Mamata Banerjee to visit Yaas hit areas: ইয়াসে বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাচ্ছেন মমতা! তিন জেলায় করবেন রিভিউ মিটিং

ইয়াস বিপর্যস্ত এলাকায় যাচ্ছেন মমতা৷

আকাশপথে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস (Yaas Cyclone) এবং তার জেরে জলস্ফীতি হয়ে প্লাবিত এলাকাগুলি পরিদর্শন করবেন মু্খ্যমন্ত্রী৷

  • Share this:

#কলকাতা: ইয়াসের দাপটে রাজ্যের সবথেকে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলি পরিদর্শনে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আগামী শুক্রবার হেলিকপ্টারে প্রথমে উত্তর চব্বিশ পরগণার হিঙ্গলগঞ্জ এলাকা পরিদর্শন করবেন মুখ্যমন্ত্রী৷ সেখান থেকে তিনি যাবেন দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার সাগরে৷ সবশেষে তিনি যাবেন পূর্ব মেদিনীপুরের দিঘায়৷ আকাশপথে ঘূর্ণিঝড় এবং তার জেরে জলস্ফীতি হয়ে প্লাবিত এলাকাগুলি পরিদর্শন করবেন মু্খ্যমন্ত্রী৷ সন্দেশখালি, সাগর এবং দিঘা- তিন জায়গাতেই প্রশাসনিক পর্যালোচনা বৈঠক করবেন তিনি৷ শনিবার কলকাতায় ফিরবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ দিন নবান্নে এ কথাই জানিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে এই সফরে থাকবেন মুখ্যসচিব সহ প্রশাসনের শীর্ষ কর্তারা৷

মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, আগামী ২৮ মে শুক্রবার প্রথমে কলকাতা থেকে হেলিকপ্টারে উত্তর চব্বিশ পরগণার হিঙ্গলগঞ্জ এলাকা পরিদর্শন করবেন মুখ্যমন্ত্রী৷ সেখানে ক্ষয়ক্ষতির খতিয়ান নেওয়ার পাশাপাশি এবং কীভাবে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পুনর্বাসন ও ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া হবে তা নিয়ে  সন্দেশখালির ধামাখালিতে রিভিউ মিটিং করবেন তিনি৷ এর পর দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার সাগরে পৌঁছেও একই ভাবে প্রশাসনিক বৈঠক করবেন তিনি৷ সেখান থেকে তিনি চলে যাবেন দিঘায়৷ ২৯ তারিখ দিঘাতেও প্রশাসনিক বৈঠক করবেন মমতা৷

আবহাওয়া দফতরের সতর্কবার্তা মিলিয়েই এ দিন ওড়িশার বালেশ্বরের কাছে ইয়াস আছড়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে পূর্ব মেদিনীপুরেও ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডব শুরু হয়ে যায়৷ সমুদ্রে ব্যাপক জলোস্ফীতি ঘটায় প্লাবিত হয় দিঘা, মন্দারমণি৷ তার সঙ্গে ছিল ঝড়ের দাপট৷ অন্যদিকে উত্তর এবং দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে ঝড়ের দাপট তুলনামূলক ভাবে কিছুটা কম হলেও সমুদ্র এবং নদীর জলস্তর বেড়ে বহু এলাকায় কার্যত বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে৷ গোটা রাজ্যে ১৩৪টি নদী বাঁধ ভেঙেছে৷ ঘূর্ণিঝড়ের সঙ্গে পূর্ণিমার ভরা কোটালে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়৷ এ দিন রাতে জোয়ারের সময় ফের একবার উপকূলবর্তী এলাকাগুলি নতুন করে প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে৷

মুখ্যমন্ত্রী এ দিন নবান্নে জানিয়েছেন, প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে ইয়াসের দাপটে রাজ্যে অন্তত ১ কোটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন৷ ঝড়ের দাপটে কয়েক লক্ষ বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে৷ নোনা জল ঢুকে প্রচুর কৃষি জমি নষ্ট হওয়ার আশঙ্কাও করা হচ্ছে৷ মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, পূর্ব মেদিনীপুরের দিঘা, রামনগর, নন্দীগ্রাম এবং দুই চব্বিশ পরগণার হিঙ্গলগঞ্জ, পাথরপ্রতিমা এবং সন্দেশখালিতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ যথেষ্ট বেশি৷ তবে ক্ষয়ক্ষতির মোট হিসেব পেতে অন্তত ৭২ ঘণ্টা সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ সবমিলিয়ে ১৫ লক্ষ মানুষকে নিরাপদে সরিয়ে নেয় রাজ্য প্রশাসন৷ প্রাথমিক ভাবে ১০ কোটি টাকার ত্রাণ পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

Somraj Bandopadhyay

Published by:Debamoy Ghosh
First published: