পায়রা চুরিতে বাধা, ‘নিরাপত্তা’র দায়িত্বে থাকা বাঁদরের দু’হাত হাত কাটল যুবক !

পায়রা চুরিতে বাধা, ‘নিরাপত্তা’র দায়িত্বে থাকা বাঁদরের দু’হাত হাত কাটল যুবক !
Photo: News18 Bangla

পোষ্য পায়রাগুলিকে আগলে রাখত বাঁদরটি। ক্রমশই চোরেদের চক্ষুশূল হয়ে উঠেছিল সে।

  • Share this:

#কলকাতা: পোষ্য পায়রাগুলিকে আগলে রাখত বাঁদরটি। ক্রমশই চোরেদের চক্ষুশূল হয়ে উঠেছিল সে। কর্তব্য করতে গিয়ে জীবন দিতে হয়েছে। কিন্তু চুরি হতে দেয়নি। শহর কলকাতার বুকে প্রাণ রক্ষায় প্রাণ দেওয়ার নজিরবিহীন কাহিনি।

৩১/১ , কাশীপুর রোডের যাদব পরিবার। এ ছিল পরিবারের ক্ষুদে সদস্য, নাম ‘ভিলেন’। নামে ভিলেন হলেও পরিবার থেকে প্রতিবেশী, সকলেরই প্রিয় ছিল এই বাঁদর। পুজোয় নতুন জামা কাপড়। গঙ্গায় স্নান। পাড়াল লোকেদের সঙ্গে খুনসুঁটি। সারা পাড়া মাতিয়ে রাখত ভিলেন। কাঁধে গুরু দায়িত্বও ছিল। যাদব বাড়িতে পোষ্য পায়রাদের নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিল ভিলেন। তাই এই বাড়িতে ছিল চোরেদের নো এট্রি।

মঙ্গলবার রাতে সেই ভিলেনই তার কর্তব্যে অবিচল থাকতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত মৃত্যুর মুখে পড়ল। বাড়ির লোকেরা ছাদ থেকে উদ্ধার করে বাঁদরের দু'হাত কাটা দেহ। আর তার কারণও পরিস্কার।

কাশীপুর থানায় অভিযোগ জানায় পরিবার। আগেও, এই বাড়িতে পায়রা চুরি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েছিল এলাকারই যুবক মহম্মদ নাসিম। এদিন কিছু জিজ্ঞাসা করার আগেই তাঁর জবাব, সে কিছু করেনি। এরপরই বণ্যপ্রাণি আইনে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

তবে যে আইনে যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে, তা অনেক পুরনো। শাস্তির বিধানও নেই। তাই আইন পরিবর্তনের দাবি উঠেছে। পায়রা বাঁচাতে গিয়ে ভিলেনের মৃত্যু সেই দাবিকে আরও জোরাল করল।

First published: 09:31:58 AM Nov 23, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर