৭০ বছরের দাদার পচাগলা দেহ আগলে রাখল বোন, দুর্গন্ধ পেয়ে উদ্ধার করল পুলিশ

প্রাথমিকভাবে অনুমান, বোন মানসিক ভারসাম্যহীন। সোনারপুরের ঘটনা মনে করাচ্ছে রবিনসন স্ট্রিটের পার্থ দে-কে।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 28, 2019 05:55 PM IST
৭০ বছরের দাদার পচাগলা দেহ আগলে রাখল বোন, দুর্গন্ধ পেয়ে উদ্ধার করল পুলিশ
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 28, 2019 05:55 PM IST

#কলকাতা: দাদার পচাগলা দেহ আগলে ঘরের দরজা বন্ধ করে ছিল বোন। বাইরে থেকে গন্ধ পেয়ে থানায় খবর দেন ফ্ল্যাটের লোকজন। প্রাথমিকভাবে অনুমান, বোন মানসিক ভারসাম্যহীন। সোনারপুরের ঘটনা মনে করাচ্ছে রবিনসন স্ট্রিটের পার্থ দে-কে।

মেঝেতে পড়ে সত্তর বছরের বৃদ্ধের পচাগলা দেহ। দেহ আগলে ঘরের দরজা বন্ধ করে বসে আছেন বোন। ঘটনা সোনারপুরের বাইপাস রোড সংলগ্ন আবাসনের ।

ওই আবাসনে দশ বছর ধরে থাকতেন ভাই অঞ্জন দে ও তাঁর বোন িমনতি। তাঁদের ঘর থেকে সোমবার সকালে দুর্গন্ধ পান পাশের ফ্ল্যাটের লোকজন। মঙ্গলবার দুপুরে ফের দুর্গন্ধ পেয়ে পুলিশে খবর দেন তাঁরা। পুলিশ এলে দরজা খুলেও দেন মিনতি দে। ভিতরে ঢুকে দেখা যায়, মেঝেতে উপুড় হয়ে পড়ে দাদা অঞ্জনের পচাগলা দেহ। প্রতিবেশীদের দাবি,

- পেশায় আইনজীবী অঞ্জনবাবু ও তাঁর বোন মিনতি কারওর সঙ্গে মিশতেন না

Loading...

- আবাসনের রক্ষণাবেক্ষণের খরচও দিচ্ছিলেন না

- বাইরে থেকে খাবার আসত

- ১৯ অগাস্ট শেষবার ভাই বোনকে বেরোতে দেখা যায়

বৃদ্ধের দেহে কোনও আঘাতের চিহ্ন ছিল না। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, বোন মিনতি মানসিক ভারসাম্যহীন। বৃদ্ধ অঞ্জন দে-র দেহ উদ্ধার করে পুলিশ ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। রবিনসন স্ট্রিটে ভাই পার্থ দে দিদির মৃতদেহ আগলে বসে ছিলেন। সোনারপুরের ঘটনা সেই ঘটনাই মনে করাচ্ছে।

First published: 05:55:44 PM Aug 28, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर