"ভোটের দিন এজেন্ট বসতে দেয়নি বলে ন্যাকাকান্না কাঁদলে চলবে না"

"ভোটের দিন এজেন্ট বসতে দেয়নি বলে ন্যাকাকান্না কাঁদলে চলবে না"

চোখে চোখ রেখে লড়াই চাইছেন মমতা।

প্রয়োজনে 'পাড়ার ঝগড়ুটে মহিলাকে' বুথ এজেন্ট করার পরামর্শ দিচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। আসলে মমতা চাইছেন চোখে চোখ রেখে লড়তে পারবে এমন লোক।

  • Share this:

#কলকাতা: ভোটের দিন বুথে এজেন্ট বসতে দিচ্ছে না বলে ন্যাকাকান্না কাঁদলে হবে না, সাহস করে বুথে ঢুকুন। তৃতীয় দফা ভোটের আগে দলের বুথ এজেন্টদের এমনটাই বার্তা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। একই সঙ্গে তাঁর বক্তব্য, যারা বুথে বসতে পারবেন না তাঁদের আগে ভাগে সরে যাওয়াই ভালো। প্রয়োজনে 'পাড়ার ঝগড়ুটে মহিলাকে' বুথ এজেন্ট করার পরামর্শ  দিচ্ছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। আসলে মমতা চাইছেন চোখে চোখ রেখে লড়তে পারবে এমন লোক।

 নন্দীগ্রামের ভোটের দিন একাধিক তৃণমূল কর্মী অঅভিযোগ করেছিলেন, তাদের বুথে বসতে দিচ্ছে না বিজেপি। পাল্টা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন তাঁর দলের কর্মীদের বলেছেন, বুথে বসতেই হবে। পিছিয়ে আসলে চলবে না। রাজনৈতিক মহলের মতে, ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে লড়াই হবে এই বার্তা আগেই দিয়েছেন মমতা। এদিন এটা আরও একবার মনে করিয়ে দিলেন তিনি।

 ভোটের পরে চা আর বিরিয়ানি খাবেন না. বুথ কর্মীদের এমন বার্তা আজও দিলেন দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের কর্মীদের এমন সচেতন করার কারণ কী?  এই নিয়ে রাজনৈতিক মহলে  চর্চাও চলছে। প্রতিদিন রাজনৈতিক সমাবেশের মঞ্চে বক্তব্যের শেষ দিকে এসে মমতা বন্দোপাধ্যায় সতর্ক করছেন তাঁর দলের ভোট কর্মীদের। বিশেষ করে যারা বুথ এজেন্ট, যারা পোলিং এজেন্ট তাদেরকে তিনি বারবার বাড়ির খাবার ব্যতীত অন্য খাবার খেতে বারণ করছেন।  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলছেন, বুথ কর্মীরা তাঁর দলের সম্পদ। ‌তাঁর ধারণা চক্রান্ত করে কেউ বা কারা তাদের খাবারের মধ্যে ঘুমের ওষুধ বা এমন কিছু মিশিয়ে দিতে পারে। আর সুযোগ নিতে পারে তাদের নেশাগ্রস্থতার।

মমতা বন্দোপাধ্যায়ের দাওয়াই, "নির্বাচনের পরে আগামী একমাস পাহাড়া দিতে হবে ইভিএম মেশিন। যে সব ভোটের গণনা কেন্দ্র আছে। সেখানে সারাক্ষণ নজর রাখতে হবে। যারা দলের কর্মী তাদের একটা টিম বানিয়ে সেখানে থাকতে হবে। যারা সব সময় নজর রাখবে গণণা কেন্দ্রের ওপরে।" এই সব কর্মীদের মমতা  জানিয়েছেন, ভোট মেটার পরেও দায়িত্ব গনণা কেন্দ্রে গিয়ে নজর রাখা। সে কারণেই এই বিশেষ দল গঠন করতে বলা হয়েছে।

ভোটের দিন পোলিং এজেন্টদের সাবধানে কাজ করতে বলছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। মক পোলিং ৩০ বার করতে বলেছেন। দু'বার ইভিএম সুইচ অফ সুইচ অন করতে বলেছেন। ভিভিপ্যাট মেশিন ভালো করে পরীক্ষা করতে বলেছেন। রাজনৈতিক মহলের মতে, ইভিএমের স্বচ্ছতা নিয়ে এর আগেও প্রশ্ন তুলেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। তাই ভোটের আগে বারবার সাবধান করে দিচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁদের পোলিং ও বুথ এজেন্টদের।

Published by:Arka Deb
First published: