• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • MAMATA BANERJEE REQUESTS SUPREME COURT TO INTERVENE IN PHONE TAPPING CASE DMG

Mamata Banerjee 21 July: ফোনে আড়ি পাতা কাণ্ডে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করুক সুপ্রিম কোর্ট, আর্জি মমতার

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

একুশের জুলাইয়ের বক্তব্যের শুরু থেকেই ফোনে আড়ি পাতা নিয়ে সরব হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee 21 July) ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: ফোনে আড়ি পাতা কাণ্ডের প্রকৃত সত্য উদঘাটন সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপ দাবি করলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ দিন একুশে জুলাইয়ের মঞ্চ থেকেই এই দাবি তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের কাছে তাঁর আর্জি, ফোনে আড়ি পাতা কাণ্ডে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করুক সুপ্রিম কোর্ট৷ তা না হলে সুপ্রিম কোর্টের নজরদারিতে বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করে প্রকৃত সত্য উদঘাটন করা হোক৷

    একুশের জুলাইয়ের বক্তব্যের শুরু থেকেই ফোনে আড়ি পাতা নিয়ে সরব হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি অভিযোগ করেন, বিরোধী নেতারা তো বটেই, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের ফোনেও নজরদারি চালানো হচ্ছে৷ এই প্রসঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের প্রতি আমরা প্রত্যেকে শ্রদ্ধাশীল৷ আপনারা কি স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করতে পারেন না? বিচারপতি, রাজনৈতিক দলের নেতা, প্রত্যেকের ফোনে আড়ি পাতা হচ্ছে৷ ফোনগুলি রেকর্ডারে পরিণত হয়েছে৷ আপনারা যদি বাড়ির লোকের সঙ্গে কথা বলেন, তাও রেকর্ড হয়ে যাবে৷ দয়া করে দেশকে বাঁচান৷ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মামলা করুন৷ নাহল সিট গঠন করুন৷ সুপ্রিম কোর্টের নজরদারিতে সিটের তদন্ত হোক৷ কাদের ফোনে আড়ি পাতা হয়েছিল, তা সামনে আসুক৷'

    একই সঙ্গে তিনি বলেন, 'আমার ফোনে তো নজরদারি চালানো হয়েইছে৷ অভিষেক, প্রশান্ত কিশোরের ফোনেও নজরদারি চললে আমার কথাও রেকর্ড হয়েছে৷ কারণ ওদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে৷ বহু সাংবাদিকের সঙ্গেও আমার কথা হয়৷'

    মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, ফোনে আড়ি পেতে গণতন্ত্রের তিনটি স্তম্ভকেই ধ্বংস করে দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, নির্বাচনী ব্যবস্থা, বিচার ব্যবস্থার পাশাপাশি সংবাদমাধ্যমের উপরেও নজরদারি চালানো হচ্ছে৷ মমতা বলেন, 'আজকে গণতন্ত্রকে একমাত্র বাঁচাতে পারে বিচারব্যবস্থা, দেশের মানুষ আর রাজনৈতিক দলগুলি৷ আমরা যদি এগিয়ে না আসি তাহলে দেশের মানুষ আমাদের ক্ষমা করবে না৷'

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: