মমতার সতর্কবাণীতে ধন্দে বিজেপি, গেড়ুয়া শিবিরের সঙ্গে যোগসাজোশের অভিযোগে বিধায়কদের সতর্ক করেছেন মমতা

মমতার সতর্কবাণীতে ধন্দে বিজেপি। গেড়ুয়া শিবিরের সঙ্গে যোগসাজোশের অভিযোগে, দলের কয়েকজন বিধায়ককে সতর্ক করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Feb 05, 2017 02:52 PM IST
মমতার সতর্কবাণীতে ধন্দে বিজেপি, গেড়ুয়া শিবিরের সঙ্গে যোগসাজোশের অভিযোগে বিধায়কদের সতর্ক করেছেন মমতা
File Photo
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Feb 05, 2017 02:52 PM IST

#কলকাতা: মমতার সতর্কবাণীতে ধন্দে বিজেপি। গেড়ুয়া শিবিরের সঙ্গে যোগসাজোশের অভিযোগে, দলের কয়েকজন বিধায়ককে সতর্ক করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতে বিজেপির গুরুত্ব বেড়েছে বলেই মনে করছেন একাংশ। অনেকের আবার দাবি, এ শুধুই তৃণমূল নেত্রীর কৌশল। তাই মমতার সতর্কবাণীকে কীভাবে কাজে লাগানো হবে, তা নিয়ে এখন ধোঁয়াশা বিজেপির মধ্যেই।

তৃণমূল কংগ্রেসে ভাঙনের চেষ্টা শুরু হয়েছিল দু'হাজার চোদ্দোর লোকসভা ভোটের সময় থেকেই। দু'হাজার ষোলোর বিধানসভা ভোটেও যে চেষ্টা জারি রাখে বিজেপি। কিন্তু বড়মাপের নেতা-মন্ত্রী বলতে তৃণমূলের কেউই বিজেপির চৌকাঠে পা রাখেননি। তবে বিধায়ক হয়েও যারা সেভাবে দলে গুরুত্ব পাননি, তাঁদের কেউ কেউ বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছেন বলে দাবি করেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে কারণে দলের তিন বিধায়ককেও সতর্ক করেন তিনি। ফলে রাজ্যে বিজেপির গুরুত্ব যে বেড়েছে, তা তৃণমূল সুপ্রিমোর এই সতর্কবাণী থেকেই স্পষ্ট বলে দাবি গেড়ুয়া শিবিরের একাংশের।

যদিও মমতার সতর্কবাণীকে ঘিরে ধন্দে বিজেপিরই একাংশ। এই সতর্কবাণীকে তারা তৃণমূল নেত্রীর নয়া কৌশল হিসাবে দেখছেন। তাদের মতে, তৃণমূলের কেউ বিজেপি-র সঙ্গে সত্যিই যোগাযোগ রাখছে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়। বরং কেউ যদি বিরোধী শিবিরে যোগদানের কথা ভেবে থাকে, তাঁদের আগাম সতর্ক করাই তৃণমূল নেত্রীর প্রধান উদ্দেশ্য।

First published: 02:50:41 PM Feb 05, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर