এ কোন মতুয়া সমাবেশ! এড়ালেন মমতাবালা

এ কোন মতুয়া সমাবেশ! এড়ালেন মমতাবালা
  • Share this:

Sourav Guha

#কলকাতা: নাগরিক সংশোধনী বিলের বিরোধীতায় মঙ্গলবার ধর্ণায় বসে ""সরবো ভারতীয় মতুয়া মহাসংঘ ", আর তা ঘিরেই জটিলতা তুঙ্গে । কারণ, মতুয়াদের স্বীকৃত সংগঠনটির নাম " অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসংঘ " যে সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা  ছিলেন বীণাপানি দেবী।  তাঁর অবর্তমানে এই সংগঠনটির দাবিদার সাংসদ শান্তনু ঠাকুর ও বিদায়ী সাংসদ মমতাবালা ঠাকুর।  দু’জনেই একই সংগঠন ও একই রেজিস্ট্রেশন  নম্বর ব্যবহার করেন।  এই নিয়ে আদালত পর্যন্ত বচসা গড়িয়েছে । আরও একটি নাম ব্যবহার করা হয় "সারা ভারত মতুয়া মহাসংঘ "। কিন্তু গান্ধী মূর্তির পাদদেশে মতুয়া সমাবেশ এ মুখ্যমন্ত্রীর ছবি দেওয়া যে পোস্টার ব্যবহার করা হয়েছে,  তাতে নাম রয়েছে " সরবো ভারয়ীয় মতুয়া মহাসংঘ ", এটা কোন সংগঠন?  বিক্ষোভ কর্মসূচির অন্যতম আয়োজক জ্যোতিপ্রিয়  মল্লিকের ব্যাখ্যা "এটা সংগঠনের ইংরেজী নামের বাংলা "।

মমতাবালাকে নিয়ে জটিলতা  

প্রথমে জানা গিয়েছিল, তিনি থাকবেন। কিন্তু মঙ্গলবার মমতা বালা ঠাকুর জানান, তিনি গান্ধীমূর্তির মতুয়া সমাবেশ ঘিরে কিছু জানেনই না। এর পরই প্রশ্ন আরও জটিল হয়।।  সমাবেশে উপস্থিত এরা কারা। সাধারণত মতুয়াদের দুটি ভাগ। একটির নেতা মমতা বালা,  অন্যটির শান্তনু ঠাকুর। TMC-এর সঙ্গে যান মমতাবালা। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর ছবি নিয়ে বসা মতুয়া  বিক্ষোভ সমাবেশ নিয়ে কিছুই জানেন না মমতাবালা।।  তবে এই মতুয়ারা কারা ?  ঠাকুর বাড়ির সঙ্গে এদের সম্পর্কই বা কি?  উত্তরে  জ্যোতিপ্রিয়  বলেন " এরা মতুয়া,  সবাই কে যে ঠাকুর বাড়ির সংগে সম্পর্ক  রাখতে হবে তার কি কারণ আছে?  এদিনের সভায় যদিও সকাল থেকেই ছিলেন মতুয়া মহাসংঘ-র নেতা ও টিএমসি নেতা ধ্যানেশ নারায়ণ গুহ। মঞ্চে এসেছিলেন ঠাকুর নগর থেকে বেশ কিছু মতুয়া ধর্ম অনুগামী।।  এছাড়া পানিহাটি,  বারাসাত থেকেও আসেন বেশ কিছু মানুষ । কিন্তু মমতা বালা কে নিয়ে জটিলতা কিসের ? সোমবার জ্যোতিপ্রিয়র সঙ্গে মমতাবালার কি কথা হয় ?

সোমবার,  এই বিক্ষোভে শামিল হওয়ার জন্য মমতা বালার কাছে ফোন যায়। সূত্রের খবর মমতা বালা বলেন,  আমি অসুস্থ আমি যাচ্ছি  না।  একইসঙ্গে বেশ কিছু বিষয়ে ক্ষোভ উগড়ে দেন মমতা বালা।  কি সেই ক্ষোভ?  সূত্রের দাবি,  সম্প্রতি  বনগাঁ লোকসভা পুনরুদ্ধারের লক্ষ্যে ২৫ জনের কমিটি করেছে টিএমসি দল। মমতাবালার কাছে খবর আসে সেই কমিটিতে তিনি নেই।  যদিও এদিন জ্যোতিপ্রিয় বলেন, উক্ত কমিটির মাথায় মমতাবালা ঠাকুরই আছেন।  ওনাকে কেউ ভুল বুঝিয়েছে।  তবে কি মমতাবালার বিক্ষোভে  শামিল না হওয়ার পেছনে কি দলের সঙ্গে তার দূরত্ব?  সঙ্গত কারণেই উঠছে প্রশ্ন।  যদিও  জ্যোতিপ্রিয়র দাবি।  বুধবার মমতাবালা আসবেন বিক্ষোভ সমাবেশে।

First published: 09:07:48 PM Dec 10, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर