কৃষক আন্দোলন থেকে নজর ঘোরাতে যুদ্ধের হাওয়া তুলবে কেন্দ্র, আশঙ্কা মমতার

কৃষক আন্দোলন থেকে নজর ঘোরাতে যুদ্ধের হাওয়া তুলবে কেন্দ্র, আশঙ্কা মমতার

মেয়ো রোডের সভায় মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়৷

মুখ্যমন্ত্রী এ দিন বলেন, কৃষকদের আন্দোলনের থেকে নজর ঘোরাতে তলায় তলায় নাটকের চক্রান্ত চলছে৷

  • Share this:

    #কলকাতা:কৃষক আন্দোলন থেকে নজর ঘুরিয়ে দিতে এবার যুদ্ধের জিগিড় তুলতে পারে নরেন্দ্র মোদি সরকার৷ মেয়ো রোডে গান্ধি মূর্তির নীচে কৃষকদের সমর্থনে সভা থেকে এমনই আশঙ্কার কথা প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পাশাপাশি এ দিনও বার বারই নতুন তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে সরব হয়েছেন তিনি৷

    মুখ্যমন্ত্রী এ দিন বলেন, কৃষকদের আন্দোলনের থেকে নজর ঘোরাতে তলায় তলায় নাটকের চক্রান্ত চলছে৷ তিনি বলেন, 'যখনই কোনও বড় দাঙ্গা করে তার সাথে আরও একটা প্ল্যান করে৷ আজকে কৃষি আন্দোলন যাতে দানা বাঁধতে না পারে তার জন্য নাটক, নাটক খেলা চলছে৷ কখনও বলবে পাকিস্তান আমাকে আক্রমণ করছে, কখনও বলবে ইজরায়েল, নেপাল আক্রমণ করছে৷ সব এক হও, আর চাষিদের কথা ভুলে যাও৷ প্রত্যেকটা আন্দোলন নষ্ট করার জন্য ওদের পকেটে একটা চাবিকাঠি আছে৷ সব তৈরি করা আছে৷ '

    মুখ্যমন্ত্রী এ দিন আরও দাবি করেন, আলু, ভোজ্য তেল, পেঁয়াজের মতো জিনিসগুলিকে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আইনের আওতায় রাখতেই হবে৷ বর্তমান আইন লাগু হলে গ্রীষ্মকালে বাজারে আলুর মতো সব্জি পাওয়া মুশকিল হবে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদির সরকার কোনও সংবিধান, যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো মানছে না৷ বিজেপি-র সরকার যখন যা ইচ্ছে তাই করছে৷ রাজীব গান্ধির চারশো সাংসদ ছিল৷ তাও এ রকম করার সাহস পায়নি৷ বিজেপি-র তাও নেই৷ তিনশোর কাছাকাছি৷

    নতুন সংসদ ভবন তৈরি না করে সেই টাকাও কৃষকদের মধ্যে বণ্টন করার দাবি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, 'কয়েক হাজার কোটি টাকা দিয়ে নতুন সংসদ ভবন তৈরি করছে৷ আমার মতে যে সংসদ ভবন ছিল সেটা দিয়েই চলে যেত৷ এই টাকা গরিব কৃষকদের মধ্যে দিয়ে দেওয়া যেত৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: