্পষ্টই বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, এ বার আর ভূতেরা পশ্চিমবঙ্গে ভোটের ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করতে পারবে না। তার জন্য এক দিকে যেমন ভূতেদের বাছাই অভিযান চলছে, তেমনই ভোটের দিন আসল ভোটারের বদলে কেউ ভূত সেজে বুথে এলে তা ঠেকানোর ব্যবস্থাও নিশ্চিত করা হচ্ছে। এ রাজ্যের ভোটে বৈজ্ঞানিক রিগিংয়ের ভূরি ভূরি অভিযোগ কমিশনে জমা পড়েছে। সেই কারণে কমিশনও অন্যান্য বারের চেয়ে বাড়তি সতর্কতা নিচ্ছে, জানিয়েছেন জৈদী।

    বাড়ছে মৃত্যু, তবু কেন আগাম ঘোষণা মমতার

    বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ন’টা। ভেঙে পড়া বিবেকানন্দ রোড উড়ালপুলের একটু দূরে চেয়ারে বসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন, ‘‘উদ্ধারকাজ শেষ।’’ তার পর ঘটনাস্থল থেকে সোজা মেডিক্যাল কলেজে আহতদের দেখতে চলে যান তিনি। তত ক্ষণে এলাকা ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী-আমলারাও।

    ডং ধ্বনিতে খুলে গেল লাল-হলুদের লিগ দরজা

    যত কাণ্ড শিলিগুড়িতে নাম দিয়ে সঞ্জয় সেন একটা গল্প লিখতেই পারেন আই লিগের পরে। মোহনবাগানকে নিয়ে কত কাণ্ডই না হল শেষ তিন দিনে! ডার্বি খেলতে আসার দিন প্রবল ঝড়বৃষ্টিতে বিমান-বিভ্রাটে পড়েছিল সঞ্জয়ের দল।

    প্রত্যুষার মৃত্যুতে বাড়ছে রহস্য, জেরা প্রেমিককে

    প্রথমে অনেকেই ভেবেছিলেন ‘এপ্রিল ফুল’ করছে কেউ। আবার, কেউ বা ভেবেছিলেন, অন্য কোনও প্রত্যুষার কথা বলা হচ্ছে। তাই জামশেদপুরের সোনারি এলাকা প্রথম যখন প্রত্যুষা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যুর খবর শোনে, তখন বিশ্বাসই করতে পারেনি যে, তাঁদের আদরের ‘তিতান’ এ ভাবে চলে যাবে। কারণ, প্রত্যুষাকে ‘তিতান’ নামেই চেনে জামশেদপুরের সোনারি এলাকা। এখানেই যে বড় হয়েছেন প্রত্যুষা।

    bartaman_big

    কাল জঙ্গলমহলে ভোট, ধৃত মাওবাদী দম্পতি

    আগামীকাল সোমবার রাজ্যে প্রথম পর্যায়ের প্রথম দফার ভোট। ওইদিন পশ্চিম মেদিনীপুর, পুরুলিয়া ও বাঁকুড়া জেলার ১৮টি বিধানসভা কেন্দ্রের ১৩৩ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ করবেন প্রায় ৪০ লক্ষ ভোটার। মাওবাদী অধ্যুষিত ওই এলাকায় অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সুনিশ্চিত করতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে নির্বাচন কমিশন। তবে কত সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনী এই পর্বে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে, তা নিয়ে সুস্পষ্ট কোনও বক্তব্য জানায়নি তারা। মোহন বাগানকে হারিয়ে লিগ জমিয়ে দিল ইস্ট বেঙ্গল অন্ধকারে ক্রমশই ডুবছে কাঞ্চনজঙ্ঘা পাহাড়। চতুর্থ রেফারি ডিসপ্লে বোর্ডে লস টাইম দেখিয়ে দিয়েছেন সাত মিনিট। মোহন বাগান সমর্থকরা হারের প্রহর গুণতে শুরু করে দিয়েছেন। স্টেডিয়ামে ইস্ট বেঙ্গল সমর্থকরা মোবাইলের টর্চ অন করে লাইট ওয়েভের ঝলকানি দেখাচ্ছেন। হঠাৎ ৯৫ মিনিটে রেফারি শঙ্করের বাঁশি বেজে উঠল। ইস্ট বেঙ্গল মিডফিল্ডার শেহনাজ সিং জার্সি টেনে বক্সে ফেলে দিয়েছেন মোহন বাগান স্ট্রাইকার জেজে লালপেখলুয়াকে। সবুজ-মেরুনের অনুকূলে পেনাল্টি। মোহন বাগানের সামনে ১-২ গোলে পিছিয়ে থেকে ২-২ করার সুযোগ। আজ ফাইনালে গেইল ঝড়ের আশায় ইডেন ইডেনে রবিবার টি-২০ বিশ্বকাপ ফাইনালে ‘টিম ইন্ডিয়া’ না থাকার ফলে একরাশ স্বপ্নভঙ্গের বেদনা নিয়ে যাঁরা খেলা দেখতে যাবেন, তাঁদের ক্ষতে কিছুটা প্রলেপ দিয়ে বাড়তি হর্ষবর্ধন করতে পারেন একমাত্র ক্রিস গেইল। আবার একটা গেইল ঝড় দেখার প্রত্যাশা নিয়ে মাঠে যাওয়া যেতে পারে। কিন্তু গেইল ঝড় কালবৈশাখীর মতোই অনিশ্চিত। কখনও শুধু ঝড় আর ধুলো ওড়ানো প্রান্তরে কয়েক ফোঁটা বৃষ্টি। তিনি মাঝে মধ্যেই শরতের মেঘ হয়ে যান। যত গর্জান, তত বর্ষান না। উড়ালপুলে ব্যবহৃত সামগ্রীর আদৌ ‘কিউব টেস্ট’ হয়েছিল কি, সন্দেহ গোয়েন্দাদের বিবেকানন্দ উড়ালপুলে ঢালাইয়ের জন্য ব্যবহৃত সামগ্রীর ‘কিউব টেস্ট’ করা হয়েছিল কি না, তা নিয়ে সন্দিহান গোয়েন্দা বিভাগের আধিকারিকরা। কারণ তা করানো হলে অনেক আগেই ধরা পড়ে যেত, কী গুণমানের ইমারতি দ্রব্য সেখানে ব্যবহার করা হয়েছে। সেক্ষেত্রে হয়তো এই দুর্ঘটনা এড়ানো যেত। এই টেস্ট যে ল্যাবরেটরিতে করানো হত, সেখান থেকে এই বিষয়ে তথ্য নেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি শনিবার কলকাতা মেট্রোপলিটন ডেভেলপমেন্ট অথরিটির (কেএমডিএ) তিন কর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। মূলত হায়দরাবাদের এই সংস্থার সঙ্গে তাঁরা কীভাবে যোগাযোগ রাখতেন এবং গুণমান পরীক্ষার ক্ষেত্রে তাঁদের কী ব্যবস্থা ছিল, এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়। সেখানে বেশকিছু ফাঁকফোকর পাওয়া গিয়েছে বলে সূত্রের খবর।
    First published: