• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • মুখোমুখি অভিষেক -শুভেন্দু! গলল বরফ, তৃণমূলেই থাকছেন শুভেন্দু!

মুখোমুখি অভিষেক -শুভেন্দু! গলল বরফ, তৃণমূলেই থাকছেন শুভেন্দু!

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেই থাকছেন শুভেন্দু অধিকারী।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেই থাকছেন শুভেন্দু অধিকারী।

তৃণমূল সূত্র জানাচ্ছে, বৈঠক অত্যন্ত ইতিবাচক। সব পক্ষ একটা সাধারণ জায়গায় এসেছে, দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে। আপাতত সব সমস্যা মিটে গিয়েছে।

  • Share this:

    #কলকাতা: মন্ত্রিত্ব ছেড়েছেন গত শুক্রবার। কিন্তু কখনও দল তথা তৃণমূল সুপ্রিমো বিরোধী একটিও কথা বলেননি। তবে কি এই দিনটারই অপক্ষায় ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী? হ্যাঁ, আজ, মঙ্গলবার সন্ধেয় শুভেন্দু অধিকারী এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠক সেই বার্তাই দিচ্ছে। তৃণমূল বলছে, মধুরেণ সমাপয়েৎ, শুভেন্দু দলেই থাকছেন।

    সূত্রের খবর, আজ সন্ধেয় শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বৈঠক হয়েছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বৈঠকে হাজির ছিলেন সৌগত রায়, ভোটকুশলী প্রশান্তকিশোর, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়রা। তৃণণমূল সূত্রে খবর, এই বৈঠক হয়েছে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে। শুভেন্দু নিজের সব সুবিধে অসুবিধের কথা বলেছেন। তৃণমূল সূত্র জানাচ্ছে, বৈঠক অত্যন্ত ইতিবাচক। সব পক্ষ একটা সাধারণ জায়গায় এসেছে, দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে। আপাতত সব সমস্যা মিটে গিয়েছে।

    গত শুক্রবার মন্ত্রীত্ব ছাড়েন শুভেন্দু অধিকারী। সারা বাংলা তাকিয়ে ছিল তাঁর পরবর্তী পদক্ষেপের দিকে। অনেকেই বলছিলেন, শুভেন্দুর দল ছাড়া শুধু সময়ের অপেক্ষা। কিন্তু শুভেন্দু মন্ত্রিত্ব ছাড়ার পরেও অরাজনৈতিক সভা করেন, কিন্তু তিনি প্রকাশ্যে দল ছাড়া বিষয়ে একটি কথাও বলেননি। ফলে শুভেন্দুর রাজনৈতিক ভবিষ্যত কী হতে পারে তাই নিয়ে চর্চা চলতে থাকে মোড়ে মোড়ে। তৃণমূলের তরফে যে অবস্থান নেওয়া হয়েছিল তাতে বোঝা গিয়েছিল শুভেন্দুকে বরখাস্তর পথে কখনওই হাঁটবে না দল, বরং আলোচনার রাস্তা সর্বদাই খোলা থাকবে, কারণ তাঁর গুরুত্ব নিয়ে তৃণমূলের উচ্চতর নেতৃত্বের কোনও দ্বিধাই নেই। পশ্চিম মেদিনীপুর, মালদহ, মুর্শিদাবাদ, ঝাড়গ্রামের মতো পকেটে শুভেন্দু অধিকারী সংগঠনের ভিত তৈরি করেছেন। কাজেই তৃণমূল চাইছিল আলোচনা হোক, ক্রমাগত কথাবার্তাতে সমস্যার সমাধান হোক।

    সেই রাস্তাতেই মিলল সমাধান সূত্র। বর্ষীয়াণ সাংসদ সৌগত রায় সংবাদমাধ্যমকে আজকের সন্ধ্যার বৈঠকের কথা স্বীকার করেছেন। তিনি স্পষ্ট ভাবে বলছেন, "শুভেন্দু অধিকারী দলেই থাকছেন, ভবিষ্যতে দল আরও শক্তিশালী হবে।  সব সমস্যা মিটে গিয়েছে। সবাই মিলে একসঙ্গে লড়ব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে।" সৌগত রায়ের বিবৃতি অনুযায়ী, তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছেও এই বার্তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। শুভেন্দু অধিকারী অচিরেই সাংবাদিক বৈঠক করে সমস্তটা জানাবেন।

    প্রসঙ্গত ভোটবাজারে শুভন্দু-তৃণমূল দূরত্বকে সামনে রেখে বিজেপি আসরে নেমেছিল। তাঁরা বলতে শুরু করেন, তৃণমূল দলে ভাঙন আগামী কয়েক মাসে আরও তীব্র রূপ নেবে। কিন্তু সেই সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে এ দিনের বৈঠকে এ যাবৎ সবচেয়ে বড় বরফটা গলে যাওয়ায় প্রাক ভোট দাবার দানে জয়ের আস্বাদ পাচ্ছে তৃণমূল শিবির। মুখে হাসি সকলেরই। নেতৃত্বরা অনেকেই বলছেন, যা হয়েছে হয়েছে, ভবিষ্যতে বিভেদ ভুলে কাজ করব।

    ভবিষ্যতে শুভেন্দু অধিকারী কী পদে কাজ করবেন, আসন্ন ভোটে তাঁর কাজ কী হবে কিনা ইত্যাদি নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। তৃণমূল সূত্রে খবর,  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ বিষয়ে সমস্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।

    Published by:Arka Deb
    First published: