বছরের শেষ দিনে মেট্রো পাবেন মধ্যরাত পর্যন্ত, থাকছে বাস ও ট্যাক্সিও

বছরের শেষ দিনে মেট্রো পাবেন মধ্যরাত পর্যন্ত, থাকছে বাস ও ট্যাক্সিও
  • Share this:

ABIR GHOSHAL

# কলকাতা: বছরের শেষ দিন বলে কথা। দশটা-পাঁচটার অফিস করে তাড়াহুড়ো করে আজ বাড়ি ফিরবেন নাকি? দেরি করে বাড়ি ফিরুন। চুটিয়ে মজা করুন। পার্টি করুন। চিন্তা নেই রাত পর্যন্ত মেট্রো অপেক্ষা করবে আপনার জন্য।

বছরের শেষদিন উপলক্ষ্যে মেট্রো বেশ বড় সার্ভিস দিচ্ছে। সকাল ৬টা ৪৫ থেকে মেট্রো চলবে দমদম ও কবি সুভাষ উভয় দিক থেকেই। আর শেষ মেট্রো পাওয়া যাবে প্রায় মধ্যরাত পর্যন্ত। কারণ দমদম ও কবি সুভাষ দুদিক থেকেই মেট্রো ছাড়বে রাত ২২:৪৫ থেকে।

বছরের শেষ দিন পড়েছে মঙ্গলবার। ফলে সাপ্তাহিক সূচি মেনেই মেট্রো চলার কথা। যদিও ৩১ সে ডিসেম্বর মেট্রো চলবে ২৯৬ টি। আপ ও টাউনে মোট মেট্রো থাকবে ১৪৮ টি করে। এছাড়া সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ১০০ খানা মেট্রো চলবে ছয় মিনিট করে। মেট্রো সূত্রে জানানো হয়েছে বিকেল ৪ টা থেকে রাত ৯ টা অবধি যে সময় মেট্রোয় বেশি যাত্রী থাকে, সেই সময়েই এই ১০০ মেট্রো চলবে।

অন্যদিকে, নোয়াপাড়া থেকে দমদমের মধ্যে ১২৫ টি পরিষেবা দেওয়া হবে। যেহেতু টালা ব্রিজের কারণে এই অংশে গাড়ি চলাচলের সমস্যা আছে বা ঘুরপথে বাস চলছে তাই আপে ৬৩ ও ডাউনে ৬২টি মেট্রো চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শুধু পরিষেবা বৃদ্ধি নয়। মেট্রো নিরাপত্তাও যথেষ্ট জোরদার করা হয়েছে। ধর্মতলা, পার্ক স্ট্রিট , ময়দান, চাঁদনী চক, রবীন্দ্র সদন, শ্যামবাজার ও টালিগঞ্জ মেট্রো স্টেশনে থাকছে কঠোর নিরাপত্তা। কলকাতা পুলিশের কর্মীরাও যেমন থাকছেন তেমনই মেট্রো রেলওয়ে পুলিশ ও আর পি এফের কর্মী মোতায়েন থাকছে অতিরিক্ত এই সমস্ত স্টেশনে। এছাড়া সাদা পোশাকেও পুলিশি টহলদারি থাকছে মেট্রো প্ল্যাটফরম ও কোচের মধ্যে। পার্ক স্ট্রিট। মেট্রো ভবনের কন্ট্রোল রুম থেকে চলবে সিসিক্যামেরার মাধ্যমে নজরদারি। ধর্মতলা, পার্ক স্ট্রিট ও ময়দানে ৫০ জন আর পি এফ মোতায়েন থাকছে। অন্যদিকে ময়দান ও ধর্মতলা এই দুটি স্টেশনে থাকছে ৪ জনের একটি বিশেষ দল। সেখানে থাকছেন আর পি এফের একজন অফিসার ও দুজন করে মহিলা আর পি এফ কর্মী।

তবে শুধু মেট্রো নয়। কলকাতার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সরকারি বাসের সংখ্যাও বাড়ানো হচ্ছে আজকের জন্য। ইকো পার্ক এবং চিড়িয়াখানা চত্বরে থাকবে বেশি বাস। এছাড়া পার্ক স্ট্রিট। চত্বরে থাকছে বেশি সংখ্যাক অ্যাপ ক্যাব।

First published: 10:02:02 AM Dec 31, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर