আমার জন্য শুধু ওকে কথা শুনতে হয়! অভিষেক সম্পর্কে বললেন মমতা

আমার জন্য শুধু ওকে কথা শুনতে হয়! অভিষেক সম্পর্কে বললেন মমতা
তৃণমূল নেত্রী তাঁর ভাইপোকে অগ্রাধিকার দেন। এমন অভিযোগ এনেছেন রাজনৈতিক মহলের অনেকেই। এ প্রসঙ্গেও আজ কথা বললেন তিনি। জানালেন যে তাঁর পুরো পরিবারই রাজনীতি করেছে এবং ছোট থেকেই অভিষেকেরও আগ্রহ রয়েছে।

তৃণমূল নেত্রী তাঁর ভাইপোকে অগ্রাধিকার দেন। এমন অভিযোগ এনেছেন রাজনৈতিক মহলের অনেকেই। এ প্রসঙ্গেও আজ কথা বললেন তিনি। জানালেন যে তাঁর পুরো পরিবারই রাজনীতি করেছে এবং ছোট থেকেই অভিষেকেরও আগ্রহ রয়েছে।

  • Share this:

    #পৈলান: আমাকে যা বলার বলুন। আমার পরিবারের বউদের ও ছোটদের বলবেন না। ডায়মন্ড হারবারের পৈলানের কর্মী সম্মেলন থেকে বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গে জানালেন ছোট বেলা থেকেই কী ভাবে রাজনীতি নিয়ে আগ্রহী ছিলেন তাঁর ভাইপো তথা তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

    তৃণমূল নেত্রী তাঁর ভাইপোকে অগ্রাধিকার দেন। এমন অভিযোগ এনেছেন রাজনৈতিক মহলের অনেকেই। এ প্রসঙ্গেও আজ কথা বললেন তিনি। জানালেন যে তাঁর পুরো পরিবারই রাজনীতি করেছে এবং ছোট থেকেই অভিষেকেরও আগ্রহ রয়েছে। তিনি বলছেন, "অভিষেক আমার কাছে অগ্রাধিকার পায় না। আমায় যখন হাজরায় মারা হয়েছিল, তখন ও জন্মেছে, খুবই ছোট। তখন থেকেই ও একা কংগ্রেসের পতাকা নিয়ে মিছিল নিয়ে করত। নিজেই বলত দিদিকে মারলে কেন জবাব দাও, জবাব দাও।"

    এর পরেই মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় জানিয়েছেন, এক সময়ে অভিষেকের উপরে হামলা হয়েছে, যার জন্য তিনি আজও এক চোখে দেখতে পান না। তিনি বলছেন, "পরিবারের কাউকে বিদেশে যেতে দিইনি। ওরাও তো বিদেশে চলে যেতে পারত। অভিষেককে দুর্ঘটনায় মারার চেষ্টা করা হয়নি? ও একটা চোখে এখনও দেখতে পায় না। আর আমার জন্য ওকে এত কথা শুনতে হয়। আমায় যা খুশি বলুন। আমার বাড়ির বউদের আর ছোটদের কিছু বলবেন না। ওদের আমি খুব ভালোবাসি।"


    অভিষেকের চোখের অবস্থা কেমন সেই বর্ণনাও দেন তিনি। মমতা বলছেন, "আমরা বাড়িতে থাকি বলে জানি। চোখের মণিটাই উপড়ে এলে কতটা কষ্ট হয়। ওকে তো ডেপুটি মিনিস্টার বা মুখ্যমন্ত্রী করিনি। আমি বলেছিলাম, পার্টি কর। লোকসভায় দাঁড়াতে হবে না। ওই বলল, আমি মানুষের দ্বারা নির্বাচিত হব। লোকসভায় দাঁড়াব। রাজ্যসভায় না।"

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    লেটেস্ট খবর