বিদেশি ছাত্র-ছাত্রী টানতে বিভিন্ন দেশে কর্মশালা, প্রচার চালাচ্ছে প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

বিদেশি ছাত্র-ছাত্রী টানতে বিভিন্ন দেশে কর্মশালা, প্রচার চালাচ্ছে প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

দেশ বিদেশে গিয়ে কর্মশালা, প্রচার কর্মসূচী নিচ্ছে মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। মূলত বিদেশি পড়ুয়াদের বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়ে আসার জন্যই এ উদ্যোগ গ্রহণ করল তারা।

  • Share this:

SOMRAJ BANERJEE

#কলকাতা: চাকরি নয় এবার বিদেশি পড়ুয়া আনতে একাধিক পদক্ষেপ নিতে শুরু করল রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। দেশ বিদেশে গিয়ে কর্মশালা, প্রচার কর্মসূচী নিচ্ছে মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। মূলত বিদেশি পড়ুয়াদের বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়ে আসার জন্যই এ উদ্যোগ গ্রহণ করল তারা। এতদিন ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়াদের চাকরি দেওয়ার জন্য প্লেসমেন্ট পোর্টাল চালু করা হয়েছে। শুধু তাই নয় ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়াদের পড়াশোনাকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে একাধিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আর এবার আরও এক পা বাড়িয়ে বিদেশি পড়ুয়া টানার কৌশল শুরু করল মৌলানা আবুল কালাম আজাদ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

কি কি করার পরিকল্পনা নিয়েছে প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়? বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিভিন্নরকম শিক্ষামূলক মেলায় অংশগ্রহণ করার পাশাপাশি বিভিন্ন বিদেশী সংস্থা বা এজেন্সির সঙ্গে গাঁটছাড়া বাঁধতে পারেন কর্তৃপক্ষ। মূলত নেপাল, শ্রীলংকা, ভুটান, বাংলাদেশ, তাইল্যান্ড, আফ্রিকার মতো দেশগুলিতে প্রচার চালানোর প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কি কি কোর্স আছে, কেন প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে আসবেন পড়ুয়ারা, বিভিন্ন দিক তুলে ধরবে রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এর জন্য বিভিন্ন দল বা কমিটি করে দেওয়া হয়েছে। তাঁরাই বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে প্রচার কর্মসূচীর কাজ করবেন। প্রচার কর্মসূচির মাধ্যমে পড়ুয়াদের পড়তে আসার চাহিদা বাড়লে প্রয়োজনে সেই সব দেশে রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসও খোলা হবে। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ থেকে ১০ শতাংশ বিদেশি ছাত্রছাত্রীরা পড়তে আসেন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সেই সংখ্যাটা বাড়িয়ে ২৫ শতাংশের কাছাকাছি করতে চাইছেন।

এবার প্রশ্ন আসে কেন বিদেশি পড়ুয়ার দিকে ঝুঁকছে প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। কর্তৃপক্ষের মতে, এখন একটা প্রবণতা শুরু হয়েছে উচ্চশিক্ষার জন্য অনেকেই বিদেশে চলে যান। বিদেশ থেকে যদি অনেক পড়ুয়াকে এখানে আনা যায় তাহলে এখানকার ছেলেমেয়েদের মধ্যে ধারণা বদলাবে। তাঁরা এখানে পড়াশোনা করতে উৎসাহ পাবেন। জাতীয় রাঙ্কিংয়ে বিদেশী পড়ুয়ার সংখ্যার ওপর নম্বর থাকে। সে ক্ষেত্রে জাতীয় রাঙ্কিংয়ে অনেকটাই এগিয়ে যেতে পারবে প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এসব ছাড়াও এখানকার পড়ুয়ারা যেমন অন্যান্য দেশের ভাষা, সংস্কৃতি ইত্যাদি জানতে পারেন তেমনি ওখানকার পড়ুয়ারাও ভারতের সংস্কৃতি জানতে পারবেন।

পড়ুয়া টানার আগে বিদেশি বিনিয়োগ টানতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার বিভিন্ন দেশে রোড শো করেছে। কখনও মুখ্যমন্ত্রী নিজে সেই রোড শোয়ে হাজির থেকেছেন। আবার কখনো শিল্পমন্ত্রী অমিত মিত্র বা শিল্প দফতরের বড় কর্তা রাজ্যে বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ বোঝাতে বিদেশে পাড়ি দেন। আবার কখনও বিভিন্ন বণিকসভার মাধ্যমে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে বার্তা পাঠানো হয়। সরকারের দাবি, এর ফল হাতেনাতে পাওয়া গিয়েছে ৷ শিল্পপতিরা যেমন বিনিয়োগের প্রস্তাব দিয়েছেন, তেমনি বহু বিদেশি বিনিয়োগের কথা শুনিয়েছেন। এমনই রুট ঠিক করে চলেছে রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। যদিও এর জেরে কতটা ইতিবাচক সংকেত পাবে বিশ্ববিদ্যালয়, সেটার ফলাফল আসতে সময় লাগবে অনেকটাই এমনই মনে করছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

First published: 09:19:57 PM Dec 14, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर