• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • MAMATA BANERJEE INFORMS MORE THAN ONE FEMALE MEMBER FROM EACH FAMILY CAN APPLY FOR LAXMIR BHANDAR SCHEME DMG

Mamata Banerjee on Laxmir Bhandar: একই পরিবারের একাধিক মহিলা সদস্য পাবেন লক্ষ্মীর ভান্ডারের সুবিধে, জানালেন মমতা

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

চাকরি,পেনশন না থাকলেই পরিবারের সব মহিলাই লক্ষী ভান্ডার এর আওতায় পড়বেন। এদিন নবান্নের প্রশাসনিক বৈঠকের পর এমনটাই জানালেন মুখ্যমন?

  • Share this:

#কলকাতা: একজন নয়, লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে একই পরিবারের একাধিক মহিলা সদস্যও মাসিক ভাতা পেতে পারেন৷ আজ নবান্নে স্পষ্ট করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তবে আবেদনকারীর বয়স হতে হবে ২৫ থেকে ৬০-এর মধ্যে৷ পাশাপাশি, আবেদনকারী সরকারি চাকরি বা কোনও পেনশন না পেলেই এই প্রকল্পের সুবিধে পাবেন৷

রাজ্য সরকারের নতুন প্রকল্প লক্ষ্মীর ভান্ডার নিয়ে রাজ্য জুড়েই বিপুল উৎসাহ তৈরি হয়েছে৷ লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করতে দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পগুলিতে ভিড় উপচে পড়ছে৷ অনেক জায়গায় বিশৃঙ্খলাও সৃষ্টি হচ্ছে৷ প্রকল্পের নিয়মাবলী নিয়েও কিছু ধোঁয়াশা ছিল৷ কারণ একই পরিবারের একাধিক মহিলা সদস্য থাকলে প্রত্যেকে প্রকল্পের সুবিধা পাবেন নাকি একজন, তা অনেকের কাছে স্পষ্ট ছিল না৷ এ দিন সেই বিভ্রান্তিই দূর করলেন মুখ্যমন্ত্রী৷

এ দিন নবান্নে প্রশাসনিক বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী বলেন,  স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পে পরিবারের সবথেকে প্রবীণ মহিলা সদস্যের নামে কার্ড দেওয়া হয়েছিল৷ কিন্তু লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে পরিবারের একাধিক মহিলা সদস্য থাকলেও আবেদন করতে পারবেন৷ তবে তাঁদের বয়স হতে হবে ২৫ থেকে ৬০-এর মধ্যে৷ আর কোনও সরকারি চাকরি করলে বা পেনশন পেলে এই প্রকল্পের সুবিধে পাওয়া যাবে না৷' গত সোমবার থেকেই রাজ্যে চালু হয়েছে "দুয়ারে সরকার" কর্মসূচি। লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প 'দুয়ারে সরকার' কর্মসূচির আওতায় এই প্রথম চালু করা হয়েছে।

সোমবার থেকে 'দুয়ারে সরকার' কর্মসূচি শুরু হওয়ার পর প্রথম তিন দিনেই ৪৬ লক্ষ জমা পড়েছে৷ তার মধ্যে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পে নাম নথিভুক্তির জন্যই ৩০ লক্ষ আবেদন জমা পড়েছে। কিন্তু দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে এই প্রবল ভিড়ের কারণই এখন রাজ্য প্রশাসনের মাথাব্যথার কারণ৷ করোনা অতিমারির মধ্যে এত ভিড় ফের নতুন করে সংক্রমণ ছড়াতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷ সেই কারণেই এ দিন লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করার জন্য তাড়াহুড়ো না করতে পরামর্শ দেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি জানিয়েছেন সেপ্টেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত ক্যাম্প চলবে৷ ফলে তাড়াহুড়ো করে সবাইকে একসঙ্গে ক্যাম্পে না যাওয়ার অনুরোধ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি জানিয়েছেন প্রয়োজনে সময় পেরিয়ে যাওয়ার পর আরও তিন- চারদিন ক্যাম্প চালানো হবে৷

মুখ্যমন্ত্রী  বলেন 'বেশি ভিড় করে আসবেন না। যদি জমা না দিতে পারেন আবার জমা নেওয়ার ব্যবস্থা নেব। নতুন প্রকল্পে একটু ভিড় বেশি হবে, সেটাই প্রত্যাশিত৷' এর আগেও একাধিকবার মুখ্য সচিব জেলাশাসকের নির্দেশ দিয়েছেন লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প যেহেতু নতুন হচ্ছে তাই প্রচুর ভিড় হবে দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পগুলোতে। অন্যদিকে ক্যাম্প গুলিতে ভিড় যাতে নিয়ন্ত্রণ হয় তার জন্য সোমবারই মুখ্যসচিব জেলাশাসকদের নির্দেশ দিয়েছেন৷ লক্ষীর ভান্ডারের আবেদনপত্র সেপ্টেম্বর মাসে জমা পড়লেও ওই মাস থেকেই আর্থিক সুবিধা পাওয়া যাবে বলেও সরকারের তরফে জানানো হয়েছে৷

এর পাশাপাশি দুয়ারে সরকার ক্যাম্প থেকে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের জন্য আবেদন করা যাবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ পাশাপাশি আগের মতোই চলবে কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, বিধবা ভাতা, বার্ধক্য ভাতার মতো বিভিন্ন সামাজিক প্রকল্পের সুবিধার জন্যও আবেদন করা যাবে৷

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Debamoy Ghosh
First published: