Mithun Chakraborty: মারবো এখানে লাশ পরবে শ্মশানে...সংলাপে সাময়িক বিপাকে মিঠুন চক্রবর্তী

ভিডিও কনফারেন্সে তদন্তে সহযোগিতা করতে এদিন মহাগুরুকে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষ

ভিডিও কনফারেন্সে তদন্তে সহযোগিতা করতে এদিন মহাগুরুকে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষ

  • Share this:

#কলকাতা: মারবো এখানে লাশ পরবে শ্মশানে...ডায়লগে সাময়িক বিপাকে মিঠুন চক্রবর্তী। মহাগুরুর ডায়লগ পৌঁছায় কোলকাতা হাইকোর্টে। শুক্রবার মামলার শুনানি পিছিয়ে যায় ৭ দিন। ভিডিও কনফারেন্সে তদন্তে সহযোগিতা করতে এদিন মহাগুরুকে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষ। মানিকতলা থানার তদন্তকারী অফিসারকে মিঠুন চক্রবর্তীর ই-মেইল আইডি দেবেন মিঠুন অথবা তাঁর আইনজীবী। ১৮ জুন পর্যন্ত ভার্চুয়াল শুনানিতে আই ও সঙ্গে তদন্তে সহযোগিতা করবেন মিঠুন।

আগামী শুক্রবার ফের মামলার শুনানি। শুনানিতে উপস্থিত ছিলেন হাইকোর্টের মুখ্য সরকারি কৌঁসুলি শাশ্বত গোপাল মুখোপাধ্যায়।সিনিয়র আইনজীবী মহেশ জেঠমালানি এদিন ভার্চুয়ালি শুনানিতে মিঠুনের হয়ে অংশ নেওয়ার কথা। মহাগুরুর আইনজীবী প্যানেলের অন্যতম বিকাশ সিং জানান, রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল মামলার জন্য সময় চান, তিনি অন্য মামলার কাজে ব্যস্ত থাকায় সময় চান। বিকাশ সিং আরও জানান, আদালতের নির্দেশ মত আমরা তদন্তে সহযোগিতা করব। তবে এই এফআইআর খারিজ হওয়ার যোগ্য। চলতি সপ্তাহের সোমবার বহুল জনপ্রিয় বাংলা ছায়াছবির ডায়লগের আসল ব্যখা কী, তা জানিয়েই মামলা ঠোকেন মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তী। একইসঙ্গে রক্ষাকবচ চেয়ে করেন আবেদনও। ডায়লগ বলে যে এভাবে হয়রান হতে হবে তা হয়তো ভাবেননি তিনি।

চলতি মার্চে বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশ মঞ্চে পদ্ম শিবিরে যোগ দেন মহাগুরু। তারপর থেকে বিজেপির হয়ে বিভিন্ন প্রচারে তাঁকে দেখা যায়। বাঙালি বাবুকে নিয়ে জনতার আবেগ ছিল বাঁধন ছাড়া। সেই সময় জনতার আবদার মেটাতে তাঁকে পরোক্ষে বলতে দেখা যায় জনপ্রিয় ডায়লগ। মারব এখানে লাশ পরবে শ্মশানে - এমন নিজের মুখে সভামঞ্চে সরাসরি বলেননি তিনি। এমনটাই দাবি তাঁর। বিধানসভা নির্বাচন পর্বে ২৫ মার্চ থেকে ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত বিজেপি প্রার্থীদের হয়ে প্রচার করেন মহাগুরু।

সেই সময় মিঠুন চক্রবর্তী বিভিন্ন সভামঞ্চে ঘুরিফিরে এসেছে ডায়লগটি। ভোটপর্ব মিটতেই ৬ মে মানিকতলা থানায় এফআইআর করেন একজন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় দন্ডবিধির ১৫৩এ, ৫০৪,৫০৫ একাধিক ধারায় এফআইএর রুজু হয়। হিংসা ছড়ানো, শান্তি নষ্টের চেষ্টার মতন অভিযোগ করা হয়। এই এফআইআর খারিজ চেয়ে সোমবার কোলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছেন মিঠুন চক্রবর্তী। মিঠুনের আইনজীবী বিকাশ সিং ও পার্থ ঘোষ জানান, ২০১৪ সালে কোলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে শাহরুখ খান সহ একাধিক তারকার উপস্থিতিতে এমন ডায়লগ বলেন তিনি। পাবলিক ফিগার তিনি, জনতার আবদার মেটাতে এমন জনপ্রিয় ডায়লগ মাঝেমধ্যে বলতে হয়। তবে এর উদ্দেশ্য কাওকে খাটো করা বা হিংসা ছড়ানো নয়।ডায়লগটি নিয়ে রাজনৈতিক দড়ি টানাটানিছিলোই। তবে মানিকতলা থানায় এফআইআর পর তা অন্যমাত্রা পায়। রিলের নায়ক কী পারবেন বাস্তবের আইনের চাকা ঘোরাতে, উত্তর দেবে ভবিষ্যৎ।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: