• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • MAMATA BANERJEE GIVES SUGGESTION TO CPIM LEADERSHIP OF WEST BENGAL DMG

Mamata Banerjee's advice to CPIM: 'বাংলায় মূল শত্রু কে, ঠিক করুক সিপিএম', কেরলের উদাহরণ দিয়ে পরামর্শ মমতার

সিপিএম নেতাদের বার্তা মমতার৷

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বুঝিয়েছেন, বাংলায় জোট বাঁধলেও কেরলে বাম এবং কংগ্রেস পরস্পরের বিরোধী শক্তি৷ কিন্তু সেখানে দু' দলেরই প্রধান প্রতিপক্ষ বিজেপি (Mamata Banerjee's advice to CPIM)৷

  • Share this:

#দিল্লি: বাংলায় তাঁদের মূল শত্রুকে তা ঠিক করুক সিপিএম তথা বাম নেতৃত্ব৷ একই সঙ্গে প্রদেশ কংগ্রেস একই প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাঁর দাবি, বাংলায় বাম- কংগ্রেস শূন্য হয়ে যাওয়ার কারণেই শক্তি বৃদ্ধি করতে পেরেছে বিজেপি৷ মুখ্যমন্ত্রীর নিশানায় মূলত ছিলেন এ রাজ্যের সিপিএম নেতারা৷

এ দিন দিল্লিতে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপচারিতায় রাজ্যে বাম-কংগ্রেসের রণকৌশল নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি বোঝাতে চেয়েছেন, তৃণমূল নাকি বিজেপি, বাংলায় কে তাদের বড় শত্রু তা বাম এবং কংগ্রেস নেতৃত্বকে ভেবে দেখতে হবে৷ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'বাংলায় কে বড় শত্রু তা বাম- কংগ্রেস নেতারা ভেবে দেখুন৷ কেরলে পারলে ওরা বাংলায় কেন বিজেপি-কে রুখতে পারল না?'

বাংলায় জোট বাঁধলেও কেরলে বাম এবং কংগ্রেস পরস্পরের বিরোধী শক্তি৷ কিন্তু সেখানে দু' দলেরই প্রধান প্রতিপক্ষ বিজেপি৷ কেরলে বিজেপি-র উত্থান রুখে দিয়ে ফের সরকার গঠন করেছে বামেরা৷ এই উদাহরণ দিয়েই মুখ্যমন্ত্রী বোঝাতে চেয়েছেন, কেরলে বিজেপি-কে আটকাতে পারলে বাংলায় বামেরা ব্যর্থ হল কেন?

দিল্লি গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বার বারই বলছেন, বিজেপি-কে হারাতে সবাইকে একজোট হতে হবে৷ যে রাজ্যে যে শক্তিশালী, সেখানে তাদের হাত শক্ত করার পরামর্শ দিচ্ছেন মমতা৷ সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে জোট করতে বামেদের সঙ্গে নেওয়ার ক্ষেত্রেও কোনও ছুৎমার্গ নেই মমতার৷ অতীতেও রাজ্যে বামেদের শক্তিক্ষয় নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তিনি৷ অথচ বাংলায় নির্বাচনী লড়াইতে বিজেপি আর তৃণমূলকে কার্যত একই পংক্তিতে বসিয়ে নির্বাচনী যুদ্ধে নেমেছিল বাম কংগ্রেস জোট৷ তার পরিণতি নির্বাচনী ফলাফলেই স্পষ্ট৷ রাজ্য বিধানসভায় বিজেপি যেখানে ৩ থেকে ৭৭-এ পৌঁছেছে, সেখানে শূন্যে নেমে এসেছে বাম কংগ্রেস৷ মমতা বোঝাতে চেয়েছেন, বিজেপি- তৃণমূলকে এক আসনে বসিয়ে আক্রমণ করতে গিয়েই রাজ্যে নিজেদের বিপর্যয় ডেকে এনেছে দুই দল৷

জাতীয় স্তরে বিজেপি-কে আটকাতে বামেরাও যে তৃণমূলের সঙ্গ দিতে পারে, ইতিমধ্যেই সেই ইঙ্গিত দিয়েছেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু৷ সম্প্রতি এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে বিমান বসু জবাব দিয়েছেন, 'বিজেপি ছাড়া অন্য যে কোনও দলের সঙ্গে আমরা কাজ করতে প্রস্তুত৷ ' তবে তৃণমূলের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মেলানো নিয়ে বামেদের মধ্যেও মতানৈক্য রয়েছে৷ বিজেপি-কে রুখতে বৃহত্তর জোটের পক্ষে সিপিএম- সিপিআই৷ কিন্তু আরএসপি-র মতো শরিক দল মনে করে, জাতীয় স্তরে তৃণমূলের সঙ্গ দিতে গেলে এ রাজ্যে বামেদের বিশ্বাসযোগ্যতা আরও কমবে৷ ফলে মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ বামেরা কীভাবে নেবে, তা এখনই স্পষ্ট নয়৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published: