‘মহরম-দুর্গাপুজো এক সময়ে পড়েছে, এটা আমি করিনি, পঞ্জিকাতে রয়েছে’: মমতা

‘মহরম-দুর্গাপুজো এক সময়ে পড়েছে, এটা আমি করিনি, পঞ্জিকাতে রয়েছে’: মমতা
mamta-Banerjee

দুর্গাপুজোর ভাসান নিয়ে বিতর্ক চলছেই ৷ বহাল রয়েছে বিসর্জন নিয়ে ধন্দ ও ধোঁয়াশা ৷

  • Share this:

#কলকাতা: দুর্গাপুজোর ভাসান নিয়ে বিতর্ক চলছেই ৷ বহাল রয়েছে বিসর্জন নিয়ে ধন্দ ও ধোঁয়াশা ৷ কলকাতা হাইকোর্টে বিসর্জন মামলার রায় হল না আজও। মামলা থেকে অব্যহতি চাইলেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নিশীতা মাত্রে। এরই মাঝে সোমবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফের জানিয়ে দিলেন, ‘দুর্গাপুজো নিয়ে কোনওরকম রাজনীতি নয় ৷’

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী জানালেন,

মহরম আর দুর্গাপূজা এক সময়ে পড়েছে , এটাতো আমি করিনি । পাঁজি যারা লেখে তারা গ্রহ নক্ষত্র দেখে করেছে । তা নিয়ে কেউ কেউ নোংরামি করছে । সিঁদুর খেলা, বিসর্জন সব চলবে ৷

মমতার কথায়,

দুর্গা তো বলেনি নকল রামের পূজা করতে হবে । আমরা রামের বিরোধী নই।।পাড়ায় পাড়ায় দেখে রাখতে হবে , যেন কেউ দাঙ্গা না করে ৷

বহাল রইল বিসর্জন নিয়ে ধন্দ ও ধোঁয়াশা ৷ কলকাতা হাইকোর্টে বিসর্জন মামলার রায় হল না আজও। মামলা থেকে অব্যহতি চাইলেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নিশীতা মাত্রে।

আজও বিসর্জন মামলার রায় হল না। মামলাকারীদের হাজারো প্রশ্নবাণে অসন্তুষ্ট বিচারপতিরা জানিয়ে দেন, এই মামলায় আরও শুনানির প্রয়োজন। সোমবারই অবসর নিলেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নিশীতা মাত্রে। তাই এই মামলা থেকে অব্যহতি চাইলেন তিনি। বুধবার রাকেশ তিওয়ারি ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব নিয়ে মামলার শুনানির দিন ঠিক করবেন।

সোমবার আদালতে রাজ্য জানায়, দশমীর দিন রাত দশটা পর্যন্ত ঘাটে পৌঁছতে পারলেই বিসর্জন দেওয়া যাবে। সন্ধে ৬ টার বদলে সময় বাড়িয়ে রাত দশটা করার কথা আগেরদিনই ঘোষণা করা হয়েছে । কিন্তু সময় পরিবর্তনের পরও পাল্টা বেশ কিছু প্রশ্ন তোলেন মামলাকারীরা। আরও শুনানির প্রয়োজন বলে মনে করেন প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ ।

পুজো ও মহরমে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার উদ্দেশ্যে একাদশীর দিন বিসর্জন বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ গতবারের মতো এবারও মহরমের দিন বিসর্জন হবে না। পরিবর্তে লক্ষ্মীপুজোর আগের দিন পর্যন্ত বিসর্জন চলবে।

৩০ সেপ্টেম্বর বিজয়া দশমী ৷ এর আগে রাজ্য সরকার জানায়, ওইদিন সন্ধে ৬ পর্যন্ত বিসর্জন দেওয়া যাবে ৷ পঞ্জিকামতে বিসর্জনের সময় আরও বাড়ানোর জন্য আবেদন জানান বহু বাড়ির পুজো সহ বারোয়ারি পুজোর উদ্যোক্তারা ৷ সেই আবেদন মেনেই বিসর্জনের সময় বাড়িয়ে রাত ১০টা করে রাজ্য সরকার ৷

অন্যদিকে, বিসর্জনের সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন জানিয়ে হাইকোর্টে মামলা হয়। মামলাকারী আবেদন করেন,

- দশমীর রাত ১টা ৩৬ পর্যন্ত বিসর্জনের সময়সীমা বাড়ানো হোক

- একাদশীর দিন অর্থাৎ মহরমের দিনও বিসর্জনের অনুমতি দেওয়া হোক

আর্জি শুনে ১৫ সেপ্টেম্বরের শুনানিতে বিসর্জনের সময় রাত ১টা ৩৬ পর্যন্ত বাড়ানো যায় কিনা রাজ্য সরকারকে তা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেন কলকাতা হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি ৷ একইসঙ্গে বিচারপতি নিশীতা মাত্রের পুলিশ প্রসাশনের সামনে একটি প্রশ্ন রাখেন,

মুম্বইতে গণেশপুজো-মহরমের মিছিল একসঙ্গে হতে পারে ৷ মুম্বই পুলিশ পারলে আপনারা কেন পারবেন না?

এতদসত্ত্বেও এদিনও বিসর্জনের সময় নিয়ে বিতর্কের কোনও সমাধান বেরোল না ৷ আপাতত দশমীর দিন বিসর্জনের সময়সীমা রাত দশটা ৷

First published: 08:46:19 PM Sep 18, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर