corona virus btn
corona virus btn
Loading

মেট্রোয় মর্মান্তিক মৃত্যু: ধাক্কায় নয়, সামনে এল সজল কাঞ্জিলালের মৃত্যুর আসল কারণ

মেট্রোয় মর্মান্তিক মৃত্যু: ধাক্কায় নয়, সামনে এল সজল কাঞ্জিলালের মৃত্যুর আসল কারণ
  • Share this:

#কলকাতা: শনিবার, পার্ক স্ট্রিট মেট্রো স্টেশনে দুর্ঘটনার মুহূর্তের সিসিটিভি ফুটেজে সজলকুমার কাঞ্জিলালের মৃত্যু নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন উঠে গেল। আজ সকাল পর্যন্ত মনে করা হচ্ছিল, ঝুলন্ত সজলের টানেলে ধাক্কা লেগে মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু, অন্তর্তদন্তে মিলেছে নয়া তথ্য। একই সঙ্গে ধরা পড়েছে মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষের চরম গাফিলতি।

দুর্ঘটনার মুহূর্তের এই সিসিটিভি ফুটেজ থেকে উঠে আসছে বেশ কয়েকটি সম্ভাবনা। গাফিলতি। নতুন করে উঠছে একাধিক প্রশ্ন। শনিবার, মেট্রো রেলে হাত আটকে যাওয়ার পরেও মাথা ঠান্ডা রেখে কামরার পাদানিতে দাঁড়িয়েছিলেন সজল কাঞ্জিলাল। এই পাদানি চওড়ায় মাত্র চার-পাঁচ ইঞ্চি।

এই অবস্থাতেই ট্রেন চলতে শুরু করে। চালক, গার্ড কারওরই কিন্তু নজরে পড়েনি। এমনকি এই ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, প্ল্যাটফর্মের একেবারে প্রান্তে যেখানে আরপিএফের থাকার কথা, সেখানে আরপিএফের কোনও জওয়ানই নেই।

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী, সজলের হাতে ও পায়ে আঘাতের চিহ্ন মিলেছে। তবে, মাথায় বা ঘাড়ে বড় কোনও আঘাতের চিহ্ন মেলেনি। কিন্তু, সজল যেভাবে কামরার পাদানিতে দাঁড়িয়েছিলেন, তাতে টানেলের দেওয়ালে ধাক্কা লেগে মৃত্যু হলে, তাঁর মাথায় বা ঘাড়ের কাছে বড়সড় চোট লাগার কথা। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে কিন্তু তেমন কিছু মেলেনি। বরং, তড়িদাহত হওয়ার প্রমাণ মিলেছে। অর্থাৎ, এই ময়নাতদন্তের রিপোর্ট থেকে কয়েকটি বিষয় স্পষ্ট। প্রথমত, হাত আটকে যাওয়ার পরেও নিজেকে বাঁচাতে মরিয়া সজল, কামরারা চার-পাঁচ ইঞ্চির পাদানিতে দাঁড়িয়েছিলেন। এই ফুটেজে এও স্পষ্ট, টানেলের দেওয়ালের সঙ্গে তাঁর ধাক্কা লাগেনি। এর কারণ, টানেলের দেওয়ালের সঙ্গে মেট্রোর কামরার দূরত্ব থাকে তিন থেকে পাঁচ ফুট তাই কামরার পাদানিতে দাঁড়িয়ে থাকলে টানেলের দেওয়ালে ধাক্কা লাগার কথা নয়।

দুর্ঘটনার পরের মুহূর্তের ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, আরপিএফ ও অন্যান্য কর্মীরা ছুটে যাচ্ছেন ৷ অর্থাৎ, সেই সময় চালক বিপদ বুঝে ট্রেনটি দাঁড় করিয়ে দেন। তখনই কোনও ভাবে সেন্সর কাজ করতে শুরু করে। যার জেরে দরজা খুলে যায়। এর ফলেই কি পড়ে গিয়ে এবং তড়িদাহত হয়ে মৃত্যু হয় সজলকুমার কাঞ্জিলালের? এর ইঙ্গিত মিলেছে ময়নাতদন্তে। আরপিএফ, চালক, গার্ড প্রত্যেকের গাফিলতি আগেই স্পষ্ট হয়েছে। এই অন্তর্তদন্তে যে চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এল তাতে মেট্রো রেলে যাত্রী নিরাপত্তা আরও বড়সড় প্রশ্নের মুখে পড়ে গেল।

First published: July 15, 2019, 11:41 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर