কলকাতা

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

কোম্পানির ২ লাখ টাকা হাতিয়েও নিস্তার হল না, CCTV-র দৌলতে হাতেনাতে পাকড়াও কর্মী

কোম্পানির ২ লাখ টাকা হাতিয়েও নিস্তার হল না, CCTV-র দৌলতে হাতেনাতে পাকড়াও কর্মী

ওই কর্মী অফিস থেকে রওনা দেওয়ার আধ ঘন্টা পরে, ফোন করে অফিসে জানান, তার ২ লক্ষ টাকা আসার পথে রাস্তায় ব্যাগ সমেত হারিয়ে গিয়েছে।

  • Share this:

SHANKU SANTRA

#কলকাতা: চোর চুরি করলেও কিছু না কিছু নমুনা রেখে যায়। তবে মাথা খাটিয়ে একটি বুদ্ধি বের করেছিল একটি সংস্থার কর্মী। মালিকের ব্যাংকে জমা দেওয়ার নামে টাকা হারিয়ে গিয়েছে গল্প পেতেছিল সে। কিন্তু আজকের মত হাই টেকনোলজির যুগে ধরা পড়ে গেল সেই সংস্থার কর্মী।  অদ্ভুত এই ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতার নিউ আলিপুর এলাকাতে। অলিভিয়া রায় নামে এক রান্নার গ্যাসের মালকিন, তাঁর নতুন কর্মী সঞ্জীব ঠাকুরকে, জোকা অফিস থেকে নিউ আলিপুর ব্যাংকে ২ লক্ষ টাকা জমা করার জন্য ব্যাগে টাকা দিয়ে পাঠান। ওই কর্মী অফিস থেকে রওনা দেওয়ার আধ ঘন্টা পরে, ফোন করে অফিসে জানান, তার ২ লক্ষ টাকা আসার পথে রাস্তায় ব্যাগ সমেত হারিয়ে গিয়েছে।

সবে নতুন কর্মী, টাকার অঙ্কটাও খুব একটা কম নয়। সর্বনাশ হয়ে গিয়েছে জেনে, জোকা থেকে নিউ আলিপুর পর্যন্ত সারা রাস্তা চিরুণি তল্লাশি করেন  মালকিন। অবশেষে থানায় পুলিশের দ্বারস্ত হন। ঘটনাটি ঘটেছে ২৩ তারিখ দুপুর নাগাদ। মালকিন অলিভিয়া নিউ আলিপুর থানাতে এসে হারানোর অভিযোগ দায়ের করেন। তখন সঙ্গে নিয়ে আসা দুই কর্মীকে থানার অফিসাররা জিজ্ঞাসাবাদ করা শুরু করেন। সঞ্জীব ঠাকুর তার মনিবের সঙ্গে খুব স্বাভাবিক ভাবেই ছিল। পুলিশ তাঁর স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে শুরু করে। জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন দু’জন কিছুটা ভেঙে পড়েন। পুলিশকে তারা জানায়, ওরা দু’জনে নিউ আলিপুর পর্যন্ত গিয়েছিল। তদন্তকারীরা তখন ওদের কাছে, কোন কোন রাস্তা ব্যবহার করেছে, তার তথ্য চায়। প্রথমত যা বলেছিল, পুলিশ তার কোনও ছবি না পাওয়ার পর, সত্যি কথা বলার জন্য চাপ দিতে থাকে । এরপর সিসি ক্যামেরার ফুটেজে পুলিশ দেখতে পায়, অজন্তা সিনেমার কাছে ভ্যাটের পাশে পরিতক্ত ব্যাগ পড়ে রয়েছে। সেই পরিত্যক্ত ব্যাগটি সঞ্জীব ও সঙ্গে আর এক বন্ধু রমজান শেখ টাকা খালি করে ফেল দিয়েছে।  তারপরেই ওই দু’জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশের জেরায় তারা সমস্ত অপরাধ স্বীকার করে নেয়  । ওদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ২লক্ষ টাকা উদ্ধার হয়েছে। বর্তমানে টেকনোলজির যুগে, আমরা সবাই সুনির্দিষ্ট দৃষ্টি গোচরে আছি। অপরাধ করলেই ধরা পড়ে যাওয়া এখন আরও সহজ। যতদিন এগোবে স্থূল অপরাধ কমবে, ধারণা বিশেষজ্ঞদের।

Published by: Simli Raha
First published: September 26, 2020, 7:52 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर