মুখ্যমন্ত্রীর ভাষায় হতবাক ! বিবৃতিতে জানালেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী

মুখ্যমন্ত্রীর ভাষায় হতবাক ! বিবৃতিতে জানালেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী

নজিরবিহীনভাবে রাজ্যপালের সমালোচনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ সাংবাদিক বৈঠকে প্রবল ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, রাজ্যপাল তাঁকে অসম্মান করেছেন ৷

  • Share this:

#কলকাতা: নজিরবিহীনভাবে রাজ্যপালের সমালোচনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ সাংবাদিক বৈঠকে প্রবল ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, রাজ্যপাল তাঁকে অসম্মান করেছেন ৷ শুধু তাই নয়, একইসঙ্গে কেন্দ্রের শাসক দল এবং রাজ্যের বিরোধী গেরুয়া শিবিরের হয়ে কথা বলছেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী বলেও অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৷

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই মন্তব্যের পর পরই রাজ্যপালের তরফ থেকে দেওয়া হল বিবৃতি ৷ রাজ্যপালের বিবৃতিতেও স্ববিরোধিতা ৷ বিবৃতি অনুযায়ী, গোপনীয়তা বজায় থাকা উচিত ৷ রাজ্যপাল ও মুখ্যমন্ত্রীর কথোপকথনের গোপনীয়তা ৷ তারপরেও নিজের বক্তব্য প্রকাশ্যে এনে যুক্তি তৈরি মুখ্যমন্ত্রীর ভাষা-ভঙ্গি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ৷ একইসঙ্গে নিজে চুপ থাকতে পারেন না জানিয়েছেন কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য পুরোপুরি অস্বীকার করা হয়নি বিবৃতিতে ৷

press

বিবৃতিতে রাজ্যপাল জানিয়েছেন, তিনি মুখ্যমন্ত্রীর ভাষায় হতবাক। সেই সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে রীতিমতো সাংবিধানিক রীতি ভঙ্গের অভিযোগও তুলেছেন রাজ্যপাল। প্রেস বিবৃতিতে কেশরীনাথ ত্রিপাঠী জানিয়েছেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যপাল কথা গোপনে থাকবে। তা কেউ প্রকাশ্যে আনতে পারে না। রাজ্যপাল রাজ্যের শীর্ষে থাকেন৷’

রাজ্যপালের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান ৷ রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গে সরাসরি সংঘাত মুখ্যমন্ত্রীর ৷ সাংবাদিক বৈঠক ডেকে এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘রাজ্যপাল আমাকে অসম্মান করেছেন ৷ বিজেপি-র হয়ে কথা বলছেন রাজ্যপাল ৷ তাঁর কথা অনেকটা বিজেপি ব্লক সভাপতির মতো শোনাচ্ছে ৷ রাজ্যপালের কথায় অসম্মানিত হয়েছি ৷ রাজ্যপাল আমাকে থ্রেট করতে পারেন না ৷ রাজ্যপালের দয়ায় ক্ষমতায় আসিনি ৷ আমার সঙ্গে এভাবে কথা বলবেন না ৷ আমি রাজ্যপালকে একথা বলেছি ৷’

এখানেই শেষ নয়, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, তিনি এতটাই অপমানিত বোধ করেছেন যে পদত্যাগের কথাও ভেবেছিলেন ৷ রাজ্যপালের বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ তুলছেন মুখ্যমন্ত্রী? এমনটা সম্ভবত দেখা যায়নি ভারতীয় রাজনীতিতে ৷

রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী বলেন, রাজ্যে এসব কী হচ্ছে? আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। প্রশাসন কি করছে? পুলিশ - আধাসেনা কোথায়? কেন কড়া হয়নি রাজ্য? এদিন রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর আলোচনার সময়ই এই বিতর্কের সূত্রপাত ৷

First published: 08:41:50 PM Jul 04, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर